রাজস্ব বাজেট ও উন্নয়ন বাজেটের মধ্যে মৌলিক পার্থক্য ২০২২

জেনারেল ফাইনানসিয়াল রুলস্-এর পঞ্চম অধ্যায়ে রাজস্ব বাজেট ও উন্নয়ন বাজেট সম্বন্ধে বর্ণনা দেওয়া আছে। ইহা ব্যতীত গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সংবিধানের ৮৭(১) অনুচ্ছেদ অনুযায়ী প্রত্যেক অর্থ-বৎসর সম্পর্কে উক্ত বৎসরের জন্য সরকারের অনুমিত আয় ও ব্যয় সংবলিত একটি বিবৃতি (এই ভাগে বার্ষিক আর্থিক বিবৃতি নামে অভিহিত) সংসদে উপস্থাপিত হইবে। ইহাই বাজেট নামে পরিচিত। 

এই রাজস্ব বাজেটকে ৪ (চার) টি প্রধান অংশে ভাগ করা যায়। যথা

(১) কর্মকর্তাগণের বেতন;

(২) কর্মচারীগণের বেতন;

(৩) ভাতা ও সম্মানী; এবং

(৪) বিবিধ।

পক্ষান্তরে বার্ষিক উন্নয়ন বাজেটে অর্থ মন্ত্রণালয় ও পরিকল্পনা বিভাগের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট উন্নয়ন প্রকল্প সম্পর্কিত।

বাজেট বরাদ্দের উপযোজন ও পুনঃ উপযােজন বলতে কি বুঝায়? 

উপযােজন : জেনারেল ফাইনানসিয়াল রুলস্ এর রুল ২(ii) অনুযায়ী নির্ধারিত কর্তৃপক্ষের কর্তৃত্বধীনে নির্দিষ্টকৃত ব্যয় নির্বাহের বরাদ্দ দানকে বাজেট বরাদ্দের উপযােজন বলা হয়। ইহাতে বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ে এবং অধস্তন দপ্তরের চড়ান্ত মঞ্জুরী ও ব্যয়ের মধ্যে তুলনা করিয়া কোন পার্থক্য থাকিলে তাহার ব্যাখ্যা প্রদান করা। হয়। একই নীতি যে সব আর্থিক অনিয়ন উপযােজন হিসাব বা এতদসংক্রান্ত রিপাের্টে অন্তর্ভুক্তির জন্য প্রস্তাব করা হয় সেক্ষেত্রেও প্রযােজ্য।

পুন: উপযােজন: জেনারেল ফাইনানসিয়াল রুলস এর রুল ২(xx) অনুযায়ী পুন: উপযােজন বলিতে উপযােজনের এক ইউনিট হইতে অন্য ইউনিটে তহবিল স্থানান্তরকে বুঝায়। যখন অবগত হওয়া যায় যে কোন ইউনিটে যে পরিমাণ অর্থ উপযযাজন করা হইয়াছে তাহা ঐ ইউনিটে ব্যয় হইবে না কেবল তখনই উপযুক্ত কর্তৃপক্ষের আনুষ্ঠানিক আদেশ মােতাবেক ইহা মঞ্জুর করা যায়। পুন: উপযােজন নির্দিষ্ট/সংশিষ্ট অর্থ বৎসরের মধ্যেই সম্পন্ন করিতে হইবে।

admin

আমি একজন সরকারী চাকরিজীবি। দীর্ঘ ৮ বছর যাবৎ চাকুরির সুবাদে সরকারি চাকরি বিধি বিধান নিয়ে পড়াশুনা করছি। বিএসআর ব্লগে সরকারি আদেশ, গেজেট, প্রজ্ঞাপন ও পরিপত্র পোস্ট করা হয়। এ ব্লগের কোন পোস্ট নিয়ে বিস্তারিত জানতে admin@bdservicerules.info ঠিকানায় মেইল করতে পারেন।

admin has 2981 posts and counting. See all posts by admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *