শতভাগ পেনশন সমর্পণকারী গেজেট ২০১৮

শতভাগ পেনশন সমর্পণকারী অবসর প্রাপ্ত সরকারি কর্মচারীগণের অবসর গ্রহণের তারিখ হতে ১৫ বছর সময় অতিক্রান্তের পর তাদের পেনশন পুন:স্থাপন করা হবে।

কর্মচারীর এলপিসি/ পিআরএল যে তারিখে শেষ হয়েছে তার পরদিন হতে উক্ত ১৫ বছর সময় গণনা করা হবে। আর যিনি এলপিআর/পিআরএল ভোগ করেননি তার ক্ষেত্রে অবসর গ্রহণের তারিখ উক্ত ১৫ বছর সময় গণনাযোগ্য হবে।

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার

অর্থ মন্ত্রণালয়, অর্থ বিভাগ

প্রবিধি অনুবিভাগ

প্রবিধি-১ অধিশাখা

নং-০৭.০০.০০০০.১৭১.১৩.০১৩.১৪-১১৮; তারিখ: ০৮ অক্টোবর ২০১৮

প্রজ্ঞাপন

সরকার শতভাগ পেনশন সমর্পণকারী প্রজাতন্ত্রের অবসরপ্রাপ্ত কর্মচারীদের আর্থিক ও সামাজিক সুরক্ষা নিশ্চিত করণার্থে তাদের মাসিক পেনশন পুন:স্থাপনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে যা নিম্নরূপ বিধানাবলী সাপেক্ষে কার্যকর হবে:

ক) শতভাগ পেনশন সমর্পণকারী অবসর প্রাপ্ত সরকারি কর্মচারীগণের অবসর গ্রহণের তারিখ হতে ১৫ বছর সময় অতিক্রান্তের পর তাদের পেনশন পুন:স্থাপন করা হবে। কর্মচারীর এলপিসি/ পিআরএল যে তারিখে শেষ হয়েছে তার পরদিন হতে উক্ত ১৫ বছর সময় গণনা করা হবে। আর যিনি এলপিআর/পিআরএল ভোগ করেননি তার ক্ষেত্রে অবসর গ্রহণের তারিখ উক্ত ১৫ বছর সময় গণনাযোগ্য হবে;

খ) যে পদ্ধতি ও নিয়মে নিয়মিত পেনশনারগণের মাসিক পেনশন নির্ধারিত হয় অনুরূপ পদ্ধতি ও নিয়মে শতভাগ পেনশনসমর্পণকারী অবসর প্রাপ্ত সরকারি কর্মচারীগণের মাসিক পেনশন নির্ধারিত হবে;

উদাহরণ; ধরা যাক সংশ্লিষ্ট কর্মচারীর এলপিআর শেষ হয়েছে ২০০২ সালের ৩০ শে জুন। তাঁর অবসরের পর হতে ১৫ বছর সময় অতিক্রান্ত হয়েছে ২০১৭ সালের ১ লা জুলাই। উক্ত কর্মচারী যদি ১ নং গ্রেডভুক্ত হন তাহলে জাতীয় বেতনস্কেল, ১৯৯৭ অনুযায়ী তাঁর বেতন ১৫,০০০ টাকা (নির্ধারিত) হওয়ায় তাঁর মাসিক নীট পেনমনের পরিমাণ হবে (১৫০০০*৮০%)/২ = ৬০০০ টাকা। জাতীয় বেতন স্কেল ২০০৫ অনুযায়ী মাসিক ১০০১ টাকা হতে অনুর্ধ্ব পরিমাণ নীট পেনশন গ্রহণকারীর মাসিক পেনশন ২৫% হারে বৃদ্ধি হওয়ায় তাঁর মাসিক নীট পেনশন হবে ৬০০০+(৬০০০*২৫%) = ৭৫০০ টাকা। আবার জাতীয় বেতন স্কেল , ২০০৯ অনুযায়ী ৬৫ বছর উর্ধ্ব বয়সের পেনশনভোগীর নীট পেনশনের পরিমাণ ৫০% বৃদ্ধি হওয়ায় তার মাসিক নীট পেনশন হবে ৭৫০০+(৭৫০০*৫০%) = ১১২৫০ টাকা। জাতীয় বেতনস্কেল, ২০১৫ অনুযায়ী ৬৫ বছর উর্ধ্ব বয়সের অবসরভোগীর নীট পেনশনের পরিমাণ ৫০% বৃদ্ধি হওয়ায় ০১-০৭-২০১৭ তারিখে তার মাসিক পেনশন হবে ১১২৫০+(১১২৫০*৫০%) = ১৬৮৭৫ টাকা। সুতরাং ২০০২ সালের ৩০ শে জুন বা তার পূর্বে এলপিআর শেষ হয়েছে ১ নং গ্রেডের এমন শতভাগ পেনশন সমর্পণকারী অবসরপ্রাপ্ত কর্মচারীর ০১-০৭-২০১৭ তারিখে মাসিক নীট পেনশন হবে ১৬৮৭৫ টাকা।

গ) নিয়মিত পেনশনারগণের ন্যায় শতভাগ পেনশন সমর্পণকারী অবসরভোগীগণের ন্যূনতম মাসিক পেনশন হবে ৩০০০ টাকা।

ঘ) শতভাগ পেনশন সমর্পণকারী অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মচারীর ০১-০৭-২০১৭ তারিখে বা তার পরবর্তী সময়ে (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে) যে পেনশন নির্ধারিত হবে তার উপর প্রতিবছর ১ জুলাই তারিখে ৫% হারে বার্ষিক ইনক্রিমেন্ট প্রদেয় হবে।

উদাহরণ: উপরের উদাহরণের ১ নং গ্রেডের কর্মচারী ০১-০৭-২০১৭ তারিখে মাসিক নীট পেনশনের পরিমাণ ১৬,৮৭৫ টাকা। ১ জুলাই তারিখে ৫% হারে বার্ষিক ইনক্রিমেন্ট প্রদেয় হওয়ায় ০১-০৭-২০১৮ তারিখে তারঁর মাসিক নীট পেনশন হবে ১৬৮৭৫+(১৬৮৭৫*৫%) = ১৭৭১৮.৭৫ টাকা।

২। পেনশন পুন:স্থাপনের উক্ত সুবিধা ০১-০৭-২০১৭ তারিখ থেকে কার্যকর হবে। তবে ০১-০৭-২০১৭ তারিখের পূর্বের কোন আর্থিক সুবিধা প্রদেয় হবে না।

রাষ্ট্রপতির আদেশ ক্রমে

(মো: শাহজাহান)

অতিরিক্ত সচিব

ফোন ৯৫৭৩৭৭০

শতভাগ পেনশন সমর্পণকারী গেজেট ২০১৮ : ডাউনলোড

admin

এই ব্লগের কোন পোস্ট নিয়ে বিস্তারিত জানতে বা কোন তথ্য যুক্ত করতে বা সংশোধন করতে চাইলে অথবা কোন আদেশ, গেজেট পেতে এই admin@bdservicerules.info ঠিকানায় মেইল করতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.