চাকরিকাল হিসাবে গন্য হলেও চাকরি জীবনে ০১ দিন নন-ওয়ার্কিং ডে।

বিধি-৭৯। যে ক্ষেত্রে কোন সরকারী কর্মচারীর একটি নির্দিষ্ট বয়স পূর্ণ হইলে চাকরি হইতে অবসর গ্রহণ করিতে হয়, ছুটি হইতে প্রত্যাগমন (রিভার্ট) করিতে হয় অথবা ছুটির অবসান হয়, সেক্ষেত্রে উক্ত নির্দিষ্ট বয়স পূর্ণ হওয়ার দিনটি অকর্ম দিবস (নন-ওয়ার্কিং ডে) হিসাবে গণনা করিতে হইবে এবং সংশ্লিষ্ট কর্মচারীর চাকরি হইতে অবসর গ্রহণ, ছুটি হইতে প্রত্যাগমণ বা ছুটির অবসান উক্ত দিন হইতে উক্ত দিনকে অন্তর্ভুক্ত করিয়া কার্যকর হইবে।
নোট: যে কর্মচারীর জন্ম বৎসর জানা আছে কিন্তু জন্ম তারিখ জানা নাই, ঐ কর্মচারীর বাধ্যতামূলক অবসরগ্রহণের বয়স পূর্ন হওয়ার তারিখ নির্ধারণের জন্য ১লা জুলাইকে জন্ম তারিখ হিসাবে গন্য করিতে হইবে। একই ভাবে যদি শুধু জন্ম বৎসর ও জন্ম মাস জানা থাকে তাহা হইলে পেনশনের জন্য মাসের ১৬ তারিখ জন্ম তারিখ হিসাবে গন্য করিতে হইবে।
বিশ্লেষণ: গণকর্মচারী (অবসর) আইন, ১৯৭৪ এর ৪ ধারা অনুযায়ী মুক্তিযোদ্ধা ক্ষেত্রে ৬০ এবং অন্যান্য ক্ষেত্রে ৫৯ বছর কর্মচারীর বয়স পূর্ণ হলেই বাধ্যতামূলক বা বার্ধক্যজনিত অবসর গ্রহণ করিতে হয়।
নন- ওয়ার্কিং ডে: ৫৯ বছর পূর্তির দিনটি নো ওয়ার্কি ডে হিসাবে গন্য করিতে হইবে। কোন কর্মচারীর জন্ম তারিখ ১ জুন, ১৯৫৫ হইলে ৩১ মে, ২০১৪ তারিখে তাহার বয়স ৫৯ বৎসর পূর্ণ হল ৩১ মে, ২০১৪ তারিখটি হইবে নন-ওয়ার্কিং ডে। এই বিধি মতে ৩১, মে ২০১৪ তারিখ হইতেই তাঁহার অবসরগ্রহণ কার্যকর হইবে। যদিও সে ১ জুন, ২০১৪ হইতে সর্বোচ্চ ১ (এক) বৎসর অবসর উত্তর ছুটি ভোগ করিবে।
অর্থ মন্ত্রণালয়ের স্মারক নং অম/অবি(প্রবিধি-১)৩পি-২৫/৯১-১(১০০০), তারিখ: ১ জানুয়ারি ১৯৯২ এবং স্মারক নং অম/অবি/প্রবিধি-১/৩পি-২৫/৯১-১০ তারখ ১৫ জানুয়ারি, ২০০১ অনুযায়ী ৫৯ বা ৬০ বছর পূর্ন শেষে অবসর উত্তর ছুটি শেষ হওয়ার পরের দিন তাঁহাকে অবসর প্রদান করিতে হইবে। 
বিদ্র: অবসর উত্তর ছুটি (পিআরএল) গড় বেতনে হয় বিধায় উহা পেনশনযোগ্য চাকরি হিসাবে গণনাযোগ্য। 
Avatar

admin

আমি একজন সরকারি চাকরিজীবী। ভালবাসি চাকরি সংক্রান্ত বিধি বিধান জানতে ও অন্যকে জানাতে। আমার ব্লগের কোন কন্টেন্ট সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে বা জানাতে ইমেইল করতে পারেন alaminmia.tangail@gmail.com ঠিকানায়। ধন্যবাদ আপনাকে ওয়েবসাইটটি ভিজিট করার জন্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published.