অনলাইনে আবেদনের মাধ্যমে বার্ষিক ৩,০০০ থেকে ৬,০০০ টাকা পর্যন্ত শিক্ষা বৃত্তি নিয়ে নিন।

প্রজাতন্ত্রের ১১-২০ গ্রেডের কর্মরত সরকারি কর্মচারিদের সন্তানদের সু-শিক্ষায় শিক্ষিত করে গড়ে তোলার জন্য সরকার কর্তৃক প্রদত্ত অনুদান থেকে বছরে একবার নির্দিষ্ট হারে অনধিক দু’সন্তানকে ৬ষ্ঠ শ্রেণি থেকে সর্বোচ্চ পর্যায়ে (মাষ্টার্স/ইঞ্জিনিয়ারিং/মেডিকেলে) অধ্যয়নের জন্য শিক্ষাবৃত্তি প্রদান করা হয়।

কারা শিক্ষা বৃত্তি / সহায়তার জন্য আবেদন করতে পারবেন:

  • ১১-২০ গ্রেড ভুক্ত সরকারি কর্মচারীগণ।
  • ৫ম শ্রেণী হতে ষষ্ঠ শ্রেণীতে উত্তীর্ণ হলো এমন শিক্ষার্থীর জন্য
  • ৬ষ্ঠ থেকে মাস্টার্স/সমমানে পড়াশুনা করে যাদের সন্তান।

কেন এবং কখন দেওয়া হয় এ বৃত্তি: 

  • শিক্ষাবৃত্তি প্রদানের জন্য বহুল প্রচলিত জাতীয় দৈনিক পত্রিকায় ও অনলাইনে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়।
  • আবেদন সাধারণত বছরের শুরুর দিকে করতে হবে।
  • ভাল ফলাফল অর্জনকারীদেরকে উৎসাহিত করার জন্য দু’টি ক্যাটাগরিতে শিক্ষাবৃত্তি প্রদানের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।
  • যে সকল ছাত্রছাত্রী প্রত্যেক বিষয়ে উত্তীর্ণ হয়ে গড়ে ৮০% ও এর অধিক নম্বর পেয়েছে
  • প্রত্যেক বিষয়ে উত্তীর্ণ হয়ে গড়ে ৫০% হতে ৭৯% নম্বর পেয়েছে।

যেভাবে আবেদন করবেন এ শিক্ষা বৃত্তির জন্য:

  • অনলাইনে আবেদন ফরমটি পূরণ করে সাবমিট করে প্রিন্ট করে নিতে হবে।
  • যথাস্থানে স্বাক্ষর, অফিস প্রধান দ্বারা প্রত্যায়িত করে নিতে হবে।
  • শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রদত্ত মার্কশীট ও আবেদন সত্যায়ন করতে হবে।
  • মার্কশীট ও আবেদনপত্র স্ক্যান করে সাবমিট করতে হবে।

শিক্ষা বৃত্তি বা সহায়তা কখন পাওয়া যাবে এবং কিভাবে:

  • সাধারণত আবেদনে ব্যাংক হিসাব তথ্য দিতে হয়।
  • বছরের শেষের দিকে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ব্যাংক হিসাব জমা হবে।
অলাইনে আবেদন করতে লিংক এ ক্লিক করুন: আবেদন করতে ক্লিক করুন
Avatar

admin

আমি একজন সরকারি চাকরিজীবী। ভালবাসি চাকরি সংক্রান্ত বিধি বিধান জানতে ও অন্যকে জানাতে। আমার ব্লগের কোন কন্টেন্ট সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে বা জানাতে ইমেইল করতে পারেন alaminmia.tangail@gmail.com ঠিকানায়। ধন্যবাদ আপনাকে ওয়েবসাইটটি ভিজিট করার জন্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published.