যে সময়ে চাঁদা কর্তন করা বা না করা ইচ্ছাধীন।

একজন সরকারি কর্মচারী ছুটিতে থাকা কালীন সময় বা নিজ বয়স ৫২ বছর পূর্ণ হলে জিপিএফ এ কর্তন করা তার একান্ত ইচ্ছাধীন এক্ষেত্রে নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষ বা নিয়ন্ত্রণকারী কর্তৃপক্ষ বাধ্য করতে পারবে না।

চাঁদা প্রদানের শর্তাবলী:

প্রতি মাসে চাঁদা প্রদান করতে হবে। ফরেন সার্ভিসে বদলী হলে বা প্রেষণে নিয়োজিত হলেও চাঁদা কর্তন করতে হবে। তবে সাময়িকভাবে বরখাস্ত কালে চাঁদা প্রদান করতে হবে না। সাময়িক বরখাস্তের পর পূর্নবহাল হলে সাময়িক বরখাস্তকালীন সময়, ছুটিকালীন সময় এবং বয়স ৫২ বৎসর পূর্ণ হলে চাঁদা প্রদান করা বা না করা ইচ্ছাধীন। (বিধি-৮ ও ১০, জিপিএফ বিধিমালা-১৯৭৯)

চাঁদা, অগ্রিমের কিস্তি ও সুদ জমাদান পদ্ধতি:

সরকারি হিসাব রকষণ অফিস ও বিদেশস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস হতে বেতন গ্রহণ করার ক্ষেত্রে চাঁদা, অগ্রিমের কিস্তি ও উহার সুদ বেতন হতে কর্তনের মাধ্যমে জমা করতে হবে। ট্রেজারী চালানের মাধ্যমে জমা করা যাবে না। তবে প্রেষণে বা লিয়েনে কোন সংস্থায় কর্মরত থাকাকালে উহা ট্রেজারী চালানের মাধ্যমে জমা করা যাবে। (বিধি-১১, জিপিএফ বিধিমালা, ১৯৭৯, নং-সিএজি/আর আর ইউ/২৩৯/১৫৪১ তারিখ: ১-৮-২০০০ ইং)

Avatar

admin

আমার ব্লগের কোন কন্টেন্ট সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে বা জানাতে ইমেইল করতে পারেন admin@bdservicerules.info ঠিকানায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.