সরকারি চাকুরীজিবী স্ত্রী/স্বামী হলে একই বা নিকটবর্তী কর্মস্থলে পদায়নের বিধান রয়েছে। স্বামী স্ত্রী কাছাকাছি পদায়নের জন্য কিছু বিষয় বিবেচনা করা হয়। যুক্তিসংগত কারণ উপস্থাপনে নিকটবর্তী কর্মস্থলে পদায়ন/বদলি নেয়া যায়।

সারসংক্ষেপ- মন্ত্রী পরিষদ বিভাগের আদেশ যা সকল সরকারি চাকরিজীবীর জন্যে প্রযোজ্য যদি বিভাগীয় অন্য কোন আদেশ জারি করা না থাকে। সরকারি চাকরিজীবী যাতে স্বপরিবারে একই বাসায় বসবাস করতে পারেন। এ আদেশের মাধ্যমে মানবিক দিক বিবেচনা করা হয়েছে। চাকরিজীবীদের সন্তানদের দেখাশুনা ও পড়াশুনার সুবিধার দিক বিবেচনা করে সরকার এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

স্ত্রী/স্বামী সরকারি চাকরিজীবী হলে এবং ঢাকায় কর্মরত থাকলে সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসকের পক্ষে সপরিবার কর্মস্থলে বসবাস করা সম্ভব হয় না। এ ছাড়াও বিভিন্ন বাস্তব কারণে কোন কোন কর্মকর্তা জেলা প্রশাসক হিসাবে নিয়ােগ পেতে আগ্রহী হন না। ব্যক্তিগত কারণে বদলীর আবেদনপত্র (নমুনা সংযুক্ত)।

স্বামীর কর্মস্থলে বদলির নিয়ম । স্বামী স্ত্রী দুজনেই চাকরিজীবী হলে কাছাকাছি কর্মস্থলে বদলির বিধান

মাঠ পর্যায়ে সরকারি কর্মকর্তাদের সার্বক্ষণিকভাবে কর্মস্থলে অবস্থান নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ হতে বিভিন্ন সময়ে নির্দেশনা জারি করা হয়েছে। সরকারি দায়িত্ব যথাযথভাবে পালনের স্বার্থে মাঠ পর্যায়ে নিয়ােজিত কর্মকর্তাবৃন্দ, বিশেষত জেলা প্রশাসকগণের সপরিবার কর্মস্থলে অবস্থানের আবশ্যকতা রয়েছে। তা সত্ত্বেও অনেক জেলা প্রশাসক সপরিবার কর্মস্থলে অবস্থান করেন না। এমন পরিস্থিতি বিবেচনায় আনা হয়েছে তাছড়া পরিবার কাছে থাকলে দায়িত্ব ও কর্তব্যের প্রতি আরও অধিকতর মনোযোগী হওয়া যায়।

 

Husband Wife Nearest-3-0001

সরকারি চাকরিজীবী স্ত্রী/স্বামীর একই কিংবা নিকটবর্তী কর্মস্থলে পদায়ন/বদলি সংক্রান্ত।

সরকারি কি নিজের স্বার্থে এমন আদেশ জারি করেছে?

হ্যাঁ। সরকারি সুবিধা এবং মানবিক দিক বিবেচনা করেই সরকারি এমন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছেন। জেলা প্রশাসকগণ সপরিবার কর্মস্থলে বসবাস করলে তাঁদের পক্ষে দায়িত্ব পালনে সম্পূর্ণ মনােনিবেশ এবং জনগণকে অধিকতর সেবা প্রদান সম্ভব। তা ছাড়া, তাঁদের সন্তান সংশ্লিষ্ট জেলার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পড়াশুনা করলে অভিভাবক হিসাবে তাঁরা জেলার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহের উন্নতি তথা শিক্ষার মানােন্নয়নে অধিকতর সক্রিয় ভূমিকা রাখতে আগ্রহী হন। অধিকন্তু, জেলা প্রশাসক-পত্নী সংশ্লিষ্ট জেলায় বসবাস করলে তিনি জেলার শিক্ষা, খেলাধুলা এবং সামাজিক-সাংস্কৃতিক উন্নয়নে নারীর ভূমিকা জোরদার করার ক্ষেত্রে সহায়ক ভূমিকা পালন করতে পারেন। পারিবারিক কারণে বদলির আবেদন নমুনা

যে কোন চাকরিজীবী কি এ আদেশের আওতায় স্বামী বা স্ত্রীর কাছাকাছি কর্মস্থলে বদলির আবেদন করতে পারবে?

হ্যাঁ পারবেন। কোন কর্মকর্তা/কর্মচারী, বিশেষত জেলা প্রশাসকের স্ত্রী/স্বামী সরকারি চাকরিজীবী হলে তাঁদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে স্ত্রী/স্বামীকে একই কিংবা নিকটবর্তী কর্মস্থলে পদায়ন/বদলির বিষয়ে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের কথা বলা হয়েছে। যে কোন সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তা/কর্মচারীর জন্য এ আদেশ প্রযোজ্য হইবে।

সরকারি চাকুরীজিবী স্ত্রী / স্বামী হলে একই বা নিকটবর্তী কর্মস্থলে পদায়নের আদেশটি সংগ্রহে রাখতে পারেন: ডাউনলোড

সরকারি চাকরিজীবী স্ত্রী/স্বামীর একই কিংবা নিকটবর্তী কর্মস্থলে পদায়ন/বদলি সংক্রান্ত (০৬/০৩/২০১৬) PDF Copy Download

admin

আমি একজন সরকারী চাকরিজীবি। দীর্ঘ ৮ বছর যাবৎ চাকুরির সুবাদে সরকারি চাকরি বিধি বিধান নিয়ে পড়াশুনা করছি। বিএসআর ব্লগে সরকারি আদেশ, গেজেট, প্রজ্ঞাপন ও পরিপত্র পোস্ট করা হয়। এ ব্লগের কোন পোস্ট নিয়ে বিস্তারিত জানতে admin@bdservicerules.info ঠিকানায় মেইল করতে পারেন।

admin has 3002 posts and counting. See all posts by admin

6 thoughts on “স্বামীর কর্মস্থলে বদলির নিয়ম । স্বামী / স্ত্রীর নিকটবর্তী কর্মস্থলে পদায়নের বিধি বিধান

  • সেনাবাহিনী, বিমান বাহিনী তে চাকরি করলে কি স্ত্রীকে সঙ্গে রেখে বসবাস করা যাবে?পুরো বিষয়টি বুঝিয়ে বলবেন।

  • সেনাবাহিনীর রুলস সম্পূর্ণ ভিন্ন। তবে সস্ত্রীক থাকতে হলে কোয়ার্টার বরাদ্দ পেতে হবে।

  • সিভিল সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারীরা স্বপরিবারে নিজ কর্মস্থলে বসবাস করতে গেলে কি কতপক্ষের অনুমতি লাগবে? উল্লেখ্য, স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে একজন সরকারি চাকরি করেন। ধন্যবাদ।

  • না। এতে অনুমতি লাগবে না।

  • সরকারি সিভিল কর্মকর্তা কর্মচারীদের স্বপরিবারে বসবাসের জন্য কর্তৃপক্ষের অনুমতি লাগবে না এর কোন পরিপত্র বা বিধি/ডকুমেন্ট আছে কি? থাকলে জানাবেন প্লিজ।

  • এমন কোন পরিপত্র নাই। কর্মকর্তা বা কর্মচারীগন স্ব পরিবারেই বসবাস করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *