প্রশিক্ষণ ডি/এ ৩০ দিন হলে নির্ধারণ পদ্ধতি।

ভ্রমণ বিধিমালা-২০১৬ মোতাবেক নিম্নোক্ত সূত্র ধরে শ্রেণী নির্ণয় করে দৈনিক ভাতা বা ডিএ নির্ধারণ করতে হয়। প্রশিক্ষণ ডিএ এর ক্ষেত্রেও নিম্নোক্ত মূল বেতন ধরে দৈনিক ভাতা নির্ধারণ করতে হয়। এখন কথা হচ্ছে যদি কোন ট্রেনিং ১০ দিনের বেশি হয় সেক্ষেত্রে ডিএ নির্ণয় কিভাবে করবেন? তা নিয়েই আজ আলোচনা করবো।


ক-শ্রেণী:

১। মূল বেতন ৭৮,০০০/- টাকা (নির্ধারিত) ও তদূর্ধ। সাধারণ হার: ১৪০০/- টাকা

২। ৭১০০১-৭৭৯৯৯/- টাকা পর্যন্ত। সাধারণ হার ১২২৫/- টাকা।

৩। ৫০০০১-৭১০০০/- টাকা পর্যন্ত। সাধারণ হার: ১০৫০/- টাকা।

৪। ২৯০০১-৫০০০০/- টাকা পর্যন্ত। সাধারণ হার: ৮৭৫/- টাকা।

৫। ২২০০০-২৯০০০/- টাকা পর্যন্ত। সাধারণ হার: ৭০০/- টাকা।

খ-শ্রেণী:

১। ২৯০০০/- টাকার কম মূল বেতন গ্রহণকারী ১০তম গ্রেডের সকল কর্মচারী। সাধারণ হার: ৪৯০/- টাকা।

২। ১৬০০০/- টাকার বা তদূর্ধ মূল বেতন গ্রহণকারী ১১ থেকে ১৬ নং গ্রেডের কর্মচারী। সাধারণ হার: ৪২০/- টাকা।

গ-শ্রেণী:

খ শ্রেণী ব্যতীত সকল ১১ থেকে ১৬ নং গ্রেডের কর্মচারী। সাধারণ হার: ৩৫০/- টাকা।

ঘ-শ্রেণী: ১৭ থেকে ২০ নং গ্রেডের সকল কর্মচারী। সাধারণ হার: ৩০০/- টাকা।

সরকারি চাকুরীজিবীর ভ্রমন ভাতা গেজেট-২০১৬ সংগ্রহে রাখতে পারেন: ডাউনলোড

কিন্তু কোন প্রশিক্ষণ কর্মসূচীতে অংশগ্রহণ কাল যদি ৩০ দিন বা তার অধিক হয় তবে দৈনিক ভাতা সমহারে পাবেন না।

প্রশিক্ষণ ডিএ নির্ধারণের ক্ষেত্রে ৩০ দিন হলে প্রথম ১০ দিন পূর্ণ হারে ডিএ পাবেন এবং পরবর্তী২০ দিন সাধারণ হারের তিন চতুর্থাংশ হারে DA প্রাপ্য হবেন- FR এর SR-৭৩ বিধি।

admin

আমার ব্লগের কোন কন্টেন্ট সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে বা জানাতে ইমেইল করতে পারেন admin@bdservicerules.info ঠিকানায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.