১৩-২০ গ্রেডের কর্মচারী নিয়োগের পদ্ধতি ও পুল সৃষ্টিতে কমিটি গঠন!

বাংলাদেশ কর্ম কমিশন (পিএসসি) এর মাধ্য ৩য় ও ৪র্থ শ্রেণীল কর্মচারী নিয়োগের প্রস্তাব ইতোপূর্বেই দেয়া হয়েছে। আজ বেতন গ্রেড ১৩-২০ পর্যন্ত পদে সরকারি কর্মচারী নিয়োগের কর্তৃপক্ষ ও পদ্ধতি নির্ধারণ সংক্রান্ত প্রস্তাবটি পরীক্ষা-নিরীক্ষাপূর্বক সুপারিশ প্রণয়নের লক্ষ্যে নিম্নরূপ কমিটি গঠন করা হয়েছে:

কমিটিতে যারা আছেন:

১। অতিরিক্ত সচিব, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়-আহবায়ক

২। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের যুগ্নসচিব পর্যায়ের একজন কর্মকর্তা-সদস্য

৩। অর্থ বিভাগের যুগ্নসচিব পর্যায়েল একজন কর্মকর্তা-সদস্য

৪। লেজিসলেটিভ ও সংসদ বিষয়ক বিভাগের যুগ্নসচিব পর্যায়ের একজন কর্মকর্তা-সদস্য

৫। বাংলাদেশ সরকারী কর্ম কমিশন সচিবালয়ের যুগ্নসচিব পর্যায়ের একজন কর্মকর্তা-সদস্য

৬। সওব্য অনুবিভাগ, জনপ্রশপাসন মন্ত্রণালয়ের যুগ্নসচিব পর্যায়ের একজন কর্মকর্তা-সদস্য

৭। যুগ্নসচিব (বিধি-১), জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়-সদস্য

৮। উপসচিব (বিধি-১), জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়-সদস্য সচিব।

 

কমিটি যে সকল কাজ করবেন:

১। বেতন গ্রেড ১৩-২০ পর্যন্ত পদে সরকারি কর্মচারী নিয়োগের কর্তৃপক্ষ ও পদ্ধতি নির্ধারণ।

২। বেষ্টনী নিয়োগবিধি প্রণয়ন-এর আইনগত ও প্রয়োগিক বিষয়সমূহ পরীক্ষা-নিরীক্ষা।

৩। বাৎসরিক ভিত্তিতে একটি সমন্বিত পরীক্ষা গ্রহণ করে ৩য় ও ৪র্থ শ্রেণীর কর্মচারী নিয়োগের লক্ষ্যে পদ ভিত্তিক একটি পুল গঠনের বিষয়টির প্রয়োগিক সম্ভাব্যতা যাচাই-বাছাই।

৪। বিভাগীয় ও জেলা পর্যায়ের অফিস সমূহের ১৩-২০ গ্রেডের কর্মচারী নিয়োগ কার্যক্রম কমিশনের আওতাভূক্ত করা হলে কোন সমস্যা সৃষ্টি হবে কিনা, তার সম্ভাব্যতা যাচাই।

 

কমিটির প্রয়োজনে যে কোন সদস্য কো-অপ্ট করতে পারবে। কমিটি আগামী ৩ মাসের মধ্যে সরকারের নিকট প্রতিবেদন দাখিল করবে।

বেতন গ্রেড ১৩-২০ পর্যন্ত পদে সরকারি কর্মচারী নিয়োগের কর্তৃপক্ষ ও পদ্ধতি নির্ধারণসংক্রান্ত প্রস্তাবটি পরীক্ষা-নিরীক্ষাপূর্বক সুপারিশ প্রণয়নের লক্ষ্যে নিম্নরূপ কমিটি গঠন করা হয়েছে এ সংক্রান্ত পত্রটি দেখে নিতে পারেন: ডাউনলোড

admin

আমার ব্লগের কোন কন্টেন্ট সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে বা জানাতে ইমেইল করতে পারেন admin@bdservicerules.info ঠিকানায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.