ড্রাইভিং লাইসেন্স নবায়ন ও নতুন ফি প্রায় সমানই – অপেশাদারদের ক্ষেত্রে প্রথমে ৩টি ধাপ পার করতে হয় কিন্তু নবায়নের ক্ষেত্রে কোন পরীক্ষা দিতে হয় না – Driving Licence Renew Fee 202৩

চালকের যানবাহন চালানোর অনুমতিপত্র –মোটরযান পরিবহনের ক্ষেত্রে চালকের অনুমতিপত্র বা চালনার অনুমতিপত্র বলতে একটি সরকারী নথিকে বোঝায়, যেটিতে কোনও নির্দিষ্ট ব্যক্তিকে জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত সড়কে এক বা একাধিক ধরনের মোটরযান যেমন মোটরসাইকেল, মোটরগাড়ি, ট্রাক বা বাস চালনা করার অনুমতি প্রদান করা হয়।

অপেশাদার বা সাধারণ ব্যক্তিগত ব্যবহারকারী- গ্রাহককে প্রথমে নির্ধারিত ফি (মেয়াদোত্তীর্ণের ১৫ দিনের মধ্যে হলে ৪২১২/- টাকা ও মেয়াদোত্তীর্ণের ১৫ দিন পরে প্রতি বছর ৫১৮/- টাকা জরিমানাসহ) জমা দিয়ে প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ বিআরটিএর নির্দিষ্ট সার্কেল অফিসে আবেদন করতে হবে। আবেদনপত্র ও সংযুক্ত কাগজপত্র সঠিক পাওয়া গেলে একইদিনে গ্রাহকের বায়োমেট্রিক্স (ডিজিটাল ছবি, ডিজিটাল স্বাক্ষর ও আঙ্গুলের ছাপ) গ্রহণ করা হয়। স্মার্ট কার্ড wপ্রন্টিং সম্পন্ন হলে গ্রাহককে এসএমএস এর মাধ্যমে জানিয়ে দেয়া হয়। ড্রাইভিং লাইসেন্স মেয়াদোত্তীর্ণ বা এক্সপাইয়ার্ড হলেই নবায়ন করে নিন অন্যথায় প্রতি বছরের জন্য ৫১৮ টাকা হারে পরবর্তীতে জরিমানাসহ নবায়ন করতে হবে। ড্রাইভিং লাইসেন্স নবায়ন (Renew) পদ্ধতি ২০২২

পেশাদার বা যাত্রী সেবা প্রদানকারী – পেশাদার ড্রাইভিং লাইসেন্সধারীদেরকে পুনরায় একটি ব্যবহারিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হবে। পরীক্ষায় উত্ত্তীর্ণ হওয়ার পর নির্ধারিত ফি ( মেয়াদোত্তীর্ণের ১৫ দিনের মধ্যে হলে ২৪৮৭/- টাকা ও মেয়াদোত্তীর্ণের ১৫ দিন পরে প্রতি বছর ৫১৮/- টাকা জরিমানাসহ ) জমা দিয়ে প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ বিআরটিএর নির্দিষ্ট সার্কেল অফিসে আবেদন করতে হবে। গ্রাহকের বায়োমেট্রিক্স (ডিজিটাল ছবি, ডিজিটাল স্বাক্ষর ও আঙ্গুলের ছাপ) গ্রহণের জন্য গ্রাহককে নির্দিষ্ট সার্কেল অফিসে উপস্থিত হতে হয়। স্মার্ট কার্ড প্রিন্টিং এর সমস্ত প্রক্রিয়া সম্পন্ন হলে গ্রাহককে এসএমএস এর মাধ্যমে জানিয়ে দেয়া হয়। বাইক রেজিস্ট্রেশন ফি ২০২৩ । নতুন বাইক রেজিস্ট্রেশনে কোন খাতে কত টাকা ফি দেখে নিন।

ড্রাইভিং লাইসেন্স নবায়ন হতে কত দিন লাগে? / অপেশাদারদের ক্ষেত্রে কি পুনরায় ড্রাইভিং টেস্ট দিতে হয়?

সাধারণত ৩ মাসের মধ্যে পাওয়ার কথা থাকলেও কারও ক্ষেত্রে ২ বছরও লেগে যাচ্ছে। না। নবায়নের ক্ষেত্রে অপেশাদারদের পুনরায় ড্রাইভিং টেস্ট দিতে হয় না।

ড্রাইভিং লাইসেন্স নবায়ন করার নিয়ম ২০২৩ । ড্রাইভিং লাইসেন্স নবায়ন কি কত টাকা?

ড্রাইভিং লাইসেন্স সাধারণত ১০ বছর মেয়াদে প্রদান করা হয়ে থাকে।

ড্রাইভিং লাইসেন্স নবায়নে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র । যে সকল কাগজপত্র জমা দিতে হবে।

  1. নির্ধারিত ফরমে আবেদন। (সমস্ত তথ্য হাত লিখতে হবে)
  2. রেজিষ্টার্ড ডাক্তার কর্তৃক মেডিকেল সার্টিফিকেট। (ডাক্তার কর্তৃক ফরম পূরণ করাতে হবে টেস্ট করিয়ে)
  3. ন্যাশনাল আইডি কার্ড এর সত্যায়িত ফটোকপি। (গেজেটেড কর্মকর্তা বা বিআরটিএ কর্মকর্তা দ্বারা সত্যায়িত করাতে হবে)
  4. শিক্ষাগত যোগ্যাতার সনদ। (সত্যায়িত হতে হবে)
  5. নির্ধারিত ফী জমাদানের রশিদ। (ব্যাংক অথবা মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে জমা দিতে হবে)
  6. পেশাদার ড্রাইভিং লাইসেন্স- এর জন্য পুলিশি তদন্ত প্রতিবেদন। (প্রতিবারই নবায়নের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য)
  7. সদ্য তোলা ১ কপি পাসপোর্ট ও ১কপি স্ট্যাম্প সাইজ ছবি। (সত্যায়িত হতে হবে)

লাইসেন্স নবায়নের ধাপগুলো কি কি?

নবায়ন ফরম পূরণের ক্ষেত্রে লক্ষ্যনীয় বিষয়গুলো হল- যদি আপনি বিবাহিত হন সেক্ষেত্রে আপনার স্ত্রী র নাম ও মোবাইল নাম্বার / স্বামীর নাম ও মোবাইল নাম্বার দিতে হবে। যদি অবিবাহিত হন সেক্ষেত্রে আপনার পিতার নাম অথবা মাতার নাম দিতে হবে। এই ফরম আপনি চাইলে অনলাইনে পূরণ করতে পারবেন। মেডিকেল ফরম এর চেক আপ লিস্ট অনুযায়ী সকল বিষয় চেক করে ফরমটি একজন এমবিবিএস ডাক্তার দ্বারা মেডিকেল টেস্ট করিয়ে তা সত্যায়িত করিয়ে নিয়ে জমা দিতে হবে। এই ফরমটি আপনি বিআরটিএ এর আশেপাশে ফটোকপির দোকানগুলোতে পেয়ে যাবেন। এই দুইটি ফরমে ১ কপি করে ছবি সত্যায়িত করে নিতে হবে। এরপরে নবায়ন ফরম ও মেডিকেল ফরম পূরণ করে জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি, ড্রাইভিং লাইসেন্স এর ফটোকপি, ব্যাংক স্লিপ ফটোকপি, নাগরিক সনদ পত্রের ফটোকপি, মেডিক্যাল সার্টিফিকেট এর আসল কপি সব কিছু একত্রে করে জমা দিতে হবে। আপনার যদি সকল ডকুমেন্টস একদম ঠিক থাকে তাহলে সেদিন অথবা পরের দিন আপনি একটা ডুপ্লিকেট ড্রাইভিং লাইসেন্স পাবেন যা দিয়ে আপনি আপনার বায়োমেট্রিক এসএমএস না আসা পর্যন্ত অস্থায়ীভাবে মোটরসাইকেল চালাতে পারবেন।

বায়োমেট্রিক এসএম এস আসলে বা আপনাকে কোন নির্দিষ্ট তারিখ দেওয়া থাকলে সেই তারিখ অনুযায়ী সেখানে গিয়ে আপনার ফিঙ্গার প্রিন্ট ও ছবি তুলে আসতে হবে। সেদিনই আপনি একটা কম্পিউটার কপি পাবেন। ফিঙ্গার প্রিন্ট ও ছবি তোলার ৩ মাস পর সেই কম্পিউটার কপি নিয়ে যেয়ে আপনি আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্স এর স্মার্ট কার্ড সংগ্রহ করতে পারবেন।

ড্রাইভিং লাইসেন্স নবায়ন করার নিয়ম ২০২২ । পুনরায় বাইক চালিয়ে পরীক্ষা দিতে হবে কিনা

admin

আমি একজন সরকারী চাকরিজীবি। দীর্ঘ ৮ বছর যাবৎ চাকুরির সুবাদে সরকারি চাকরি বিধি বিধান নিয়ে পড়াশুনা করছি। বিএসআর ব্লগে সরকারি আদেশ, গেজেট, প্রজ্ঞাপন ও পরিপত্র পোস্ট করা হয়। এ ব্লগের কোন পোস্ট নিয়ে বিস্তারিত জানতে admin@bdservicerules.info ঠিকানায় মেইল করতে পারেন।

admin has 3009 posts and counting. See all posts by admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *