ভ্রমণ ভাতা নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ ২০টি বিধি-বিধান।

১। পরিভ্রমণকালে সড়কপথে ভ্রমণের জন্য দৈনিক ভাতা দাবি করা হইলে সদর দপ্তর হইতে যাত্রারম্ভের এবং সদর দপ্তরে প্রত্যাবর্তনের দিনে যে দূরত্ব পর্যন্ত ভ্রমণ করা হয়, তাহা বিলে উল্লেখ করিতে হইবে। বিধি-৫৫ এর নোট।

২। ছুটি ভোগের সময়ে ভ্রমণের জন্য অথবা ছুটিতে যাওয়ার বা প্রত্যবর্তনের ক্ষেত্রে ভ্রমণের জন্য ভ্রমণ ভাতা প্রাপ্য নয়। এফ আর (এস আর)-১৩৪

৩। ছুটি শেষ হওয়ার কমপক্ষে এক মাস পূর্বে ছুটি বাতিল পূর্বক বাধ্যতামূলকভাবে কাজে যোগদানের নির্দেশ দেওয়া হইলে ছুটিকালীন অবস্থানের স্থান হইতে কর্মস্থল পর্যন্ত ভ্রমণের জন্য পথ ভাড়া ভাতা প্রাপ্য। তবে ছুটি শেষ হওয়ার এক মাসের কম সময় পূর্বে যোগদানের নির্দেশ দেওয়া হইলে, এইক্ষেত্রে পথ ভাড়া ভাতা প্রদান কর্তৃপক্ষের ইচ্ছাধীন থাকিলে। এফ আর (এসআর)-১৪২

৪। চাকরি হইতে অবসর গ্রহণের বা চাকরি হইতে বরখাস্তের বা চাকরির অবসানের পর ভ্রমণের জন্য ভাতা ভ্রমণ ভাতা প্রাপ্য নয়। এফ আর (এস আর)-১৪৬ ও ১৪৭

৫। কোন আদালত বা বিভাগীয় কার্যক্রমে তাঁহার কর্তব্য পালনকালে সংঘটিত বা জ্ঞাত ঘটনার সাক্ষী প্রদানের জন্য ভ্রমণের জন্য ভ্রমণের ক্ষেত্রে আদালত বা সমন জারীকারী কর্তৃপক্ষ কর্তৃক প্রদত্ত উপস্থিত হওয়ার প্রত্যয়ণপত্র ভ্রমণ ভাতা বিলের সহিত সংযুক্তিকরণ সাপেক্ষে ভ্রমণ ভাতা পাইবেন। তবে ভ্রমণভাতা গ্রহণের ক্ষেত্রে আদালত বা সমন জারিকারী কর্তৃপক্ষের নিকট হইতে কোন অর্থ গ্রহণ করা যাইবে না; গ্রহণের ক্ষেত্রে তাহা সরকারি কোষাগারে জমা প্রদান করিতে হইবে। ছুটি ভোগের সময়ে সাক্ষীর সমন পাওয়া গেলে ছুটিকালীন অবস্থান স্থান হইতে স্বাক্ষী প্রদানের স্থান পর্যন্ত ভাতা প্রাপ্য। এফ আর (এসআর)-১৫৪ এবং ইহার নোট 

৬। ডাক্তারি পরামর্শের ক্ষেত্রে কর্মস্থলে যোগ্য মেডিকেল অফিসার না থাকার কারণে অন্যত্র ভ্রমণ করিলে উক্ত ভ্রমণের জন্য ভাতা প্রয়োজন ছিল মেডিকেল অফিসারের উক্তরূপ প্রত্যয়ণপত্র সাপেক্ষে ভ্রমণ ভাতা প্রাপ্য। কিন্তু প্রথম সরকারি চাকরিতে নিয়োগের ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় মেডিকেল সার্টিফিকেট সংগ্রহের উদ্দেশ্যে ভ্রমণের ক্ষেত্রে ভ্রমণ ভাতা পাইবেন না। এফ আর (এসআর)-১৫৬ ও সরকারি সিদ্ধান্ত।

৭। বাংলাদেশের অভ্যন্তরে ফরেন সার্ভিসে কর্মকালে বা ফরেন সার্ভিসে যোগদানের জন্য বা ফরেন সার্ভিস শেষে সরকারি চাকরিতে যোগদানের জন্য বদলীর ভ্রমণ ভাতা ফরেন সার্ভিসের নিয়োগকর্তাকে প্রদান করিতে হইবে। বি এস আর, পার্ট-১ এর বিধি-১০২ (২) (সি)

