ভোটার এলাকা স্থানান্তরের জন্য আপনাকে প্রথমেই একটি ফরম পূরণ করতে হবে – জাতীয় পরিচয়পত্র স্থানান্তর প্রক্রিয়া – ভোটার এলাকা পরিবর্তন করার নিয়ম ২০২২

ভোটার মাইগ্রেশন প্রক্রিয়া ২০২২– ভোটার এলাকার নাম ও গ্রামের নাম দুইটা আলাদা হতে পারে। আপনার সঠিক ভোটার এলাকা কোনটি না জানা থাকলে ওয়ার্ড মেম্বর বা এলাকার জনপ্রতিনিধীদের কাছ থেকে আপনার সঠিক ভোটার এলাকা কোনটি নিশ্চিত হয়ে নিবেন। ভোটার এলাকা ভুল হলে বা ৫ নং ক্রমিকে বর্ণিত তথ্যাদি যদি ভুল লিপিবদ্ধ হয় তাহলে সমস্ত কষ্টই বৃথা হয়ে যাবে। কারণ আপনার ভোটার তথ্য ভুল ঠিকানায় স্থানান্তর হয়ে যাবে। তাই যতদুর সম্ভব সাবধানতার সাথে ৫ নং ক্রমিক পূরণ করবেন।

আপনি যে উপজেলার স্থায়ী বাসিন্দা, অর্থাৎ আপনি যে উপজেলায় স্থানান্তরিত হবেন সেই উপজেলার নির্বাচন অফিসে গিয়ে ভোটার এলাকা স্থানান্তর করার জন্য আবেদন করতে হবে। আবেদন ফরমের নাম ১৩ নং স্থানান্তর ফরম। ফরমটি অফিস থেকে সরবরাহ করা হয়ে থাকে, অফিসের সামনে ফটোকপির দোকানেও স্থানান্তর ফরম ১৩ পাওয়া যেতে পারে। ভোটার স্থানান্তরের আবেদন ফরম ২০২২

যদি ইউনিয়নের আওতায় হয় তাহলে চেয়ারম্যানের প্রত্যয়নপত্র লাগবে। পৌরসভা হলে পৌর মেয়র বা ওয়ার্ড কাউন্সিলরের প্রত্যয়নপত্র লাগবে। অর্থাৎ একজন জনপ্রতিনিধী কর্তৃক প্রদত্ত প্রত্যয়নপত্র (যার ক্ষেত্রে যেটি প্রযোজ্য)।

migration_form13.pdf / এক ভোটার এলাকা হইতে অন্য ভোটার এলাকায় ভোটার স্থানান্তরের আবেদন

দুই পৃষ্ঠার ফর্ম প্রথমে সংরক্ষণ করতে হবে এবং পরবর্তীতে প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট যুক্ত করে আবেদন করতে হবে।

এক ভোটার এলাকা হইতে অন্য ভোটার এলাকায় ভোটার স্থানান্তরের আবেদন

Caption: migration_form13.pdf / Download Voter Migraton Form 2022

এনআইড বা ভোটার এলাকা স্থানান্তর করার জন্য করণীয় ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ২০২২

  1. ফরম-১৩ তে আবেদন করতে হবে।
  2. সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড কাউন্সিলর কর্তৃক নাগরিকত্বসনদ। স্বামীর ঠিকানায় স্থানান্তরিত হলে স্বামীর নাম ব্যবহার করে নাগরিকত্ব সনদ দিতে হবে। (ডিওএইচএস এলাকায় বসবাসকারীদের জন্য ডিওএইচএস পরিষদ কর্তৃক নাগরিকত্ব সনদ লাগবে)
  3. আবেদনকারীর জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি।
  4. বর্তমান ঠিকানার স্বপক্ষে সাম্প্রতিক বিদ্যুৎ বিল/গ্যাস/পানির বিলের সত্যায়িত স্পষ্ট ফটোকপি এবং যার নামে বিল তার জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি
  5. হােল্ডিং ট্যাক্স/কর এর রশিদ এর সাম্প্রতিক সত্যায়িত স্পষ্ট ফটোকপি।
  6. ফরমের অপর পৃষ্টায় সনাক্তকারীর জায়গায় সংশ্লিষ্ট কাউন্সিলর এর স্বাক্ষর (সীল ও আইডি নম্বর সহ)। (ডিওএইচএস এলাকায় বসবাসকারীদের জন্য ডিওএইচএস পরিষদ কর্তৃক সনাক্তকারীর জায়গায় স্বাক্ষর, সীল ও আইডি নম্বর উল্লেখ থাকতে।
  7. ফ্ল্যাট নিজের নামে হলে ফ্ল্যাট ক্রয়ের দলিলের সত্যায়িত কপি এবং ভাড়াটিয়া হলে ২০০/- (দুইশত) টাকার স্ট্যাম্পে চুক্তিনামার মূল কপি, বাড়ীওয়ালার জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি ও মােবাইল নম্বর। উল্লেখ্য যে স্থানান্তরের ক্ষেত্রে আপনার ভােটার এলাকা শুধু পরিবর্তন হবে। স্থানান্তরিত ঠিকানায় এনআইডি পেতে হলে অনলাইন ব্যাংকিং এর মাধ্যমে নির্দিষ্ট ফি জমা দিয়ে পুনরায় অত্রাফিসে অথবা অনলাইনে আবেদন করতে হবে।

ভোটার এলাকা স্থানান্তরে জনপ্রতিনিধির স্বাক্ষর নিতে হবে?

হ্যাঁ – আবেদনকারীকে সনাক্তকারীর স্বাক্ষরের স্থানে অবশ্যই একজন জনপ্রতিনিধী দ্বারা স্বাক্ষর করাতে হবে। যে কেউ সনাক্তকারীর স্থানে স্বাক্ষর করলে আবেদন বাতিল হতে পারে। সনাক্তকারী অবশ্যই তার স্বাক্ষর করবেন, এনআইডি নম্বর লিখবেন ও সীল ব্যবহার করবেন।

ভোটার এলাকা স্থানান্তরের ক্ষেত্রে কোন ফি পরিশোধ করতে হয় না।

ভোটার আইডি কার্ড ট্রান্সফার করার নিয়ম ২০২২ । ভোটার স্থানান্তর বা জাতীয় পরিচয়পত্রের বর্তমান ঠিকানা পরিবর্তনে করণীয়

admin

আমি একজন সরকারী চাকরিজীবি। দীর্ঘ ৮ বছর যাবৎ চাকুরির সুবাদে সরকারি চাকরি বিধি বিধান নিয়ে পড়াশুনা করছি। বিএসআর ব্লগে সরকারি আদেশ, গেজেট, প্রজ্ঞাপন ও পরিপত্র পোস্ট করা হয়। এ ব্লগের কোন পোস্ট নিয়ে বিস্তারিত জানতে admin@bdservicerules.info ঠিকানায় মেইল করতে পারেন।

admin has 3023 posts and counting. See all posts by admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *