ছুটি সম্পর্কে কতিপয় গুরুত্বপূর্ণ সরকারী সিদ্ধান্ত।

১। যদি বিভাগীয় বা কোর্ট মামলার কারণে কোন সরকারী কর্মচারী ৫ বৎসর বা ততোধিককাল চাকুরী হইতে সাময়িকভাবে বরখাস্ত থাকেন তবে তাহার ক্ষেত্রে এই বিধি প্রযোজ্য হইবে না। কারণ এই ক্ষেত্রে কতর্ব্য কর্মে যোগদানে তাহার কোনরূপ নিজস্ব অবাধ্যতা ছিল না এবং এফ. আর-১৮ (বি এস আর-১৪) এর আওতায় ছুটিসহ অথবা ছুটি ব্যতীত তিনি কর্তব্য কর্ম হইতে অনুপস্থিত ছিলেন না।

২। সাময়িকভাবে বরখাস্তকৃত অথবা কারারূদ্ধ কোন সরকারী কর্মচারীকে ছুটি মঞ্জুর করা যাইবে না। [বিএসআর-৭৪, এল, আর-৫৫]

৩। কোন সরকারী কর্মচারী যদি চাকুরীচ্যুত বা চাকুরী হইতে অপসারিত হন কিন্তু পরবর্তী পর্যায়ে আপীল বা পুনর্বিবেচনায় চাকুরীতে পুর্নবহাল হন তবে তাহার পূর্বতন চাকুরী ছুটির জন্য গণনাযোগ্য নয়। [বিএসআর-১৭৪ (২)]

৪। কোন গেজেটেড সরকারী কর্মচারীর প্রাপ্য ছুটি সরকার অথবা সরকার কর্তৃক অর্পিত ক্ষমতাসম্পন্ন কর্তৃপক্ষ মঞ্জুর করিতে পারেন। [বিএসআর-১৪৯]

৫। বিশেষ অক্ষমতাজনিত ছুটি ছাড়া কোন নন-গেজেটেড সরকারী কর্মচারী প্রাপ্য ছুটি তাহার নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষ অথবা এইরূপ ছুটি মঞ্জুরীর ক্ষমতা যে কর্তৃপক্ষের উপর সরকার ন্যস্ত করিয়াছে সেই কর্তৃপক্ষ, এই ধরনের কর্মচারীদের ছুটি মঞ্জুর করিতে পারেন। [বিএসআর-১৫০]

৬। অধিকার হিসাবে ছুটি দাবী করা যায় না। ছুটি মঞ্জুরকারী ক্ষমতাপ্রাপ্ত কর্তৃপক্ষ জনস্বার্থের খাতিরে প্রয়োজন বোধে যে কোন প্রকার ছুটি প্রদানে অস্বীকার করিতে বা মঞ্জুরীকৃত ছুটি বাতিল করিতে পারেন। [বিএসআর-১৫১]

৭। আবেদনকারী যে প্রকার ছুটির জন্য আবেদন করিয়াছেন ছুটি মঞ্জুরকারী কর্তৃপক্ষ ঐ প্রকারের ছুটির পরিবর্তে তাহার নিজের ইচ্ছা অনুযায়ী অন্য প্রকারের ছুটি মঞ্জুর করিতে পারিবেন না। [বিএসআর-৬৭]

৮। যদি কোন সরকারী কর্মচারীকে তাহার ছুটি শেষ হওয়ার পূর্বে চাকুরীতে ফেরত আসার আদেশ দেওয়া হয় তাহা হইলে সেই ফেরত আসার আদেশে তাহাকে আবশ্যিকভাবে অথবা ঐচ্ছিক ফেরত আসিতে হইবে কিনা তাহার সুষ্পষ্ট উল্লেখ থাকিতে হইবে। যদি আবশ্যিকভাবে ফেরত আসিতে হয়, তবে তিনি কতিপয় সুযোগ সুবিধা পাইবেন কিন্তু যদি ঐচ্ছিকভাবে ফেরত আসতে হয়, তাহা হইলে কোনরূপ সুবিধা পাইবেন না। [বিএসআর-১৫৬]

৯। স্বাস্থগত কারণে কোন সরকারী কর্মচারী ছুটি গ্রহণ করিয়া থাকিলে স্বাস্থ্যগত যোগ্যতার প্রত্যয়ন পত্র দাখিল না করিয়া তিনি কাজে যোগদান করিতে পারিবেন না।

যদি স্বাস্থ্যগত কারণে কাহারও ছুটির মেয়াদ বৃদ্ধি করা হয় তবে তিনি স্বাস্থ্যগত প্রত্যয়নপত্র দাখিল না করিয়া কাজে যোগদান করিতে পারিবেন না। [বিএসআর-১৫৭(১)]

