কোন গণকর্মচারী একটি নির্দিষ্ট মেয়াদ পর্যন্ত চাকরি করার পর নিজের ইচ্ছানুযায়ী অবসরগ্রহণের অধিকার প্রাপ্ত হইয়া গণ কর্মচারী (অবসর) আইন, ১৯৭৪ এর ৯ ধারা (১) উপ-ধারার অধীনে অবসরগ্রহণ করিলে উক্ত অবসরগ্রহণকে স্বেচ্ছায় অবসর বলে। 

স্বেচ্ছায় অবসর সংক্রান্ত বিধানাবলী নিম্নরূপ

১। গণকর্মচারী (অবসর আইন, ১৯৭৪ এর ৯ ধারার (১) উপ-ধারার বিধান অনুযায়ী কোন গণকর্মচারী তাঁহার চাকরির মেয়াদ ২৫ বছর পূর্ণ হওয়ার পর যে কোন সময় নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষের বরাবরে কমপক্ষে ত্রিশ দিনের লিখিত নোটিশ প্রদানপূর্বক চাকরি হইতে অবসর গ্রহণ করিতে পারিবেন।

উল্লেখ্য, স্বেচ্ছায় অবসরের অপসন একবার প্রয়োগ করা হইলে তাহা চূড়ান্ত হিসাবে গণ্য হইবে এবং তাহা পরিবর্তন বা প্রত্যাহারের অনুমতি দেওয়া যাইবে না।

২। গণকর্মচারী (অবসর) বিধিমালা, ১৯৭৫ এর বিধি -৯ এর বিধান মতে কোন গণকর্মচারী অবসর আইনের ৯ ধারার (১) উপ-ধারার অধীনে অবসরগ্রহণের অপসন গ্রহণ করার ক্ষেত্রে ছুটি পাওনা সাপেক্ষে নিম্নোক্ত শর্তে অবসর উত্তর ছুটি ভোগ করিতে পারিবেন-

(এ) যে তারিখ হইতে অবসর উত্তর ছুটিতে যাওয়ার ইচ্ছা ব্যক্ত করেন, উক্ত তারিখের কমপক্ষে ৩০ দিন পূর্বে অবসরগ্রহণের আবেদন করিতে হইবে;

(বি) যে তারিখ হইতে অবসর উত্তর ছুটিতে যাওয়ার ইচ্ছা করেন, উক্ত তারিখ আবেদন পত্রে উল্লেখ করিতে হইবে;

(সি) ছুটির মেয়াদ আবেদনপত্রে উল্লেখ করিতে হইবে; এবং

(ডি) ছুটি প্রাপ্যতার সনদ যুক্ত করিতে হইবে।

৩। মোট চাকরিকাল ২৫ বৎসর পূর্ণ হইলেই স্বেচ্ছায় অবসরের অপসন গ্রহণ করা যাইবে। তবে পেনশন প্রাপ্য হইবে পেনশনযোগ্য চাকরিকালের ভিত্তিতে। (স্মারক নং MF/RU-2(13)/76/25, তারিখ: ২ মার্চ, ১৯৭৭)

৪। চাকরিরর ২৫ বৎসর পূর্ণ হওয়ার পর কোন গণকর্মচারী যে কোন সময় অবসরগ্রহণের অভিপ্রায়কৃত তারিখের কমপক্ষে ত্রিশ দিন পূর্বে নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষের নিকট স্বেচ্ছায় অবসরের প্রতিবন্ধকতাবিহীন অধিকার (Unfettered right) থাকে। এইক্ষেত্রে কর্তৃপক্ষ উক্ত অপসন গ্রহণ করিতে বাধ্য এবং উক্ত অপসন প্রত্যাখ্যানের কোন আইনগত সুযোগ নাই। (স্মারক নং ED(R-VII)IR-6/80-63, তারিখ: ৯ অক্টোবর, ১৯৮০)

(৫) অবসর গ্রহণের নোটিশ প্রদানের উদ্দেশ্য হইল নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষকে নোটিশ সময়ের মধ্যে একজন প্রতিস্থাপক কর্মকর্তার ব্যবস্থাকরণের জন্য একটি যুক্তিসংগত সময় দেওয়া। কোন কর্মচরী ছুটিতে থাকা অবস্থায় নোটিশ প্রদান করিলেও উক্ত উদ্দেশ্য সাধিত হয় বিধায় গনকর্মচারী (অবসর) আইনের ৯ ধারার (১) উপ-ধারার অধীন নোটিশ প্রদানের বাধ্যবাধকতা পূরণ হইয়াছে বলিয়া গণ্য হইবে। (স্মারক নং ED)R.VII)IR-11/81-62, তারিখ: ১২ নভেম্বর, ১৯৮১)।

স্বেচ্ছায় অবসর : ডাউনলোড

বি:দ্র: সুস্থ্য থাকা অবস্থায় কোনভাবেই ২৫ বছরের পূর্বে স্বেচ্ছায় চাকরি ছাড়লে কোন পেনশন সুবিধা পাওয়া যাবে না। অর্থাৎ যদি কেউ ২০ বছরে স্বেচ্ছায় চাকরি ছাড়তে চায় সক্ষমতা থাকলেও তবে তিনি পেনশন প্রাপ্য হবেন না। মোট কথা অসুস্থ্য বা চাকরি করতে অক্ষম হলে স্বেচ্ছায় চাকরি ছাড়া যাবে কিন্তু সক্ষম থাকাকালে ২৫ বছর পূর্ণ হওয়ার আছে চাকরি ছাড়লে পেনশন পাবেন না।

স্বেচ্ছায় সরকারী চাকুরী হতে অবসর গ্রহনের আবেদন পত্রের নমুনা।

admin

আমি একজন সরকারী চাকরিজীবি। দীর্ঘ ৮ বছর যাবৎ চাকুরির সুবাদে সরকারি চাকরি বিধি বিধান নিয়ে পড়াশুনা করছি। বিএসআর ব্লগে সরকারি আদেশ, গেজেট, প্রজ্ঞাপন ও পরিপত্র পোস্ট করা হয়। এ ব্লগের কোন পোস্ট নিয়ে বিস্তারিত জানতে admin@bdservicerules.info ঠিকানায় মেইল করতে পারেন।

admin has 2959 posts and counting. See all posts by admin

2 thoughts on “স্বেচ্ছায় অবসর

  • আদাব, আশা করি সুস্থ আছেন।
    সরকারি চাকুরি বিধি সংক্রান্ত একটি প্রশ্ন ছিল – চাকুরী কাল ২৫ বছর পূর্ণ হবার পূর্বে পেনশন না নিয়ে সরকারি চাকুরি হতে স্বেচ্ছা অবসরের সুযোগ আছে কি? যদি থাকে তাহলে পদ্ধতি সম্পর্কে জানার উপায় কি?
    অগ্রীম ধন্যবাদ।

  • অবশ্যই আছে। শুধু একটি ইস্তফাপত্র দাখিল করবেন। পারিবারিক কারণ উল্লেখ করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *