প্রথম যোগদানের তারিখ হতে উৎসবের দিন পর্যন্ত উৎসব ভাতা।

নতুন যোগদানকৃত কর্মচারীদের সরকারী বিধান অনুসারে উৎসব ভাতা প্রদান করা হয়ে থাকে। অনেক অফিসই নতুন যোগদানকৃত কর্মচারীদের উৎসব ভাতা প্রদানের ক্ষেত্রে ভুল সিদ্ধান্ত নেয়। উৎসব ভাতা প্রদানের সরকারী বিধি সম্পর্কে ধারনা না থাকার কারণে এমনটি হয়ে থাকে। আসুন আমরা নতুন যোগদানকৃত কর্মচারীর উৎসব ভাতা নির্ধারণ সম্পর্কে জেনে নিই।

বেতন ও পেনশন নির্ধারণ সহায়িকা-৫৯৫

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার

অর্থ মন্ত্রণালয়

অর্থ বিভাগ

বাস্তবায়ন অনুবিভাগ

শাখা-৪

স্মারক নং-এমএফ/এফডি/হিল্প-৪/এফবি/১২/৮৫/৪৪; তারিখ: ১১-০৬-১৯৯০ ইং

বিষয়: নব নিযুক্ত কর্মচারীদের উৎসব ভাতা প্রদান সংক্রান্ত।

সূত্র: স্মারক নং-সি নং-৬ (৩) প্রশাসন-৪/৮৯/১৭৮ তারিখ: ১৮-৯-৮৯ইং

উপরোক্ত বিষয় ও সূত্রের অনুসরণে নিম্ন স্বাক্ষরকারী আদিষ্ট হয়ে জানাচ্ছি যে, যে মাসে উৎসব অনুষ্ঠিত হবে, সে মাসে যোগদানকৃত কর্মচারীগণ উৎসব অনুষ্ঠানের তারিখ পর্যন্ত মূল বেতনের ভিত্তিতে উৎসব ভাতা প্রাপ্য হবেন। যদি কোন কর্মকর্তা/কর্মচারী, উৎসব অনুষ্ঠিত মাসের পূর্ব মাসে যোগদান করে থাকেন এবং পূর্ব মাসের পুরো মাসের বেতন আহরণ না করে থাকেন, তবে সে ক্ষেত্রে পূর্ব মাসে যত দিনের বেতন আহরণ করেছেন শুধুমাত্র ততদিনের বেতনই উৎসব ভাতা হিসাবে প্রাপ্য হবেন। তবে যে ক্ষেত্রে পূর্ণ মাসে আহরিত বেতন এবং যে মাসে উৎসব অনুষ্ঠিত হবে সে মাসের প্রথম দিন থেকে উৎসবের দিন পর্যন্ত প্রাপ্য মূল বেতন ও দুয়ের মধ্যে যেটি অধিক হবে, সেটিই প্রাপ্য হবেন।

 স্বাক্ষর

মো: ফোরকান

১২/৮/৯০

সিনিয়র সহকারী সচিব

প্রথম যোগদানের তারিখ হতে উৎসবের দিন পর্যন্ত মূল বেতন উৎসব ভাতা পাবে বিস্তারিত জানতে আদেশ দেখুন: ডাউনলোড

