সরকারি কর্মচারীদের সাপ্তাহিক কর্মঘন্টা ৪০ ঘন্টা নির্ধারিত।

কর্মঘন্টা কি?

শ্রম আইন অনুসারে দৈনিক ওয়ার্কিং আওয়ারই হচ্ছে দৈনিক কর্মঘন্টা। অর্থাৎ সেটা ৬.৩০ ঘন্টা / ৮ ঘন্টা হতে পারে।

বিরতিকাল:

ঘন্টার কাজ করতে হবে। ৮ ঘন্টা কাজের মধ্যে ১ ঘন্টা লঞ্চ বিরতি এবং আধা ঘন্টা বিশ্রাম।

অধিকাল প্রাপ্তি যোগ্যতা:

অধিকাল প্রাপ্তির ক্ষেত্রে প্রথম শর্ত হল কর্মচারী হতে হবে। কর্মকর্তাগণ এ সুবিধার আওতাভূক্ত নয়। সাধারণত ৪০ ঘন্টার অতিরিক্ত সময় কাজ করলে উক্ত সময়কাল অধিকাল হিসাবে গন্য হবে।

পূর্বে কত দিন সরকারী ছুটি ছিল?

আশির দশকের দিকে সরকারী কর্মচারীগণ সপ্তাহে ০১ (এক) দিন সাপ্তাহিক ছুটি ভোগ করত। এখন সপ্তাহে ২ (দুই) দিন সাপ্তাহিক ছুটি ভোগ করে। কর্মঘন্টাও ছিল সকাল ৮.৩০ মিনিট থেকে বিকাল ২.৩০ মিনিট পর্যন্ত। সে হিসাবে ৬ ঘন্টা ৩০ মিনিট করে সপ্তাহে সর্বমোট ৩৯ ঘন্টা ডিউটি করতে হত। বর্তমানে সাপ্তাহিক কর্মদিবস ৫ দিন হওয়ায় ৯ থেকে ৫ টা পর্যন্ত ৮ ঘন্টা হারে ৪০ ঘন্টা কাজ করতে হয়।

  • দৈনিক ৮ ঘন্টা হারে সাপ্তাহে ৫ কর্মদিবসে ৪০ ঘন্টা কাজ করতে হয়।
  • বাংলাদেশ শ্রম আ্‌নি, ২০০৬ অনুসারে ৮ ঘন্টা হারে ৬ কর্মদিবসে ৪৮ ঘন্টা কাজ করার কথা থাকলেও সরকার সাপ্তাহে ২ দিন সাপ্তাহিক ছুটি ঘোষনা করায় সাপ্তাহিক কর্মঘন্টা হতে ৮ ঘন্টা বাদ দেওয়া হয়েছে।

 


এখন প্রশ্ন হলো ৬.৫ ঘন্টা হারে রোস্টার ডিউটি হিসাবে ২৪ ঘন্টা দপ্তর সচল রাখার স্বার্থে নিরাপত্তা কর্মী/ টেকনিশয়ানদের কি সপ্তাহে ৬ দিনে ৩৯ ঘন্টা ডিউটি বা কর্তব্য পালন করানো যাবে?

 

উত্তর: হ্যাঁ জনস্বার্থে ৪০ ঘন্টার অধিক নয় এমনভাবে রোস্টার ডিউটি সাজানো যাবে।

তবে, শর্ত থাকে যে সাপ্তাহে ৪০ ঘন্টার অধিক কর্তব্য পালন করালে অধিকাল ভাতা প্রদান করতে হবে।

এ সংক্রান্ত শ্রম আইনের বিধিটি উপস্থাপন করা হলো

শেষ কথা:

সাপ্তাহিক ছুটি ১ দিন হোক বা ২ দিন হোক কোন ভাবেই যেন সাপ্তাহিক কর্মঘন্টা ৪০ ঘন্টা অতিক্রম না করে।

 

আরও দেখুন:

admin

আমার ব্লগের কোন কন্টেন্ট সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে বা জানাতে ইমেইল করতে পারেন admin@bdservicerules.info ঠিকানায়।

One thought on “সরকারি কর্মচারীদের সাপ্তাহিক কর্মঘন্টা ৪০ ঘন্টা নির্ধারিত।

  • 21/11/2019 at 12:55 pm
    Permalink

    ভাই যদি কোন কর্মচারী বাড়তী খাটনী না করতে চায়, তবে সেই ক্ষেত্রে কি তাকে দিয়ে জোর করে ডিউটি করানো যাবে কি না, আর যদি যায় ও সেটা কত ঘন্টা করানো যাবে প্রতি কর্মদিবসের পর।

Leave a Reply

Your email address will not be published.