ঠিকাদারী enlisted এ সর্বশেষ আয়কর রিটার্ণের প্রাপ্তিস্বীকার পত্র।

বিদ্যমান ব্যবস্থাতে (আয়কর আইন) যেহেতু রিটার্ণ দাখিল না করার কারণে E-TIN  প্রত্যাহারের সুযোগ নেই অথবা স্বয়ংক্রিয় সনদপত্র প্রদান বারিত নয় সেহেতু অসাধু E-TIN ধারীর জন্য রিটার্ণ দাখিল না করে আয় গোপন ও কর পরিহারের সুযোগ থেকে যাচ্ছে। এক্ষেত্রে E-TIN সনদপত্রের পাশাপাশি দরপত্রে অংশগ্রহণকারী ঠিকাদারী তালিকাভূক্তি সমেত উল্লিখ সকলক্ষেত্রে সর্বশেষ করবর্ষের জমা দেওয়া আয়কর রিটার্ণের প্রাপ্তিস্বীকার পত্র দাখিলের বাধ্যবাধকতা মন্ত্রণালয়/ বিভাগ/ অধিদপ্তর এর নীতিমালায় অন্তর্ভূক্ত করলে TAX NET এবং TAX Complaince বৃদ্ধি পাবে।

সিনিয়র সচিব

অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগ

ও চেয়ারম্যান

জাতীয় রাজস্ব বোর্ড, ঢাকা।

সরকারি পত্র নম্বর: ০৮.০১.০০০০.০৩৮.০৫.০১০.২০২১.৩৬৯; তারিখ: ২৫/০৩/২০২১

শুভেচ্ছা নিবেন। আপনি নিশ্চয়ই অবগত আছেন, রূপকল্প ২০৪১ বাস্তবায়নে সরকারের চলমান উন্নয়ন কর্মকান্ডের ধারা নিরবিচ্ছিন্নভাবে অব্যাহত রাখতে অভ্যন্তরীণ উৎস হতে রাজস্ব আহরণের উপর অধিকতর গুরুত্ব আরোপ করা হচ্ছে। রাজস্ব আহরণের অন্যতম প্রধান উৎস হলো আয়কর, চলতি বছরে কেবলমাত্র আয়কর খাত থেকে রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ৯৭ হাজার কোটি টাকা। এ বিপুল লক্ষমাত্রা অর্জনে অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগ ও জাতয়ি রাজস্ব বোর্ড আপনার সক্রিয় সহযোগিতা কামনা করছে।

০২। এ প্রচেষ্টার অংশ হিসাবে আয়কর রিটার্ণ দাখিল ও উৎসে কর কর্তন কার্যক্রম বেগবান করার লক্ষ্যে গত ১৫. ০৩. ২০২১ তারিখ অভ্যন্তরীন সম্পদ বিভাগের সম্মেলন কক্ষে  রাজস্ব আদায় কার্যক্রমে গুরুত্বপূর্ণ দশটি (১০) মন্ত্রণালয় ও জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের প্রতিনিধিগণের সাথে আন্ত: মন্ত্রণালয় সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভার আলোচনা হতে প্রতীয়মান হয় বর্তমানে কোন পন্য সরবরাহ চুক্তি সম্পাদন বা সেবা প্রদানের লক্ষ্যে দরপত্র (Tender) দাখিলের ক্ষেত্রে E-TIN সার্টিফিকেট দাখিলের বাধ্যবাধকতা রয়েছে। অনুরূপভাবে ট্রেড লাইসেন্স নবায়ন/ মোটরযান রেজিস্ট্রেশন/ নবায়ন/ নৌযান রেজিস্ট্রেশন/ নবায়ন/ IRG/ERC ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের তালিকাভূক্তি ও নবায়ন ইত্যাদি ক্ষেত্রে E-TIN সনদপত্র গ্রহণের বাধ্যবাধকতা রয়েছে। এক্ষেত্রে লক্ষণীয় যে, একজন E-TIn ধারী ব্যক্তি / প্রতিষ্ঠান স্বয়ংক্রিয় প্রক্রিয়ায় (Automated) ETIN সনদপত্র গ্রহণ করে ট্রেড লাইসেন্স নবায়ন/ মোটরযান, নৌযান নবায়ন/ ঠিকাদারী সরবরাহকারী হিসেবে তালিকাভূক্তি, iRC/ ERC প্রাপ্তি ইত্যাদি সুবিধা গ্রহন করতে সক্ষম হচ্ছেন। কিন্তু এরূপ E-TIN ধারার একটি উল্লেখযোগ্য অংশ আয়কর রিটার্ণ দাখিল হতে বিরত থাকছেন। যেমন একজন মোটরযান মালিক রিটার্ণ দাখিল না করেই E-TIN সনদপত্র দাখিল পূর্বক তার মোটরযান নবায়নের সক্ষম হচ্ছেন। বিদ্যমান ব্যবস্থাতে (আয়কর আইন) যেহেতু রিটার্ণ দাখিল না করার কারণে E-TIN  প্রত্যাহারের সুযোগ নেই অথবা স্বয়ংক্রিয় সনদপত্র প্রদান বারিত নয় সেহেতু অসাধু E-TIN ধারীর জন্য রিটার্ণ দাখিল না করে আয় গোপন ও কর পরিহারের সুযোগ থেকে যাচ্ছে। এক্ষেত্রে E-TIN সনদপত্রের পাশাপাশি দরপত্রে অংশগ্রহণকারী ঠিকাদারী তালিকাভূক্তি সমেত উল্লিখ সকলক্ষেত্রে সর্বশেষ করবর্ষের জমা দেওয়া আয়কর রিটার্ণের প্রাপ্তিস্বীকার পত্র দাখিলের বাধ্যবাধকতা মন্ত্রণালয়/ বিভাগ/ অধিদপ্তর এর নীতিমালায় অন্তর্ভূক্ত করলে TAX NET এবং TAX Complaince বৃদ্ধি পাবে।

০৩। এই প্রেক্ষাপটে মন্ত্রণালয় এবং অধীনস্ত দপ্তরসমূহের ক্রয়/ তালিকাভূক্তি/ নিবন্ধন/ সনদপত্র প্রদান ইত্যাদি সংক্রান্ত নীতিমালাতে E-TIn সনদপত্রের পাশাপাশি সর্বশেষ অর্থবর্ষের আয়কর রিটার্ণের প্রাপ্তি স্বীকার পত্র (Aknowledgement Slip) দাখিল বাধ্যতামূলক করার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য অনুরোধ করছি।

সরকারের রাজস্ব আহরণ কার্যক্রমে আপনার একান্ত সহযোগিতা কামনা করছি।

(আবু হেনা মো: রহমাতুল মুনিম)

সিনিয়র সচিব, অভ্যন্তরীন সম্পদ বিভাগ

ও চেয়ারম্যান, জাতীয় রাজস্ব বোর্ড, ঢাকা।

যানবাহন নবায়ন ও ঠিকাদারী তালিকাভূক্তিতে সর্বশেষ আয়কর রিটার্ণের প্রাপ্তিস্বীকার পত্র অবশ্যক এ সংক্রান্ত পত্র: ডাউনলোড

admin

এই ব্লগের কোন পোস্ট নিয়ে বিস্তারিত জানতে বা কোন তথ্য যুক্ত করতে বা সংশোধন করতে চাইলে অথবা কোন আদেশ, গেজেট পেতে এই admin@bdservicerules.info ঠিকানায় মেইল করতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.