পেনশন Active আছে কিনা তা অনলাইনেই চেক করতে পারেন।

বাংলাদেশ সরকার প্রায় শতভাগ পেনশনারকে বর্তমানে ইএফটির মাধ্যমে পেনশন ও ভাতাদি প্রদান করছে। এমতাবস্থায় শুধুমাত্র পেনশন ও ফান্ড ম্যানেজমেন্ট নামে একটি আলাদা সেল গঠন করেছে চিফ একাউন্টস এন্ড ফিন্যান্স অফিস।

আপনি চিফ একাউন্টস এন্ড ফিন্যান্স অফিসারের কার্যালয় এর অধীনে পেনশন ও ফান্ড ম্যানেজমেন্ট ওয়েব সাইট http://www.cafopfm.gov.bd/ হতে পেনশনারগনের ব্যক্তিগত তথ্যাদি বা Pension Payment Information মেনু থেকে জেনে নিতে পারেন আপনার গৃহীত পেনশন সংক্রান্ত তথ্যাদি শুধু তাই নয় আপনার পেনশন একটিভ আছে কিনা তাও জেনে নিতে পারে শুধুমাত্র এনআইডি ও ফোন নম্বর ব্যবহার করে।

এ পর্যন্ত প্রাপ্ত পেনশন স্টেটমেন্ট যেভাবে সংগ্রহ করবেন

প্রথম, http://www.cafopfm.gov.bd/ লিংক টি ব্যবহার করে পেনশন ও ফান্ড ম্যানেজমেন্ট অফিসের ওয়েবসাইটে প্রবেশ করবেন। এজন্য আপনাকে আপনার কম্পিউটারের বা মোবাইলে ব্রাউজার ব্যবহার করে URL টিতে প্রবেশ করতে হবে। যে কোন ব্রাউজারে http://www.cafopfm.gov.bd/ এই লিংকটি প্রবেশ করিয়ে এন্টার চাপুন অথবা গুগল এ গিয়ে পেনশন ও ফান্ড ম্যানেজমেন্ট লিখে সার্চ করুন।

চিত্রের মত করে সার্চ করুন।

দ্বিতীয়ত, আপনি পেনশন ও ফান্ড ম্যানেজমেন্ট ওয়েব সাইটে প্রবেশ করে তিনটি মেনু থেকে Pension Payment Information মেনুতে Click Here এ ক্লিক করুন। ক্লিক করার সাথে সাথেই একটি Window ওপেন হবে। সেখানে আপনার পেনশনপ্রাপ্তিতে ব্যবহৃত NID বা জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর লিখুন। দেখে নিবেন ১৩ ডিজিটের এনআইডি হলে এনআইডি নম্বরের পূর্বে অবশ্যই জন্ম সাল ব্যবহার করবেন। স্মার্ট কার্ড যদি আপনি পেনশন বা ইএফটিতে ব্যবহার করে না থাকেন তবে স্মার্ট কার্ড এর নম্বর ব্যবহার থেকে বিরত থাকুন। আপনার ব্যবহৃত মোবাইল ফোন নম্বরটি সরবরাহ করুন যেটি আপনি ইএফটি ফরমে এবং ব্যাংকে ব্যবহার করেছেন। আপনার মোবাইলে একাধিক সিম থাকতে পারে তাই আপনি অবশ্যই পে ফিক্সেশন বা EFT ফরমে যে মোবাইল নম্বরটি ব্যবহার করেছেন সেটি ইনপুট করুন।

উপরোক্ত তথ্য দেখতে পারবেন।

তৃতীয়ত, সকল তথ্য সঠিকভাবে ইনপুট করে, ফাইন্যান্সিয়াল ইয়ার সিলেক্ট করে Submit বাটন চাপুন, যদি অন্য কোন অর্থ বছরের তথ্য দেখার দরকার হয় তবে অর্থ বছর পরিবর্তন করে দিবেন। প্রাথমিক ভাবে চলতি অর্থ বছর অটো সিলেক্ট থাকে।

 

একজন পেনশনারকে ১১ মাসে একবার লাইভ ভেরিফিকেশন করতে হয়। যদি কেউ লাইভ ভেরিফিকেশন না করে তবে inactive show করবে। যদি কোন সমস্যা না থাকে তবে আপনার পেনশন স্টেটমেন্টে Active শো করবে। আপনিকে কি কারণে Block করা হয়েছে বা যদি ব্লক করা হয় তার কারণ উল্লেখ থাকবে।

এনআইডি এবং মোবাইল নম্বর অবশ্যই ইংরেজীতে সরবরাহ করবেন। কোন ভাবেই ইউনিকোড বা বাংলায় তথ্য সরবরাহ করবেন না। কারও পেনশন যদি সময়মত না পান তবে আপনার পেনশনের EFT Generate হয়েছে কিনা তাও দেখে নিতে পারেন। যদি দু’এক মাস পেনশন না পেয়ে থাকেন তবে পেনশন বন্ধের কারণও জেনে নিতে পারেন। এসব তথ্য এখন হাতে নাগালে এনে দিয়েছেন পেনশন ও ফান্ড ম্যানেজমেন্ট অফিস কর্তৃপক্ষ।

 

উপরোক্ত তথ্য বুঝতে যদি আপনার সমস্যা হয় চাইলে আপনি নিচে সংযুক্ত ভিডিওটি দেখে নিতে পারেন।

https://youtu.be/sMLn05ALgIE

পেনশন নিয়ে যে কোন সমস্যায় পড়ে আপনি পেনশন ও ফান্ড ম্যানেজমেন্ট অফিসে মোবাইলে মাধ্যমে যোগাযোগ করতে পারেন। এক্ষেত্রে ওয়েবসাইটে দেয়া তথ্য হতে আপনি মোবাইল বা টেলিফোন করতে পারেন। নতুবা নিচের লিংক থেকে অনেকগুলো ফোন নম্বর সংগ্রহে রাখতে পারেন।

পেনশন সংক্রান্ত সমস্যা সমাধানের জন্য Help Line

পেনশন কার্যালয়ে যোগাযোগের জন্য সর্বমোট ২১ টি সীম কার্ড বিতরণ!

পেনশন ও জিপিএ ফান্ড ম্যানেজমেন্ট সহজীকরণে সিজিএ এর আলাদা কার্যালয়।

admin

এই ব্লগের কোন পোস্ট নিয়ে বিস্তারিত জানতে বা কোন তথ্য যুক্ত করতে বা সংশোধন করতে চাইলে অথবা কোন আদেশ, গেজেট পেতে এই admin@bdservicerules.info ঠিকানায় মেইল করতে পারেন।

5 thoughts on “পেনশন Active আছে কিনা তা অনলাইনেই চেক করতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.