তিন মাস অন্তর মুনাফাভিত্তিক সঞ্চয়পত্র ২০২৪ । পুরুষদের জন্য মাসিক মুনাফা সঞ্চয়পত্র স্কিম কোনটি?

পুরুষদের জন্য প্র্রতিমাসে মুনাফা পাওয়া যায় এমন কোন সঞ্চয়পত্র স্কিম নেই- ৩ মাস পর পর মুনাফা পাওয়া যায় এমন স্কিম এবং ৫ বছর পর মুনাফা সহ মূল টাকা পাওয়া যায় এমন স্কিম রয়েছে– তিন মাস অন্তর মুনাফাভিত্তিক সঞ্চয়পত্র ২০২৪

সঞ্চয়পত্র চাইলেই কি নগদায়ন করা যায়? হ্যাঁ। সঞ্চয়পত্র যখন চাইবেন তখনই নগদায়ন করা বা ভেঙ্গে ফেলা যায়। তবে শর্ত একটিই যে তারিখ হতে আপনি সঞ্চয়পত্র কিনেছেন সেই তারিখ হতে এক বছর পূর্ণ না হলে ঐ কয় মাসের মুনাফা আপনি পাবেন না এবং বছর ভিত্তিক যে হার রয়েছে সেই হারে মুনাফা পাবেন। ১১তম মাসে ভাঙ্গালেও আপনি ১১ মাসের কোন মুনাফা পাবেন না। এফডিআর এবং সঞ্চয়পত্র বড় পার্থক্য হলো এফডিআরএ মুনাফা বা সুদ কম পাওয়া যায় এবং আপনি যখন ভাঙ্গাবেন ঐ মাসের মুনাফা বা সুদ পাবেন না। অন্য দিকে সঞ্চয়পত্রে মুনাফা বেশি পাওয়া যায় কিন্তু এক বছর পূর্ণ না হলে ঐ বছরের মুনাফা আপনি পাবেন না।

সঞ্চয়পত্র ক্রয়ে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র কি লাগে?  সঞ্চয়পত্র ক্রয়ের নির্ধারিত আবেদন ফরম৷ ক্রেতার ০২(দুই) কপি পাসপাের্ট সাইজ ছবি৷ ক্রেতার জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি। ক্রেতার ইটিন সার্টিফিকেটের ফটোকপি ((০৫ লক্ষ টাকার বেশি ক্রয়ের জন্য) । ৫ লক্ষ টাকার অধিক বিনিয়োগের ক্ষেত্রে রিটার্ণ দাখিলের রশিদ প্রয়োজন পড়বে। মোট বিনিয়োগ ৫ লক্ষ ক্রস করলেই আয়কর রিটার্ণ দাখিল সনদ লাগবে। এমআইসিআর চেকেরমাধ্যমে বিনিয়ােগের টাকা পরিশােধা (০১ লক্ষ টাকার বেশি হলে)। নমিনীর ০২(দুই) কপি পাসপাের্ট সাইজ ছবি এবং জাতীয় পরিচয় পত্রেরফটোকপি। নমিনী নাবালক হলে নমিনীর জন্মনিবন্ধন সনদ ও প্রত্যায়নকারীর জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি। পেনশনার সঞ্চয়পত্র ক্রয়ের জন্য ক্রেতার পেনশন বই এর ফটোকপি এবং প্রাপ্ত আনুতােষিক এবং ভবিষ্য তহবিলের মঞ্জুরীপত্র।

সঞ্চয়পত্র কেনা নাকি অনেক ঝামেলার? না। আপনি ৫ লক্ষ টাকা সঞ্চয়পত্র ঝামেলা ছাড়াই ব্যাংকে গিয়ে ফরম পূরণ এবং ছবি এনআইডি নিয়ে গেলেই হল। কোন টিন বা রিটার্ন রশিদ লাগবে না। তাছাড়া ডাকঘর বা ব্যাংক হতে সঞ্চয়পত্র কেনা একই কথায়, ডাকঘর বা পোষ্ট অফিস যেমন সঞ্চয়পত্রের বিক্রতা মাত্র ঠিক একইভাবে কমিশনের বিনিময়ে ব্যাংকও সঞ্চয়পত্র বিক্রি করে মাত্র। যেখান থেকেই সঞ্চয়পত কিনুন না কেন টাকা জাতীয় সঞ্চয় অধিদপ্তর বা সরকারি কোষাগারেই জমা হয়।

৩-মাস অন্তর মুনাফাভিত্তিক সঞ্চয়পত্র ক্রয়ের আবেদন ফরম । সঞ্চয়পত্র ফরম কি ব্যাংক হতে সংগ্রহ করতে হবে নাকি এখানে থেকে সংগ্রহ করে প্রিন্ট করে নিলেই হবে

এখান থেকে ডাউনলোড করে প্রিন্ট করে নিলেই হবে: ৩-মাস অন্তর মুনাফাভিত্তিক সঞ্চয়পত্র ক্রয়ের আবেদন ফরম Word Doc File Download

তিন মাস অন্তর মুনাফাভিত্তিক সঞ্চয়পত্র ২০২৪ । পুরুষদের জন্য মাসিক মুনাফা সঞ্চয়পত্র স্কিম কোনটি?