১০। ছুটি ভোগরত একজন সরকারী কর্মচারীর মঞ্জুরীকৃত ছুটি শেষ হওয়ার ১৪ দিন পূর্বে কর্তব্যকর্মে ফেরত আসিতে পারিবেন না। যদি তিনি এই রূপ আসার জন্য মঞ্জুরীকৃত কর্তৃপক্ষের দ্বারা অনুমতি প্রাপ্ত না হন। [বিএসআর-১৫৮(১ ও এফ আর-৭২)]

১১। ছুটি শেষ হওয়ার পর একজন সরকারী কর্মচারী যদি কর্তব্যকর্মে অনুপস্থিত থাকেন, তাহা হইলে উক্ত অনুপস্থিত কালীন সময়ের জন্য তিনি কোন ছুটি কালীন বেতন প্রাপ্য হইবেন না। ছুটি মঞ্জুরকারী কর্তৃপক্ষ কর্তৃক যতক্ষণ এই ছুটি বর্ধিত করা না হইয়া থাকে ততক্ষণ পর্যন্ত এই ছুটি অর্ধগড় বেতনের ছুটির মত হইলেও, ইহা তাহার ছুটির হিসাব হইতে বাদ যাইবে। [(বিএসআর-১৫৮ (২) এফ আর-৭৩]

১২। কোন সরকারী কর্মচারী তাহার মঞ্জুরীকৃত ছুটি অতিরিক্তকাল অতিবাহিত করিলে ছুটি মঞ্জুরকারী কর্তৃপক্ষ এই অতিরিক্ত কালের অনধিক ১৪ দিন পর্যন্ত ভূতাপেক্ষভাবে ছুটি মঞ্জুর করিতে পারেন। [বিএসআর-১৫৯]

১৩। কোন সরকারী কর্মচারীর ছুটির অতিরিক্ত সময় অতিবাহিত করিলে সেই অতিরিক্ত সময় বাৎসরিক বেতন বৃদ্ধির জন্য গণনাযোগ্য হয় না। [বিএস আর-৪৮ (জি)]

১৪। একজন গেজেটেড সরকারী কর্মচারীকে চার মাসের কম সময়ের পূর্ণগড় বেতনে ছুটি অথবা অবসর গ্রহণের প্রস্তুতি ছুটি বাধ্যতামূলক অবসর গ্রহণের তারিখের অতিরিক্ত বর্ধিত ছুটি ব্যতীত, কোন অর্জিত ছুটি মঞ্জুর করা যাইতে পারে। যদি তিনি এই মর্মে প্রত্যয়ন করেন যে, প্রার্থীত ছুটি তাহার প্রাপ্য রহিয়াছে এবং মঞ্জুরকারী কর্তৃপক্ষ জ্ঞাত তথ্যাদির ভিত্তিতে এই ছুটির প্রাপ্যতা সম্পর্কে সন্তুুষ্ট হইয়া থাকেন।

১৫। সাধারণ অদক্ষতা বা অসদাচারনের জন্য কোন সরকারী কর্মচারী চাকুরীচ্যুত বা চাকুরী হইতে অপসারিত হইলে সেই কর্মচারীকে কোন ছুটি মঞ্জুর করা যাইবে না। [বিএসআর-২৩৪]

১৬। ছুটিতে থাকাকালীন সময়ে কোন সরকারী কর্মচারী সরকারের অনুমতি ব্যতিরেকে কোন চাকুরী নিতে বা কোন নিয়োগ গ্রহণ করিতে পারেন না। (এফ আর-৬৯)

১৭। এই বিধিতে অন্যভাবে কোন কিছু বর্ণিত না থাকিলে, একজন সরকারী কর্মচারী ছুটিকালীন সময়ে বা ছুটিতে যাওয়ার সময়ে অথবা ছুটি হইতে প্রত্যাবর্তনের সময়ের ভ্রমনের জন্য কোন প্রকার ভ্রমণ ভাতা প্রাপ্য হইবেন না। [বিএসআর-১৩৪]

Avatar

admin

আমি একজন সরকারি চাকরিজীবী। ভালবাসি চাকরি সংক্রান্ত বিধি বিধান জানতে ও অন্যকে জানাতে। আমার ব্লগের কোন কন্টেন্ট সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে বা জানাতে ইমেইল করতে পারেন alaminmia.tangail@gmail.com ঠিকানায়। ধন্যবাদ আপনাকে ওয়েবসাইটটি ভিজিট করার জন্য।