ব্যক্তি করদাতার আয়কর রিটার্ণ ফরম পূরণে জ্ঞাতব্য বিষয়সমূহ।

সার্বজনীন স্বনির্ধারণী পদ্ধতে রিটার্ণ দাখিলের জন্য করদাতার ১২ ডিজিটের টিআইন থাকা বাধ্যতামূলক। কোন ব্যীক্ত করদাতা রিটার্ণ দাখিলের পূর্বে নিজেই জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ইলেক্ট্রনিক পদ্ধতে আবেদন করে ১ ২ ডিজিটের টিআইএন (ই-টিআইন) সংগ্রহ করতে পারেন। (ওয়েবসাইটের ঠিকানা: www.incometax.gov.bd) । ই-টিআইএন সংগ্রহ সম্পর্কি সেবার জন্য করদাতা প্রয়োজনে সংশ্লিষ্ট উপকর কমিশনারের কার্যালয় বা কর তথ্য ও সেবা কেন্দ্রে যোগাযোগ করতে পারেন।

১। ব্যক্তি শ্রেণীর করদাতাদের জন্য নতুন রিটার্ণ ফরম IT-GHA2020

ব্যক্তি শ্রেণীর করদাতা যারা নিম্নোক্ত শর্তাবলী পূরণ করেন তারা চাইলে IT-GHA2020 রিটার্ণটি দাখিল করতে পারবেন:

ক) যাদের আয় ৪ লক্ষ টাকার উর্ধ্বে নয়; এবং

খ) যাদের মোট পরিসম্পদ (Gross Wealth ) ৪০ লক্ষ টাকার উর্ধ্বে নয়।

উক্ত শর্তাবলী পূরণ করলেও নিম্নে যে কোন একটি কারণে করদাতা IT-GHA2020 রিটার্ণটি ব্যবহার করতে পারবেন না;

ক) আয় বছরের শেষ তারিখে মোটর গাড়ি (জীপ বা মাইক্রোবাসসহ) এর মালিকানা থাকলে; অথবা

খ) আয় বছরে কোন সিটি কর্পোরেশন এলাকায় কোন গৃহ সম্পত্তি বা অ্যাপার্টমেন্টের মালিক হলে অথবা গৃহ সম্পত্তি বা এপার্টমেন্টে বিনিয়োগ করলে।

IT-GHA2020 রিটার্ণটি পূরণকালে করদাতা চাইলে মোট পরিসম্পদ (Gross Wealth) এর ঘরটি পূরণ করতে পারেন এবং অপর পৃষ্ঠায় সংক্ষিপ্ত আকারে সম্পদ ও দায়ের বিবরণ দিতে পারেন। এই রিটার্ণে মোট পরিসম্পদ (Gross Wealth) এবং সম্পদ ও দায়ের বিবরণ প্রদান করদাতার জন্য অপশনাল।

(২) ব্যক্তি করদাতার জন্য ২০১৬-১৭ কর বছরে নতুন প্রবর্তিত রিটার্ণ ফরম IT-11GA2016 এর মূল রিটার্ণটি তিন পৃষ্ঠার। মূল রিটার্ণের সাথে প্রাপ্তি স্বীকার পত্র এবং প্রযোজ্য ক্ষেত্রে বেতন, গৃহ সম্পত্তি আয়, ব্যবসায় বা পেশা খাতে আয় ও কর রেয়াতের জন্য পৃথক তফসিল সংযুক্ত করতে হবে।

তিন পৃষ্ঠার মূল রিটার্ণ পূরণ করা সকল ব্যক্তি করদাতাদের জন্য বাধ্যতামূলক। এতে প্রথম পৃষ্ঠায় করদাতার বিষয়ে মৌলিক তথ্য, দ্বিতীয় পৃষ্ঠায় আয় ও করের হিসাব এবং তৃতীয় পৃষ্ঠায় সংলাগ, করদাতার প্রতিপাদন ও স্বাক্ষর প্রদান করতে হবে।

করদাতার আয়ের উৎসের উপর নির্ভর করে মূল রিটার্ণের সাথে তফসিল যোগ হবে। বেতন আয় থাকলে বেতন সংক্রান্ত তফসিল 24A, বাড়ি ভাড়া আয় থাকলে সে আয়ের তফসিল 24B এবং ব্যবসায় বা পেশাগত আয় থাকলে ব্যবসায় বা পেশাগত আয়ের তফসিল 24C মূল রিটার্ণের সাথে যোগ হবে। যে করদাতার এসব কোন খাতের আয় নেই তার কেবল তিন পৃষ্ঠার মূল রিটার্ণ দাখিল করলেই চলবে, তফসিল দাখিল করার প্রয়োজন হবে না।

মূল রিটার্ণর প্রথম পৃষ্ঠার ০১ হতে ২৩ পর্যন্ত ক্রমিকে করদাতার বিষয়ে মৌলিক তথ্য প্রদান করতে হবে। এ অংশে পর্যায়ক্রমে কর বছর, করদাতার নাম, লিঙ্গ, টিআইএন, সার্কেল, কর অঞ্চল, আবাসিক মর্যাদা, বিশেষ কর অব্যাহতি সুবিধাপ্রপ্তির যোগ্যতা (গেজেটভূক্ত যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা, প্রতিবন্ধী ব্যক্তি, ৬৫ বছর বা তদূর্ধ্ব বয়সের ব্যক্তি, প্রতিবন্ধী ব্যক্তির পিতামাতা বা আইনানুগ অভিভাবক ইত্যাদি), জন্ম তারিখ, আয় বছর ইত্যাদি সহ অন্যান্য ব্যক্তিগত তথ্য প্রদান করতে হবে। ১২ ক্রমিকে আয় বছর শুরু ও সমাপ্তির তারিখ উল্লেখ হবে।

রিটার্ণের দ্বিতীয় পৃষ্ঠার ২৪ হতে ৪৮ ক্রমিকে করদাতার আয় ও করের তথ্য উল্লেখ করতে হবে।

রিটার্ণের তৃতীয় পৃষ্ঠায় সংলাগ, করদাতার প্রতিপাদন ও স্বাক্ষর প্রদান করতে হবে।

কোন ব্যক্তি করদাতা প্রতিবন্ধী সন্তানের জন্য অতিরিক্ত করমুক্ত সীমার সুবিধা গ্রহণ করলে, তার স্ত্রী/ স্বামী অনুরূপ সুবিধা গ্রহণ করেছেন কিনা তার তথ্য ৫০ ক্রমিকে প্রদান করতে হবে।

ক্রমিক নং-৫১ তে ৮০ (১) ধারা অনুযায়ী করদাতার জন্য পরিসম্পদ, দায় ও ব্যয় বিবরণী (IT-10B2016) দাখিল বাধ্যতামূলক কিনা তার তথ্য প্রদান করতে হবে। যদি কোন ব্যক্তি করদাতা নিম্নোক্ত শর্তসমূহ পূরণ করেন তাহলে আয় বছরের শেষ তারিখে তার নিজের, Spouse এর (Spouse) করদাতা না হয়ে থাকলে) এবং নির্ভরশীল সন্তানদের পরিসম্পদ, দায় ও ব্যয় বিবরণী ঐ ব্যক্তির আয়কর রিটার্ণের সাথে দাখিল করতে হবে। শর্তসমূহ হলো-

ক) আয় বছরের শেষ মোট পরিসম্পদ (Gross Wealth) এর পরিমাণ ৪০ লক্ষ টাকার অধিক হরে, অথবা

খ) আয় বছরের শেষ তারিখে মোটর গাড়ি (জীপ বা মাইক্রোবাসসহ) এর মালিকানা থাকলে, অথবা

গ) আয় বছরে কোন সিটি কর্পোরেশন এলাকায় কোন গৃহ সম্পত্তি বা অ্যাপার্টমেন্টের মালিক হলে অথবা গৃহ সম্পত্তি বা এপার্টমেন্টে বিনিয়োগ করলে।

উল্লেখ্য, মাতা পিতার টিআইএন ব্যবহার করে সন্তানের নামে স্কুল ব্যাংকিং হিসাব খোলা হলে তা ক্ষেত্রমত মাতা-পিতার সম্পদ বিবরনীতে প্রদর্শন করতে হবে।

করদাতার রিটার্ণর সাথে যে সকল তফসিল সংযুক্ত করা হয়েছে তার তথ্য ৫২ ক্রমিকে প্রদান করতে হবে।

করদাতার রিটার্ণের সাথে পরিসম্পদ, দায় ও ব্যয় বিবরণী (IT-10B2016) এবং জীবনযাত্রা সংশ্লিষ্ট ব্যয়ের বিবরণী (IT-10BB2016) সংযুক্ত করা হয়েছে কিনা তার তথ্য ৫৩ ক্রমিকে প্রদান করতে হবে।

কোন ব্যক্তি করদাতার ক্ষেত্রে পরিসম্পদ, দায় ও ব্যয় বিবরণী দাখিল বাধ্যতামূলক না হলেও করদাতা চাইলে স্বপ্রনোদিত ভাবে (Voluntarily) পরিসম্পদ, দায় ও ব্যয় বিবরণী দাখিল করতে পারবেন।

ক্রমিক নং-৫৪তে রিটার্ণের বিভিন্ন উৎসের আয় ও কার পরিশোধের সপক্ষে যে সকল প্রমাণাদি দাখিল করবেন তার তালিকা প্রদান করবেন।

(৩) ব্যক্তি শ্রেণীর করদাতাদের জন্য আগের রিটার্ণ ফরম IT-11Ga এ ফরম বাংলা ও ইংরেজী উভয় ভাষায় চালু আছে। সকল করদাতা ২০১৬-১৭ কর বছরে প্রবর্তিত নতুন ফরমের পাশাপাশি আগের রিটার্ণ ফরম IT-11Ga 2021-2022 কর বছরে ব্যবহার করতে পারবেন। মুল রিটার্ণ , পরিসম্পদ, দায় ও ব্যয় বিবরণী (IT-10B), জীবনযাত্রার মান সম্পর্কিত তথ্যের বিবরণী (IT-10BB), রিটার্ণ ফরম পূরণের অনুসরণীয় নির্দেশাবলী এবং আয়কর রিটার্ণ প্রাপ্তি স্বীকারপত্রসহ মোট আট পৃষ্ঠার ফরম ও বিবরণী একসংগে সংযুক্ত রয়েছে। তবে আয়কর অধ্যাদেশ, ১৯৮৪ এর ধারা ৮০(২) অনুযায়ী জীবনযাত্রার ব্যয় ৪ লক্ষ টাকার অধিক না হলে জীবনযাত্রার মান সম্পর্কিত তথ্যের বিবরণী (IT-10BB) দাখিল অপশনাল।

প্রথম পৃষ্ঠায় করদাতার পরিচিতিমূলক তথ্য, দ্বিতীয় পৃস্ঠায় করদাতার বিভিন্ন কাতের আয়ের বিবরণ, প্রদেয় ও পরিশোধিত আয়করের বিবরণ ও প্রতিপাদন, তৃতীয় পৃস্ঠায় বেতন ও গৃহ-সম্পত্তি আয়ের বিস্তারিত বিবরণ সম্বলিত পৃথম দু’টি তফসিল, চতুর্থ পৃষ্ঠায় বিনিয়োগজনিত কর রেয়াতের একটি তফসিল ও দাখিলকৃত প্রমাণাদির তালিকা লিপিবদ্ধ করার ছক রয়েছে।

রিটার্ণের পঞ্চম ও ষষ্ঠ পৃষ্ঠায় করদাতার পরিসম্পদ, দায় ও ব্যয় বিবরণী (IT-10B), সপ্তম পৃষ্ফায় জীবনযাত্রার মান সম্পর্কিত তথ্যে বিবরণী (IT-10BB) এবং পৃষ্ঠায় রিটার্ণ ফরম পূরণের অনুসরণীয় নির্দেশাবলী সংযুক্ত রয়েছে। আয়কর রিটার্ণ প্রাপ্তি স্বীকারপত্রটি সপ্তম ও অষ্টম পৃষ্ঠার শেষাংশে সংযুক্ত আছে।

(৪) ব্যক্তি শ্রেণীর করদাতাদের রিটার্ণ ফরম IT-11UMA এবং IT-11CHA.

কেবল বেতনভোগী করদাতাগণ এবং যে সকল ব্যক্তি করদাতার ব্যবসা বা পেশাখাতে আয় রয়েছে ও এরূপ আয়ের পরিমাণ ৩ লক্ষ টাকার বেশি নয় সে সকল করদাতা চাইলে ২০২১-২২ কর বছরে যথাক্রমে IT-11-UMA এবং IT-11CHA বিশিষ্ট রিটার্ণ ফরমও ব্যবহার করতে পারেন। ফরম দুটি স্বব্যাখ্যাত।

উল্লেখ্য, এ দু’টি শ্রেণীর করদাতাগণ ২০১৬-১৭ কর বছরে নতুন প্রবর্তিত তিন পৃষ্ঠার রিটার্ণ ফরম IT-11GHA বা আগের আট পৃষ্ঠার ফরম ব্যবহার করতে পারবেন।

(৫) নতুন করদাতা হলে তার পাসপোর্ট সাইজের এক কপি ছবি রিটার্ণের সাথে দিবে হবে। ছবিটি প্রথম শ্রেণীর গেজেটেড কর্মকর্তা অথবা ওয়ার্ড কমিশনার অথবা যে কোন টিআইএনধারী করদাতা কর্তৃক সত্যায়িত হতে হবে। প্রতি পাঁচ বছর পর পর একজন ব্যক্তি করদাতাকে তার সত্যায়িত ছবি রিটার্ণের সাথে দিতেব হবে।

সার্বজনীন স্বনির্ধারণী পদ্ধতে রিটার্ণ দাখিলের জন্য করদাতার ১২ ডিজিটের টিআইন থাকা বাধ্যতামূলক। কোন ব্যীক্ত করদাতা রিটার্ণ দাখিলের পূর্বে নিজেই জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ইলেক্ট্রনিক পদ্ধতে আবেদন করে ১ ২ ডিজিটের টিআইএন (ই-টিআইন) সংগ্রহ করতে পারেন। (ওয়েবসাইটের ঠিকানা: www.incometax.gov.bd) । ই-টিআইএন সংগ্রহ সম্পর্কি সেবার জন্য করদাতা প্রয়োজনে সংশ্লিষ্ট উপকর কমিশনারের কার্যালয় বা কর তথ্য ও সেবা কেন্দ্রে যোগাযোগ করতে পারেন।

আয়কর নির্দেশিকা ২০২০-২১

admin

এই ব্লগের কোন পোস্ট নিয়ে বিস্তারিত জানতে বা কোন তথ্য যুক্ত করতে বা সংশোধন করতে চাইলে অথবা কোন আদেশ, গেজেট পেতে এই admin@bdservicerules.info ঠিকানায় মেইল করতে পারেন।

One thought on “ব্যক্তি করদাতার আয়কর রিটার্ণ ফরম পূরণে জ্ঞাতব্য বিষয়সমূহ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.