নতুন বা নব নিযুক্ত সরকারি বা স্বশাসিত প্রতিষ্ঠানে যোগদানকৃতদের বোনাস সম্পর্কে সংশোধিত আদেশ জারি হয়েছে – নবনিযুক্ত কর্মচারীদের উৎসব ভাতার প্রাপ্যতা আদেশ সংশোধন করা হয়েছে – উৎসব বোনাস ২০২৩

নতুন কি পরিবর্তন আনা হয়েছে?–সংশোধিত আদেশে বলা হয়েছে যে, “একজন নবনিযুক্ত কর্মচারী উৎসব অনুষ্ঠিত হওয়ার তারিখের পূর্ববর্তী যে তারিখেই চাকুরিতে যােগদান করুক না কেন তিনি যােগদানকৃত পদের মূলবেতনের সমপরিমান অর্থ উৎসব ভাতা হিসেবে প্রাপ্য হবেন”। কিন্তু পূর্বের আদেশে বলা হয়েছে, “একজন নবনিযুক্ত কর্মচারী যে মাসে উৎসব অনুষ্ঠিত হবে, সেই মাসে বা তার পূর্ববর্তী মাসে যত তারিখেই যোগদান করুক না কেন যোগদানকৃত পদের মূলবেতনের সমপরিমাণ অর্থ উৎসব ভাতা হিসাবে প্রাপ্য হবেন”।

উৎসব ভাতা সম্পর্কিত নতুন সংশোধিত আদেশে শুধুমাত্র ভাষাগত স্পষ্টীকরণ প্রদান করা হয়েছে। ভাষাগত ও ভাবের পরিবর্তনের মাধ্যমে বিষয়টি পরিস্কার করা হয়েছে। পূর্ববর্তী আদেশের তারিখ ও নম্বর একই রাখা হয়েছে। একই স্মারক ও তারিখের স্থলাভিষিক্ত করা হয়েছে।

আদেশটি শুধুামত্র সরকারি নয়, বরং আধা-সরকারি/রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন এবং স্ব-শাসিত প্রতিষ্ঠানসমূহে নবনিযুক্ত কর্মচারীগণের উৎসব ভাতা প্রাপ্যতার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হইবে।

উৎসব বোনাস ২০২৩ । নবনিযুক্তগণ যে তারিখেই যোগদান করুক না কেন মূল বেতনের সমান উৎসব ভাতা প্রাপ্য হইবেন

মূল বেতনের সমপরিমাণ উৎসব ভাতা বা বোনাস প্রাপ্য হইবে।

ক্যাপশন: নবনিযুক্ত কর্মচারীদের উৎসব ভাতার প্রাপ্যতা।

উৎসব ভাতা প্রাপ্যতার অন্যান্য বিধিমালা কি? বোনাস প্রাপ্তির অন্যান্য রুলস

  1. অবসর প্রস্তুতি জনিত ছুটিকালে উক্ত ছুটি অব্যবহৃত পূর্বে আহরিত মূল বেতনের ভিত্তিতে উৎসব ভাতা প্রাপ্য। সাময়িক বরখাস্ত কালীন সময়ে সাময়িকভাবে বরখাস্তের অব্যবহৃত পূর্বে আহরিত মূল বেতনের যে অংশ “সাবসিসটেন্স গ্রান্ট” হিসেবে প্রাপ্য সে অংশের সমান উৎসব ভাতা প্রাপ্য। [অম-অবি(বা)-৪-এফ,বি-১২-৮৪(অংশ/১০৭ তারিখ: ৩০-৭-৮৪।]

  2. প্রবেশনার কর্মকর্তা/ কর্মচারী, চুক্তি ভিত্তিক কর্মকর্তা/ কর্মচারী এবং যে সব কন্টিনজেন্ট ও ওয়ার্কচার্জ কর্মচারী নিয়মিত স্কেলে বেতন পাচ্ছেন তারা উৎসব ভাতা প্রাপ্য হবেন। তবে নির্ধারিত বেতনে নিয়োজিত কন্টিনজেন্ট/ ওয়ার্কচার্জ কর্মচারী এবং দৈনিক ভিত্তিতে নিয়োজিত কর্মচারীগণ উৎসব ভাতা প্রাপ্য হবেন না। [অম-অবি(বা)-৪এফ, বি-১২-৮৪(অংশ)/১১৯ তারিখ: ৪-৯-৮৪ ইং।]

  3. কোন কারণে মূল বেতন ভূতাপেক্ষিক বৃদ্ধি পেলে বৃদ্ধিপ্রাপ্ত মূল বেতনের ভিত্তিতে উৎসব ভাতার বকেয়া প্রাপ্য হবে না। [অম-অবি(বা)-৪-এফ, বি-১২-৮৪(অংশ)/১১৯ তারিখ: ৪-৯-৮৪ইং।]

  4. সাময়িকভাবে বরখাস্ত কালীন সময়কে পরবর্তী সময়ে ডিউটি হিসাবে গণ্য করে বিধি মোতাবেক বকেয়া বেতন ও ভাতা প্রদান করা হলে, সেক্ষেত্রে উৎসব ভাতার বকেয়া প্রদান করা যাবে। [এম,এফ/এফ-ডি(ইমপ্লি)-৪-এফ-বি-১২/৮৪/১১৫ তারিখ: ৩০-০৯-৮৫ ইং।]
  5. উৎসব অনুষ্ঠিত হবার মাসের অব্যবহৃত পূর্ববর্তী মাসের যে কোন তারিখে বার্ষিক বর্ধিত বেতনের সুবিধা প্রাপ্য হলে উক্ত বর্ধিত বেতনের প্রাপ্য অংশ ঐ মাসের মূল বেতনের সাথে যুক্ত করে মাস শেষে মূল বেতন হিসেবে যা আহরন করবেন তা উৎসব ভাতা হিসেবে প্রাপ্য হবেন। [অম/অবি/(বাস্ত-৪) উ: ভাতা-১০/৯২/৩২ তারিখ: ০৬-০৬-৯২ ইং।]

  6. অসাধারণ ছুটিকালে কোন উৎসব অনুষ্ঠিত হলে উক্ত উৎসবের জন্য সংশ্লিষ্ট ছুটি ভোগকারী কোন উৎসব ভাতা পাবে না। [অম/অবি/(বাস্ত-১) ভাতা-৬/৯৫/২৫৬ তারিখ: ২৫-১১-৯৭ ইং।]

  7. যে মাসে উৎসব অনুষ্ঠিত হবে সে মাসে মৃত্যুবরণকারী (মৃত্যু উৎসবের পূর্বে বা পরে যে তারিখেই হোক) কর্মচারীর পরিবার উৎসব ভাতা পাবে। [সিএজি/পদ্ধতি-১/১৬১/৫৬৬ তারিখ: ২৩-৬-৯৮ ইং]

মুসলমান ব্যতীত অন্যান্যদের ক্ষেত্রেও একই নিয়ম প্রযোজ্য ?

অবশ্যই – ২টি উৎসব ভাতার বিল একই সাথে দাখিল ২০২৩ – মুসলমানদের দুটি ঈদে ঈদুল আযহা বা ঈদুল ফিতর উৎসব ভাতার বিল পেয়ে থাকে – হিন্দু ধর্মাবম্বীদের একই সাথে দুটি মূল বেতন প্রদান করা হয়। জুলাই মাসের ইনক্রিমেন্টসহ দুটি উৎসব ভাতার বোনাস একই সাথে পেয়ে থাকেন। ibas++ Staff Festival Bill Submission । দূর্গাপূজা উৎসব ভাতার বিল দাখিল করার নিয়ম ২০২২

 

নবনিযুক্ত কর্মচারীদের উৎসব ভাতার প্রাপ্যতা । যে মাসে বা যে তারিখেই যোগদান করুন না কেন মূল বেতনের সমপরিমান বোনাস!

admin

আমি একজন সরকারী চাকরিজীবি। দীর্ঘ ৮ বছর যাবৎ চাকুরির সুবাদে সরকারি চাকরি বিধি বিধান নিয়ে পড়াশুনা করছি। বিএসআর ব্লগে সরকারি আদেশ, গেজেট, প্রজ্ঞাপন ও পরিপত্র পোস্ট করা হয়। এ ব্লগের কোন পোস্ট নিয়ে বিস্তারিত জানতে admin@bdservicerules.info ঠিকানায় মেইল করতে পারেন।

admin has 3003 posts and counting. See all posts by admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *