বার্ধক্যজনিত পেনশন নির্ণয়।

গণকর্মচারী (অবসর) আইন, ১৯৭৪ এর ৪ ধারার বিধান অনুযায়ী একজন গণকর্মচারীকে ৫৯ বৎসর বয়স পূর্তিতে এবং ৪ এ ধারার বিধান অনুযায়ী একজন মুক্তিযোদ্ধা গণকর্মচারীকে ৬০ বৎসর বয়স পূর্তিতে অবসরগ্রহণ করিতে হয়। এই অবসরগ্রহণের ক্ষেত্রে বার্ধক্যজণিত পেনশন প্রাপ্য।

উদাহরণ: একজন কর্মচারী ২০/০১/১৯৮৪ খৃ: তারিখে চাকরিতে যোগদান করে। তাঁহার জন্ম তারিখ ২১/০১/১৯৫৬ খৃ:। তাঁহার ২০/০১/২০১৫ খ্রি: তারিখে ৫৯ বৎসর পূর্ণ হওয়ায় সে ২১/০১/২০১৫ তারিখ হইতে ১ (এক) বৎসর পূর্ণ গড় বেতনে অবসর উত্তর ছুটি ভোগ শেষে অবসর গ্রহণ করেন। তিনি চাকরি জীবনে ২ বৎসর অধ্যয়ন ছুটি, ১০ মাস অর্জিত ছুটি এবং ১ বৎসর ৬ মাস অসাধারণ ছুটি ভোগ করেন। অবসরগ্রহণকালে তাঁহার মূল বেতন ছিল ৭১,২০০/- টাকা।

এইক্ষেত্রে তাঁহার মোট চাকরিকাল হইবে (২০/০১/২০১৬-২০/০১-১৯৮৪ = ৩২ বছর। পেনশনযোগ্য চাকরিকাল হইবে (৩২-১ বৎসর ৬ মাস) ৩০ বৎসর ৬ মাস। এই ক্ষেত্রে পেনশনযোগ্য চাকরিকাল ২৫ বৎসরের অধিক হওয়ায় পূর্ণ হারে পেনশন পাইবেন। অর্থাৎ প্রাপ্য মোট পেনশন হইবে (৭১২০০ এর ৯০%) = ৬৪০৮০/- টাকা। মোট পেনশনের ৫০% অর্থাৎ ৩২,০৪০ /- টাকা সমর্পণপূর্বক প্রতি এক টাকার জন্য ২৩০ টাকা হারে (৩২,০৪০*২৩০) = ৭৩,৬৯,২০০/- টাকা আনুতোষিক প্রাপ্য। অবশিষ্ট ৫০% হিসাবে ৩২,০৪০/- টাকা মাসিক পেনশন প্রাপ্য।

প্রশ্নোত্তর পর্ব:

  • প্রশ্ন: ২৫ বছরের উর্ধ্বে চাকরি হলে অসাধারণ ছুটি কোন প্রভাব ফেলে কি?
  • উত্তর: হ্যাঁ ফেলে। যদি অসাধারণ ছুটি বাদ দেওয়ার পর ২৫ বছর পেনশনযোগ্য চাকরিকাল থাকে তাহলে কোন সমস্যা নাই।
Avatar

admin

আমি একজন সরকারি চাকরিজীবী। ভালবাসি চাকরি সংক্রান্ত বিধি বিধান জানতে ও অন্যকে জানাতে। আমার ব্লগের কোন কন্টেন্ট সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে বা জানাতে ইমেইল করতে পারেন alaminmia.tangail@gmail.com ঠিকানায়। ধন্যবাদ আপনাকে ওয়েবসাইটটি ভিজিট করার জন্য।