Caption: Printable Sanchaypatro form download

তিন মাস অন্তর মুনাফা ভিত্তিক সঞ্চয়পত্র ২০২৪ । তিন মাস পর পর ব্যাংক হিসাবে মুনাফা চলে আসবে

  1. মুনাফার স্ল্যাব ১৫,০০,০০০ টাকা পর্যন্ত ১ম স্ল্যাব। ১৫,০০,০০১ টাকা হতে ৩০,০০,০০০ টাকা পর্যন্ত ২য় স্ল্যাব । ৩০,০০,০০১ টাকা হতে তদূর্ধ্ব পর্যন্ত ৩য় স্ল্যাব।
  2. ১ম বছরান্তে >১০.০০ %> ১০.০০ %> ৯.০৬ %> ৮.১৫ %

  3. ২য় বছরান্তে> ১০.৫০ %> ১০.৫০ %> ৯.৫১ %> ৮.৫৬ %

  4. ৩য় বছরান্তে> ১১.০৪ % >১১.০৪ %> ১০.০০ %> ৯.০০ %

  5. তিন মাস অন্তর মুনাফাভিত্তিক  সঞ্চয়পত্রের জন্য নির্ধারিত ফরম পূরণ করতে হবে। বিনিয়োগকারী ও নমিনীর জাতীয় পরিচয়পত্রের কপি ১টি করে।বিনিয়োগকারী ও নমিনীর পাসপোর্ট সাইজের ছবি ২টি করে মোট ৪টি । বিনিয়োগকারীর ব্যাংক হিসাবের MICR চেকের মাধ্যমে পরিশোধ করতে হবে।৫,০০,০০০/- (পাঁচ লক্ষ) টাকার অধিক বিনিয়োগের ক্ষেত্রে TIN (Tax Identification Number) ও উক্ত TIN এর বিপরীতে আয়কর বিবরণী দাখিলের রশিদ/ প্রত্যয়ন পত্র।

মেয়াদ শেষে মূল টাকা কি একাউন্টে চলে আসে?

হ্যাঁ। ত্রৈমাসিক ভিত্তিতে মুনাফা প্রদেয় হয়। একক নামে সর্বোচ্চ ৩০ লক্ষ টাকা রাখা যায়। জাতীয় সঞ্চয় ব্যুরো, বাংলাদেশ ব্যাংক শাখাসমূহ, বাণিজ্যিক ব্যাংকসমূহ এবং ডাকঘর থেকে ক্রয় ও নগদায়ন করা যায় । পাঁচ লক্ষ টাকা পর্যন্ত সর্বমোট বিনিয়োগের ক্ষেত্রে মুনাফার উপর ৫% তবে ৫,০০,০০০/- (পাঁচ লক্ষ) টাকার অধিক বিনিয়োগের ক্ষেত্রেমুনাফার উপর ১০% হারে উৎসে কর কর্তন করা হয়। জাতীয় সঞ্চয় অনলাইন ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমের মাধ্যমে মুনাফা ও মূল টাকা EFT এর মাধ্যমে সরাসরি গ্রাহকের ব্যাংক হিসাবে প্রেরণ করা হয়। ১৮ উর্ধ্ব যেকোন বাংলাদেশী মহিলা/পুরুষ নাগরিক, এবংঅটিস্টিকদের জন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান/ অন্য যে কোন অটিস্টিক সহযোগি প্রতিষ্ঠান (যাদের সঞ্চয়পত্রের মুনাফা অটিস্টিকদের সহায়তায় অবশ্যই ব্যবহার করতে হবে) যা সংশ্লিষ্ট জেলা সমাজসেবা কার্যালয় কর্তৃক প্রত্যয়নকৃত। নমিনী নিয়োগ ও পরিবর্তন করা যায় ।সঞ্চয়পত্রের ক্রেতার মৃত্যুর পর নমিনী সাথে সাথেই অথবা মেয়াদ উত্তীর্ণের পর সঞ্চয়পত্র ভাঙ্গাতে পারেন। ১ লক্ষ টাকা পর্যন্ত নগদ বিনিয়োগ সুবিধা রয়েছে। প্রতিষ্ঠান বিনিয়োগের ক্ষেত্রে ভিন্ন নিয়ম প্রযোজ্য দেখুন এখানে

সঞ্চয়পত্র সম্পকে আরও বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন।

Sanchayapatra Encashment Process । সঞ্চয়পত্র মেয়াদ উত্তীর্ণ হলে নগদায়ন করার নিয়ম ২০২২

admin

আমি একজন সরকারী চাকরিজীবি। দীর্ঘ ৮ বছর যাবৎ চাকুরির সুবাদে সরকারি চাকরি বিধি বিধান নিয়ে পড়াশুনা করছি। বিএসআর ব্লগে সরকারি আদেশ, গেজেট, প্রজ্ঞাপন ও পরিপত্র পোস্ট করা হয়। এ ব্লগের কোন পোস্ট নিয়ে বিস্তারিত জানতে admin@bdservicerules.info ঠিকানায় মেইল করতে পারেন।

admin has 2981 posts and counting. See all posts by admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *