অগ্রিম ছুটি ভোগ-যে ছুটি পাওনা নাই।

অবসর পূর্ব বা উত্তর ছুটি ব্যতিরেকে সমস্ত চাকুরীকালে চিকিৎসা প্রত্যয়নপত্র সাপেক্ষে সর্বোচ্চ ১২ (বার) মাস অথবা চিকিৎসা প্রত্যয়নপত্র ব্যতিরেকে সমগ্র চাকুরীকালে তিন মাস পর্যন্ত অর্ধ গড় বেতনে ছুটি কোন সরকারী কর্মচারীকে মঞ্জুর করা যাইতে পারে।

যদি কোন কর্মচারী অপ্রাপ্র ছুটি ভোগ করিয়া কাজে যোগদান করেন, তবে অপ্রাপ্য ছুটির সমান যতদিন পর্যন্ত তাহার কর্তব্য কর্ম দ্বারা অর্জিত না হয় ততদিন পর্যন্ত তাহার ছুটির খতিয়ানে যোগ হইবে না।

এক্ষেত্রে এই ছুটি গড় বেতনে প্রদান করা যায় না। শুধুমাত্র অর্ধ গড় বেতনেই প্রদান করা যায়। অর্থাৎ এই প্রকার ছুটিকালীন সময়ে অর্ধ হারে বেতন প্রাপ্য হইবেন।

উদাহরণের সাহায্যে বিষয়টি পরিস্কার করা যাক:

জনাব মজিবুর রহমান একজন স্থায়ী সরকারী কর্মচারী। ১৫-৭-৮৪ ইং তারিখে তাঁহার ৭ (সাত) মাস পূর্ণ বেতনে এবং ৮ (আট) মাস অর্ধ বেতনে ছুটি অর্জিত ছিল। তিনি ঐ তারিখে স্বাস্থ্যগত চিকিৎসা প্রত্যয়ন পত্রের সমর্থনে দীর্ঘ ছুটিতে গমন করিলেন। তাহার্কে ৫ (পাঁচ) মাস পূর্ণ বেতনের ছুটি মঞ্জুর করা হয়। লক্ষ্যণীয় যে তাঁহাকে পরবর্তীতে ৭ ( সাত) মাসের অধিক অর্ধ গড় বেতনে ছুটি দেওয়া যায় না। কারণ ৫ (পাঁচ) মাস পূর্ণ বেতনে ও ৫ (পাঁচ) মাস অর্ধ গড় বেতনে ছুটি এবং পরবর্তীকালে আরো ৭ (সাত) মাস অর্ধ গড় বেতনে মোট ১২ (বার) মাসের অধিক হইয়া যায়। জনাব মজিবুর রহমান দীর্ঘ দিন ছুটির শেষে ১৫-১২-৮৫ ইং তারিখে কাজে যোগদান করিলেন। তাঁহার ছুটির হিসাবে (৭-৫) = ২ (দুই) মাস পূর্ণ গ বেতনে ছুটি জমা থাকিবে এবং (৮-৫+৭) = -৪ (চার) মাস অর্ধ গড় বেতনে ছুটি দেনা থাকিবে। এই অগ্রিম ছুটি পরিশোধ না করা পর্যন্ত তিনি অর্ধ গড় বেতনে ছুটি পাইবেন না।

Avatar

admin

আমি একজন সরকারি চাকরিজীবী। ভালবাসি চাকরি সংক্রান্ত বিধি বিধান জানতে ও অন্যকে জানাতে। আমার ব্লগের কোন কন্টেন্ট সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে বা জানাতে ইমেইল করতে পারেন alaminmia.tangail@gmail.com ঠিকানায়। ধন্যবাদ আপনাকে ওয়েবসাইটটি ভিজিট করার জন্য।