৮। ছুটি অনুমোদনের জন্য মেডিকেল সার্টিফিকেটের প্রয়োজন হইলে এবং উক্ত সার্টিফিকেট প্রদানের যোগ্য সরকারি মেডিকেল অফিসার অথবা মেডিকেল বোর্ড অথবা মনোনীত মেডিকেল অফিসার কর্মস্থল ভিন্ন অন্যত্র থাকিলে এবং সেই কারণে অন্যত্র ভ্রমণ করিতে হইলে, এইক্ষেত্রে ভ্রমণ ভাতা পাইবেন। তবে ছুটি বর্ধিতকরণের জন্য সার্টিফিকেট গ্রহণের ক্ষেত্রে ভ্রমণ ভাতা পাইবেন না। এফ আর (এস আর)-১৫৭ ও ১৫৭ এ ও নোট।

৯। জনস্বার্থে কর্তৃপক্ষ কোন কর্মচারীকে অক্ষমতাজণিত অবসরের আবেদন করার নির্দেশ প্রদান করিলে যদি সংশ্লিষ্ট কর্মচারীকে মেডিকেল বোর্ডের সামনে উপস্থিত হওয়ার জন্য অন্যত্র ভ্রমণ করিতে হয়, তাহা হইলে উক্ত ভ্রমনের জন্য ভ্রমণ ভাতা বিধির বিধান সাপেক্ষে প্রকৃত ব্যয়ের সমপরিমাণ ভ্রমণ ভাতা পাইবেন। উল্লেখ্য কোন কর্মচারীর স্বেচ্ছায় অক্ষমতাজণিত অবসরের আবেদন করার ক্ষেত্রে কর্তৃপক্ষ আবেদনকারীর অবস্থা বিবেচনা করিয়া সন্তোষ্ট হইলে উক্তরূপ ভ্রমণ ভাতা মঞ্জুর করিতে পারিবেন। এফ আর (এস আর)-১৬০

১০। ভ্রমণ ভাতা বিলে ভ্রমণের উদ্দেশ্যে সুষ্পষ্টভাবে উল্লেখ করিতে হইবে। “সরকারি ভ্রমণ” বা “সরকারি কাজ” বা “সরকারি কর্তব্য” এই ধরনের অস্পষ্ট উক্ত গ্রহণ যোগ্য নয়। এফ আর (এস আর)-১৯৫ এর সরকারি আদেশ।

১১। যথাযোগ্য কর্তৃপক্ষ যুক্তিযুক্ত মনে করিলে কোন সরকারি কর্মচারীর বা কোন শ্রেণীর সরকারি কর্মচারীর ভ্রমণের সংখ্যা বা ভ্রমণের মেয়াদের ব্যাপারে বিধি-নিষেধ আরোপ করিতে পারিবেন। এফ আর (এস আর)-৬৩

১২। স্থায়ী ভ্রমণ ভাতা প্রাপ্য কর্মচারী ভ্রমণ ভাতা বা দৈনিক ভাতা পাইবেন না। তবে এখতিয়ারধীন এলাকার বাহিরে কর্তৃপক্ষের অনুমোদনক্রমে ভ্রমণ করিলে ভ্রমণ ভাতা প্রাপ্য। এফ আর (এসআর)-৬৭ এবং বিএসআর পার্ট-২ এর বিধি-৬৯ ও ৭০

১৩। সদর দপ্তর হইতে পাঁচ মাইলের কম দূরত্বে ভ্রমণের জন্য দৈনিক ভাতা প্রাপ্য নয়। এফ আর (এসআর)-৭১

১৪। বাধ্যতামূল বিভাগীয় পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য ভাতা পাইবেন। তবে একই পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য দুইবারের অধিক ভ্রমণ ভাতা পাইবেন না। এফ আর (এসআর)-১৩০

১৫। ভ্রমণ ভাতা বিল নিয়ন্ত্রকারী কর্মকর্তা কর্তৃক স্বাক্ষরিত / প্রতিস্বাক্ষরিত না হইলে তাহা প্রদান করা যাইবে না। এফ আর(এসআর)-১৯২

১৬। সড়ক পথে ভ্রমণের মোট দূরত্বে যদি কিলোমিটারের ভগ্নাংশ আসে, তবে ঐ ভগ্নাংশ বাদ যাইবে। বিএসআর পার্ট-২ এর বিধি-৫২

১৭। সদর দপ্তর হইলে অনুপস্থিতির কাল ২৪ (চব্বিশ) ঘন্টার অধিক না হওয়া সত্বেও যদি যাত্রার আরম্ভ এবং যাত্রার সমাপ্তি দুইটি পৃথক পঞ্জিকা দিবসে হয়, তাহা হইলে একটি মাত্র দৈনিক ভাতা পাইবেন এবং এইক্ষেত্রে উক্ত ভাতা প্রাপ্য পথ ভাড়া ভাতা, রেল ভাড়া বা স্টীমার ভাড়ার সহিত বিনিময় করিতে পারিবেন। উল্লেখ্য যদি কোন কর্মচারী যে দিবসে যাত্রা করেন, ঐ দিবসের পরবর্তী দিবসে প্রত্যাবর্ত করে এবং একদিনের বেশী দৈনিক ভাতা দাবী করেন, তাহা হইলে বিলে যাত্রার সময় এবং প্রত্যাবর্তনের সময় উল্লেখ করিতে হইবে। বিধি-৫৮ ও ইহার নোট।

