আয়কর দাতার কর অঞ্চল পরিবর্তন করার পদ্ধতি।

সরকারি চাকরিজীবীর চাকুরীক্ষেত্র পরিবর্তন করার ফলে যদি কর সার্কেল পরিবর্তিত হয়ে থাকে তবেই কেবলমাত্র কর সার্কেল পরিবর্তনের প্রয়োজনীয়তা দেখা দেয়। এক্ষেত্রে করদাতাগণকে বর্তমান নিয়োগকর্তার কর সার্কেলের ঠিকানা প্রথমে জানতে হবে। যদি, নতুন নিয়োগকর্তার সার্কেল অপরিবর্তিত থাকে তবে কর সার্কেল পরিবর্তন না করলেও চলবে।

যদি সার্কেল পরিবর্তনের প্রয়োজন হলে নিম্নোক্ত প্রক্রিয়া অনুসরণ করার পরামর্শ প্রদান করা হলো-

১) আপনি যে সার্কেল এর করদাতা হিসাবে রিটার্ন জমা করেছেন সেই সার্কেল থেকে সর্ব শেষ কর বছরের আয়কর রিটার্নের অবিকল নকল (সার্টিফাইড কপি) উঠাবেন এবং উপকর কর কমিশনার বরাবর আপনার বদলি জনিত কারনে আয়কর নথি স্থানান্তরের জন্য একটি আবেদন করবেন। আয়কর নথি স্থানান্তরের একটি কপি সার্কেল থেকে রিসিভ করিয়ে নিবেন, আয়কর নথি স্থানান্তরের রিসিভ কপি এবং সর্ব শেষ কর বছরের আয়কর রিটার্নের অবিকল নকল সংযুক্ত করে বর্তমান অধিক্ষেত্রের কর সার্কেলে চলতি বছরের আয়কর রিটার্ন দাখিল করবেন। (আবেদনের নমুনা)

২) আমি ঠিকানা কিভাবে পরিবর্তন করতে পারি? আপনি www.incometax.gov.bd ওয়েব সাইট থেকে খুব সহজে ঠিকানা, মোবাইল নম্বর ও ইমেইল এড্রেস পরিবর্তন করতে পারবেন। উক্ত ওয়েব সাইট Login করে Change Contact মেনুতে ক্লিক করুন। স্ক্রিনে নতুন ফর্ম দেখতে পাবেন।প্রয়োজনীয় পরিবর্তন শেষে নিচে কেন তথ্য পরিবর্তন করেছেন তার কারণ “Update Reason” বক্সে লিখুন। অত:পর Save বাটনে ক্লিক করুন। আপনার পরিবর্তিত তথ্য ডাটাবেইজে সংরক্ষিত হয়ে যাবে।

৩) কয়েক বছর ধরে ইলেক্ট্রনিক ভাবে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের ওয়েবসাইটে রিটার্ন দাখিল করা যাচ্ছে। এর ফলে আপনি যে সার্কেলেই থাকেন না কেন ওয়েবসাইট থেকে আপনার সার্কেল নির্বাচন করে খুব সহজেই আপনার রিটার্ন দাখিল করতে পারেন। এখানে আপনার সার্কেল নিয়ে চিন্তা করতে হবে না যেহেতু আপনি আপনার কম্পিউটার থেকে রিটার্ন দাখিল করছেন।

আপনাদের সদয় অবগতির জন্য জানাচ্ছি যে ১ নভেম্বর ২০২০ হতে অনলাইনে রিটার্ন দাখিল করা যাবে। প্রত্যাশা করা যাচ্ছে ১৩ নভেম্বর ২০২০ হতে প্রতিবছরের ন্যায় এবারও জাতীয় রাজস্ব বোর্ড আয়কর মেলা আয়োজন করবেন।

admin

আমার ব্লগের কোন কন্টেন্ট সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে বা জানাতে ইমেইল করতে পারেন admin@bdservicerules.info ঠিকানায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.