সরকারি কার্যালয়ের অফিস সহায়ক এর দায়িত্ব ও কর্তব্য বা কাজ।

চতুর্থ শ্রেণীর অন্তর্ভুক্ত পিয়ন পদটির সাথে আমাদের দেশের মানুষ সুপরিচিত। কোনো কোনো কার্যালয়ে পিয়নকে দফতরি, চাপরাশি বা আর্দালি নামে ডাকা হতো। পিয়ন শব্দটি ইংরেজি। পিয়ন, দফতরি, চাপরাশি, আর্দালি প্রভৃতিকে এমএলএসএস নামেও অভিহিত করা হতো।

এমএলএসএস অর্থ মেম্বার লোয়ার সাব-অর্ডিনেট সার্ভিস। সরকারের জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে জারিকৃত ৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৪ খ্রিষ্টাব্দের পরিপত্র দ্বারা এমএলএসএস, পিয়ন, দফতরি, চাপরাশি, আর্দালি প্রভৃতি পদবির পরিবর্তন করে অফিস সহায়ক নামের একটি একক পদবি করা হয়।

সরকারি অফিসে পিয়ন কিংবা এমএলএসএস নামে ব্রিটিশ আমলের পদ আর নেই। এই পদের নতুন নামই হচ্ছে অফিস সহায়ক। ২০১৪ সালে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে পিয়নেই নতুন এই নামকরণসহ চতুর্থ শ্রেণীর ৩৪টি পদের নাম পরিবর্তন করা হয়েছে।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের পরিপত্র অনুযায়ী পরিবর্তিত উল্লেখযোগ্য কিছু পদের মধ্যে এমএলএসএস/ দফতরি/পিয়ন/ডিম পরীক্ষক/শেয়ারিং এটেনডেন্ট/বুচার/টি বার অ্যাসিসটেন্ট/চাপরাশি পদগুলোর একক নাম হয়েছে অফিস সহায়ক।

অফিস সহায়কের কাজ হচ্ছে তার উর্ধতন কর্মকর্তাদের কাজে প্রয়োজনীয় সহযোগীতা করা। অফিস সহায়ক অর্থ- অফিসের কাজে সহায়তা করা। পদবির অর্থ থেকেই স্পষ্ট ধারণা পাওয়া যায় তাদের কর্মপরিধি বা কর্মের ব্যাপ্তি কতটুকু এবং অফিসের কাজের সাথে সম্পর্কিত নয় এমন কোনো কাজ করতে তারা বাধ্য কি না বা তাদের বাধ্য করা যাবে কি না।

সরকারি চাকুরী এবং সাধারণ প্রশাসন বিভাগ নিয়ন্ত্রণ শাখা, শাখা ১ নম্বর এস,জি, এ/আর আই/আই এস-135/69/252(350), তারিখ: ২৯ অক্টোবর ১৯৬৯ এর  মোতাবেক সরকারি পিয়নদের দায়িত্ব ও কর্তব্য নিম্নরূপ নির্ধারণ করা হয়েছে। 

তাদের কাজ: 

অফিস সহায়ক এর দায়িত্ব ও কর্তব্য  

১। অফিসের আসবাবপত্র এবং রেকর্ডসমূহের সুন্দরভাবে বিন্যাস সাধন করা এবং পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখা।

২। অফিসের ফাইল এবং কাগজপত্র নির্দেশক্রমে একস্থান হইতে অন্যস্থানে কিংবা অন্য অফিসে স্থানান্তর করা।

৩। হালকা আসবাবপত্র অফিসের মধ্যে একস্থান হইতে অন্যস্থানে সরানো।

৪। গোপন অথবা গুরুত্বপূর্ণ ফাইলসমূহ স্টিলের বাক্স বন্দী করিয়া নির্দেশক্রমে এক অফিস হইতে অন্য অফিসে নেয়া।

৫। কর্মকর্তা ও কর্মচারীগণকে পানীয় জল পান করাবেন।

৬। তাহারা অফিসের সমস্ত মনিহারী ও অন্যান্য দ্রব্যাদি সংরক্ষণের জন্য দায়ী থাকিবেন।

৭। তাহারা তাদের জন্য নির্ধারিত ইউনিফর্ম পরিধান করিয়া অফিসে আসিবেন।

৮। তাহারা স্ব স্ব শাখা এবং কর্মকর্তার নির্দেশিত কাজ করিবেন।

৯। তাহার দর্শণপ্রার্থী এবং পাবলিকের সহিত ভদ্রতা বজায় রাখিয়া ব্যবহার করিবেন

১০। তাহারা কর্মকর্তার পক্ষে ব্যাংকে চেক জমা এবং টাকা তুলিবেন।

১১। তাহারা অফিস সময়ের ১৫ মিনিট পূর্বে অফিসে আসিবেন এবং সহকারী সচিব/প্রধান সহকারীর নিকট আগমনের রিপোর্ট করিবেন।

১২। তাহারা বিনা অনুমতিতে কোন সময় অফিস ত্যাগ করিবেন না।    

ইতিকথা: পরিশেষে বলা যায়, অফিস কর্তৃপক্ষ বা বস পিওনের দায়িত্ব নির্ধারণ করবেন। যে অফিসের প্রয়োজনে যে কোন কাজ করাতে পারবেন। তাই বলে ঝাড়ুদারের কাজ নয়, তাই বলে ম্যাথরের কাজ নয়। সাধারণত আমরা পিওন বা অফিস সহায়কের একই কাজ করতে দেখে থাকি।

admin

এই ব্লগের কোন পোস্ট নিয়ে বিস্তারিত জানতে বা কোন তথ্য যুক্ত করতে বা সংশোধন করতে চাইলে অথবা কোন আদেশ, গেজেট পেতে এই admin@bdservicerules.info ঠিকানায় মেইল করতে পারেন।

3 thoughts on “সরকারি কার্যালয়ের অফিস সহায়ক এর দায়িত্ব ও কর্তব্য বা কাজ।

  • 31/05/2019 at 10:14 am
    Permalink

    সরকারি কার্যালয়ের অফিস সহায়ক এর দায়িত্ব ও কর্তব্য সম্পর্কে এ পোস্টটি বেশ গুরুত্বপূর্ণ, ধন্যবাদ।

  • 30/05/2020 at 2:24 pm
    Permalink

    ধন্যবাদ। আল্লাহ পাক তাদের সবাইকে বুজার তৌফিক দিক….আমিন। তবে সর্বশেষ পরিপত্র অনুযায়ী অফিস সহায়ক বাতিল করে দপ্তরী করা হয়েছে……

  • Pingback: অফিস সহায়ক ও অফিস সহকারীর মধ্যে পার্থক্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published.