১৮। প্রথম শ্রেণীভূক্ত কর্মচারী অপেক্ষা নিম্ন শ্রেণীভূক্ত কোন কর্মচারী উধ্বর্তন কর্তৃপক্ষের বিশেষ আদেশের প্রেক্ষিতে প্রাপ্য নয় এমণ কোন বিশেষ যানবাহনের ভ্রমণ করিলে এবং ইহার ব্যয় সাধারণ বিধি মোতাবেক তাঁহার প্রাপ্য দৈনিক ভাতা ও পথভাড়া ভাতার অধিক হইলে, তিনি উক্ত প্রাপ্য দৈনিক ভাতা বা পথভাড়া ভাতার পরিবর্তে প্রকৃত ব্যয় পাইবেন। প্রকৃত ব্যয়ের উক্ত বিলে উধ্বর্তন কর্তৃপক্ষ স্বাক্ষরিত ও নিয়ন্ত্রণকারী কর্মকর্তা কর্তৃক প্রতিস্বাক্ষরিত এই মর্মে প্রত্যয়ণপত্র সংযুক্ত করিতে হইবে যে, এই বিশেষ যান ব্যবহার প্রকৃতপক্ষে প্রয়োজনীয় ছিল এবং এই প্রয়োজনীয়তার অবস্থা বর্ণনা করিতে হইবে। উল্লেখ্য যে, এলাকার ভ্রমণ ব্যয়বহুল, উক্ত এলাকায় এই বিধি ক্ষমতা প্রয়োগ করা যাইবে না। আরো উল্লেখ্য বন বিভাগের অধ:স্তন কর্মচারীদের ক্ষেত্রে এই বিধির উদ্দেশ্যে নৌকা বিশেষ যান হিসাবে গণ্য হইবে। বিধি-৬১ ও ইহার নোট

১৯। অবকাশ বিভাগের কর্মচারীর অবকাশের সহিত ভ্রমণ সংযুক্ত করার ক্ষেত্রে, অর্থাৎ ভ্রমণে গিয়া কর্মস্থলে প্রত্যাবর্তন না করিয়া অবকাশে গেলে, শুধু যাত্রার জন্য ভ্রমণ ভাতা পাইবে। বিধি-৭ ও ইহার নোট। 

২০। এসআর-৩০ (বিএসআর-৩২ নং) আইনের বিধান মোতাবেক সরকারি কর্মচারীগণকে হ্রাসতম পথে এবং স্বল্পতম খরচে ভ্রমণ করার বিধান করা হইয়াছে। তবে বিশেষ কারণে উক্ত বিধান অনুসরণ না করিয়অ অণ্য পথে ভ্রমণ করা হইলে উপযুক্ত কর্তৃপক্ষের /বিভাগীয় প্রধানগণের অনুমতি সাপেক্ষে হ্রাসতম পথ ও স্বল্পতম ব্যয় ব্যতীতও অন্যভাবে ভ্রমণ করার জন্য মাইলেজ এলাউন্স প্রদান করার জন্য এস আর-৩১ (বিএসআর-৩২ নং আইনের দ্বিতীয় প্রভিসোতে) প্রয়োজনীয় বিধান করা হইয়াছে। কিন্তু যে কারণে উপরোক্ত ভাবে পথ ভাড়া ভাতা দেওয়া হইবে, তাহা লিপিবদ্ধ করিতে হইবে। বিষয়টি পর্যালোচনা করত: এই মর্মে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয় যে, ভ্রমণ ভাতার বিলে প্রতিস্বাক্ষর দ্বারা উপরোক্ত আইনের বিধান প্রতিপালিত হয় না বিধায় সংশ্লিষ্ট উপযুক্ত কর্তৃপক্ষ / বিভাগীয় প্রধানগণের পূর্বানুমতি / অনুমোদন গ্রহণ এবং ভ্রমণ ভাতা বিলের সহিত উহা দাখিল করা প্রয়োজন। ভ্রমণ ভাতা বিল পরীক্ষাকালে উপরোক্ত বিষয়ের প্রতি দৃষ্টি প্রদানের জন্য সংশ্লিষ্ট অফিস প্রধানগণকে পরামর্শ দেওয়া যাইতেছে। (মহাহিসাব নিরীক্ষক ও নিয়ন্ত্রকের কার্যালয়ের স্মারক নং অ:আ: নং সি, এ,জি/প্রো:-১/৮৫(ক)/৮২৪, তারিখ: ২৩ নভেম্বর, ১৯৮৭)। 

 

ভ্রমণ ভাতা নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ ২০টি বিধি-বিধান সংক্রান্ত PDF টি সংগ্রহে রাখতে পারেন: ডাউনলোড

admin

আমার ব্লগের কোন কন্টেন্ট সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে বা জানাতে ইমেইল করতে পারেন admin@bdservicerules.info ঠিকানায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.