এক্ষেত্রে বর্তমানে নতুন আদেশ প্রযোজ্য হবে যা নিচের লিংকে দেওয়া হল।

নবনিযুক্ত কর্মচারীদের উৎসব ভাতার প্রাপ্যতা।

সরকারি কর্মচারীদের মধ্যে যারা প্রশাসন শাখা বা হিসাব শাখায় কাজ করেন তারাই কেবল চাকরি সম্পর্কিত বিধি বিধানগুলো সম্পর্কে ভাল ধারণা রাখেন। অবশিষ্ট ৮০% কর্মকর্তা/ কর্মচারীই সরকারি চাকরির বিধানাবলীবাংলাদেশ সার্ভিস রুলস, হালনাগাদ পেনশন রুলসভ্রমণ বিধি ও প্রাপ্যতা , উৎসব ভাতার প্রাপ্যতা, সরকারি কর্মচারীদের বিনামূল্যে চিকিৎসা সুবিধা বা চিকিৎসা শেষে ব্যয় উত্তোলন, বিভিন্ন ভাতাদির প্রাপ্যতা, বিভিন্ন ধরনের অগ্রিম সুবিধা গ্রহণ, নিয়োগ ও বদলি নীতিমালা, বিভিন্ন ধরনের ছুটি কিভাবে নিতে হয়, বাসা বরাদ্দ বা বাড়ি ভাড়া প্রাপ্যতা, শিক্ষা সহায়ক ভাতা বা রেশন সুবিধা ইত্যাদি সর্ম্পকে ভাল ধারনা রাখেন না। এই ওয়েবসাইটটিতে উপরোক্ত বিষয়গুলো সহজ ভাবে তুলে ধরা হয়েছে। সরল ও প্রাঞ্জল ভাষায় ব্যাখ্যা করা হয়েছে। সাধারণ কর্মচারী যাতে সহজেই ব্যাপার গুলো বুঝতে পারে এবং যদি কোন বিধি বুঝতে সমস্যা হয় তা নিয়ে সরাসরি প্রশ্ন করতে পারেন সে ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। কেউ যদি কোন বিধি বা নীতিমালা বুঝতে অসমর্থ হয় তবে আমাদের ফেসবুক পেইজগ্রুপ এবং ইমেইল ঠিকানায় যোগাযোগ করতে পারেন।

প্রতিটি পোস্টের রেফারন্স পোস্টের শেষে “ডাউনলোড” নামের যে লিংক দেওয়া আছে সেখান থেকে সংগ্রহ করে নিতে পারেন। ডাউনলোড ফাইল Google Drive or Box.com এ স্টোর করা আছে। কারও যদি ফাইলটি ডাউনলোড করতে সমস্যা হয় তবে আপনি আপনার নিজের gmail Account এ Login করে নিন। লগইন করার পর ঠিকই ফাইলটি ডাউনলোড হবে। তবুও যদি আপনি রেফারেন্স ফাইল ডাউনলোডে সমস্যায় পড়ে তবে আপনি এডমিনকে alaminmia.tangail@gmail.com এ ফাইলের নাম দিয়ে নক করুন। এডমিন আপনার ইমেইলের উত্তর দিবে।

কিছু কর্মকর্তা/ কর্মচারীদের কাছে সরকারি চাকরির বিধি বিধানের কিছু বইও হয়তো সংগ্রহে আছে কিন্তু তা মূলত সংগ্রহেই মাত্র বের করে পড়ার সময় বা সুযোগ নেই। কারও সময় বা সুযোগ থাকলেও বের করে পড়া পর্যন্ত হয় না। আবার দেখা যায় যে, অসংখ্য বইয়ের মধ্যে একটি সামারি বই চাকরির বিধানাবলীই শুধুমাত্র সংগ্রহ রয়েছে। সরকারি চাকরি সংক্রান্ত অসংখ্যা বই রয়েছে যেগুলো আবার প্রতি বছরই আপডেট হয়ে থাকে আপনি যদি শুধুমাত্র এই ওয়েবসাইটের সাথে যুক্ত থাকেন তবে আপনি সকল আপডেট তথ্যই পেয়ে যাবেন। ব্লগটি ভিজিট করার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।

admin

এই ব্লগের কোন পোস্ট নিয়ে বিস্তারিত জানতে বা কোন তথ্য যুক্ত করতে বা সংশোধন করতে চাইলে অথবা কোন আদেশ, গেজেট পেতে এই admin@bdservicerules.info ঠিকানায় মেইল করতে পারেন।