জেলে আটক বা গ্রেফতার হওয়ার তারিখ হইতে সাময়িক বরখাস্ত।

সাময়িক বরখাস্ত (Suspension) সাময়িক বরখাস্তের অর্থ হইতেছে, কোন কর্মচারীকে সাময়িকভাবে কার্য সম্পাদনে, দায়িত্ব পালনে, ক্ষমতা ও কর্তৃত্ব প্রয়োগে বিরত রাখা এবং কতিপয় সুবিধা প্রাপ্তির অধিকার হইতে বঞ্চিত রাখা।

সাময়িক বরখাস্ত যখন যুক্তিযুক্ত-নিম্নোক্ত ক্ষেত্রে সাময়িক বরখাস্ত যুক্তিযুক্ত-

১। ফৌজদারী অভিযোগে অথবা দেনার দায়ে জেলে আটক সরকারী কর্মচারী গ্রেফতার হওয়ার তারিখ হইতে সাময়িক বরখাস্ত হিসাবে বিবেচিত হইবেন এবং বিচার কার্যক্রম শেষ না হওয়া পর্যন্ত খোরপোষ ভাতা (অর্ধগড় হারে বেতন) পাইবেন। বিএসআর পার্ট-১ এর ৭৩ নং বিধির নোট -(২)

২। কোন কর্মচারী গ্রেফতারের পর বা আত্মসমর্পনের পর জামিনে মুক্তি লাভ করিলেও সাময়িক বরখাস্ত হিসাবে বিবেচিত হইবেন। তবে এই ক্ষেত্রে জটিলতা এড়াইবার জন্য কর্তৃপক্ষ সাময়িক বরখাস্তের ফরমাল আদেশ জারি করিবেন। (জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের অফিস মেমোরেন্ডাম নং ED(Reg-VI)S-123/78/115 (500), তারিখ: ২১ নভেম্বর, ১৯৭৮)

সাময়িক বরখাস্ত যখন ইচ্ছাধীন

সরকারী কর্মচারী (শৃংখলা ও আপিল) বিধিমালা, ১৯৮৫ (বর্তমানের সরকারি কর্মচারী শৃঙ্খলা ও আপিল বিধিমালা ২০১৮ ) বিধি-৩ এর অনুচ্ছেদ (বি), (সি) বা (ডি) এর অধীনে অর্থাৎ অসদাচরণ বা ডিজারসন বা দূর্নীতির অভিযোগে বিভাগীয় মামলা গ্রহণের প্রস্তাব করার ক্ষেত্রে কর্তৃপক্ষ প্রয়োজনীয় ও যুক্তিযুক্ত মনে করিলে সংশ্লিষ্ট কর্মচারীকে বিধি-১১ এর বিধানমতে সাময়িক বরখাস্ত করিতে পারিবেন। এই ক্ষেত্রে সাময়িক বরখাস্ত কর্তৃপক্ষের ইচ্ছাধীন।

সাময়িক বরখাস্তের ভিত্তিসমূহ

স্মারক নং F.32/48-Ests (SE), তারিখ: ২১ জুলাই, ১৯৪৯ অনুযায়ী নিম্নোক্ত বিষয়সমূহ সাময়িক বরখাস্তের আদেশদানের ভিত্তি হিসাবে গণ্য হইবে-

(ক) অভিযুক্তের বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগের বলিষ্ঠ প্রাথমিক তথ্য থাকিতে হইবে;

(খ) অভিযোগ এইরূপ গুরুতর প্রকৃতির যে মামলা চলাকালীন তাহাকে দায়িত্ব পালন করিতে দেওয়া যুক্তিযুক্ত হইবে না, অথবা উক্ত অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ার ক্ষেত্রে সম্ভাব্য দন্ড হইবে চাকরি হইতে বরখাস্ত;

(গ) মামলা নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত কর্ম হইতে বিরত রাখার বলিষ্ঠ কারণ বিদ্যমান;

(ঘ) শৃঙ্খলার সামান্য বিচ্যুতি বা ছোখাট অপরাধের ক্ষেত্রে সাময়িক বরখাস্ত করা উচিৎ নয়।

(ঙ) কোন কর্মচারীকে সাময়িক বরখাস্ত করা যুক্তিযুক্ত হইবে না, যদি না-

(১) সে ইচ্ছাকৃত ভাবে বা একঘুয়েমীভাবে আদেশ পালনে অস্বীকৃত জানায়;

(২) তদন্তকালে কর্মরত থাকার ক্ষেত্রে তদন্ত কাজে ব্যাঘাত সৃষ্টি বা তদন্তকে ব্যাহত করে;

(৩) কর্মচারী পুলিশ হেফাজতে থাকে;

(৪) এমন প্রকৃতির অপরাধে অভিযুক্ত, যাহা প্রমানিত হওয়ার ক্ষেত্রে চাকরি হইতে বরখাস্ত বা দন্ড প্রয়োগযোগ্য।

সাময়িক বরখাস্তের ক্ষেত্রে দ্রুত নিষ্পত্তিকরণ

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের ১১ জুন, ১৯৭৪ তারিখের স্মারক নং DI-38/74-413 (40) অনুযায়ী বরখাস্তের ফলে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি যেমন অর্থকষ্টে পতিত হয়, ঠিক তেমনি সরকারকেও সময় দক্ষতা এবং আর্থিক অপচয়ের সম্মুখীন হইতে হয়, তাই সাময়িক বরখাস্তের ক্ষেত্রে মামলা দ্রুত নিষ্পত্তি করা প্রয়োজন।

আরও দেখুন: সাময়িক বরখাস্ত থাকার সময়ে যে সুযোগ সুবিধা পাইবেন না।

admin

আমার ব্লগের কোন কন্টেন্ট সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে বা জানাতে ইমেইল করতে পারেন admin@bdservicerules.info ঠিকানায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.