আইবাস++ এ কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের জিপিএফ পরিবর্তন পদ্ধতি।

যারা জুলাই মাসের বেসিকের ভিত্তিতে করতে চান তারা জুলাই মাসেই পরিবর্তন করবেন। জিপিএফ বিধিমালা ১৯৭৯ মোতাবেক জুন মাসের বেতন বিল হতে জিপিএফ হ্রাস বৃদ্ধি করে থাকেন সরকারি চাকরিজীবীগণ। তবে অতীতে বেতন বৃদ্ধি হত নিজ নিজ কর্মচারীদের যোগদানের তারিখ মোতাবেক।

তবে জাতীয় বেতন স্কেল ২০১৫ অনুযায়ী প্রতি বছর ১লা জুলাই সকল সরকারি কর্মচারীদের বেতন বৃদ্ধি হয়ে থাকে। তবে শাস্তিপ্রাপ্ত বা সাময়িক বরখাস্ত বা বিনা বেতনে ছুটিতে থাকা কর্মচারীদের নির্ধারিত সময় ১লা জুলাইয়ে বেতন বৃদ্ধি হয় না।

আইন এখানে সাংঘর্ষিক। ভঃতঃআঃ, ৭৯ এর ধারা ৯(২), ৯(৩) মোতাবেক কর্তন শুরু, বাড়ানো/ কমানো জুন মাসের বেতন থেকে। তখন বেসিকের সর্বচ্চ সীমা (%) নির্ধারিত ছিল না। পরবর্তীতে (০১/১১/২০১৫ ইং) ধারা ৯(১) সংশোধন করে কর্তনের হার বেসিকের ৫%- ২৫% করা হয়। আবার এনপিএস/১৫ মোতাবেক ইনিক্রিমেন্টের তারিখ ১ জুলাই নির্ধারিত হয়। ফলে বর্ধিত বেসিকের ২৫% জুনে কর্তন সম্ভব না। আর তাছাড়া আইবাসও তা গ্রহন করে না। তবে জুলাইতে জিপি কর্তন বাড়ালে আইবাস বাঁধা দেয়না, অর্থাৎ গ্রহন করে। সুতরাং জুনে চাঁদার হার বাড়ানোর আইন রয়েছে তাই যারা জুন মাসের বেতন বিলে হ্রাস বৃদ্ধি করেছেন তারা জুলাই মাসে জুলাই মাসের বেসিক অনুযায়ী জিপিএফ কর্তন করতে পারবেন।

হিসাবের সুবিধার কথা বলেন অনেকেই। সেখানেও তেমন কোন সমস্যা নেই। সফটওয়্যারই সুদের পরিমান হিসাব করে দেয় এক নিমিষেই।

আপনিও সহজে তা করতে পারেন এই সূত্রেঃ {জের + জুন কর্তন (জুলাই পেইড) + ৫.৫× বাকী ১১ মাসের মাসিক কর্তন (আগস্ট টু জুন পেইড, সমান)} × সুদের হার (%)।

ভিন্ন ভিন্ন মাসে কর্তন হ্রাস বৃদ্ধি করলে হিসাব করতে কোন অসুবিধা নেই। জুনের চাঁদা (Paid in July) এর পরিমাণ এবং বাকি ১১ মাসের চাঁদার পরিমাণ যদি ভিন্ন হয় তাহলেও জিপিএফ এর সুদের হিসাব নির্ণয় করা যায়। জিপিএফ এ সর্বোচ্চ ২৫% এ ১ মাস পুরাতন বেসিকে ১১ মাস নতুন বেসিকে কর্তন।

কর্মকর্তাদের জিপিএফ পরিবর্তন

সরকারি কর্মকর্তাদের বেতন বিল সাবমিট করার অপশন বা মাস উন্মুক্ত হলে বেতন বিল সাবমিটের Settings এর পাশে  “gpf correction” বাটন যুক্ত হবে। এতে করে সবাই জিপিএ এর টাকা বাড়াতে/কমাতে পারবেন।

কর্মকর্তাদের SDO I’d থেকে Gpf correction অপশনটি চালু হবে এ মাসেই তবে মূল বেতনের 5-25% সিলিং ঠিক রেখে বৃদ্ধি/ হ্রাস করতে পারবেন তবে একবারই পরিবর্তন করা যাবে। নতুন বেসিক বা জুলাই মাসের মূলবেতন অনুসারেই বেতন বিল সাবমিট করার আগে হ্রাস বৃদ্ধি করতে হবে।

কর্মচারীদের জিপিএফ পরিবর্তন

কর্মচারীগণ নিজ নিজ দপ্তরের হিসাব শাখায় অফিস প্রধানের মাধ্যমে জিপিএফ পরিবর্তনের আবেদন করবেন অথবা এনআইডি’তে জিপিএফ কর্তনের পরিমাণ উল্লেখ করে দাখিল করবেন। তবে যাদের হ্রাস বা বৃদ্ধির প্রয়োজন নেই তাদের কিছুই করতে হবে না। ডিডিও কর্মচারীদের জিপিএফ তথ্য পরিবর্তন করতে পারবেন। DDO আইডি থেকে iBAS++> Budget Execution>Master Data>GPF Information>NID>GO>Amount Change>Next>Send OTP>Verify >Next >Save &  Exit করলেই কাজ শেষ।

যত কর্মচারীর জিপিএফ কর্তন হ্রাস বা বৃদ্ধি করবেন তত বারই ডিডিওর মোবাইল নম্বরে এসএমএসের মাধ্যমে ওটিপি যাবে। ওটিপি ভেরিভাই করলেই সংশ্লিষ্ট কর্মচারীর জিপিএফ পরিবর্তন হবে।

মনে রাখবেন ডিডিও Concern ছাড়া কর্মচারীর জিপিএফ পরিবর্তন করা যাবে না।

admin

এই ব্লগের কোন পোস্ট নিয়ে বিস্তারিত জানতে বা কোন তথ্য যুক্ত করতে বা সংশোধন করতে চাইলে অথবা কোন আদেশ, গেজেট পেতে এই admin@bdservicerules.info ঠিকানায় মেইল করতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.