শিশুর শিক্ষা বীমা ২০২২

জীবন বিকাশ (শিক্ষাবৃত্তি) – শিশুর নিরাপদ শিক্ষা – কেন আপনি শিক্ষা বীমা করাবেন?

শিশুর শিক্ষা বীমা কেন?–আপনার উপার্জনেই আপনার সংসার চলছে কোন কারণে আপনি উপার্জনক্ষম না থাকলে বা আপনি মারা গেলে যেন আপনার শিশুর শিক্ষা গ্রহণ ব্যাহত না হয় সেজন্য একজন আদর্শ অভিভাবক হিসেবে শিক্ষা বীমা করাবেন। যদি আপনি চলমান বীমা কোম্পানিগুলো বিশ্বাস করতে না পারেন তবে আপনি বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ এর নিয়ন্ত্রণে সরকারি বঙ্গবন্ধু শিক্ষা বীমা পরিকল্প গ্রহণ করুন।

শিশুর নিরাপদ শিক্ষা দিতে পারে কোন জন? প্রগতি লাইফের জীবন বিকাশ হতে দুর্দিনের স্বজন। শিক্ষার কোন বিকল্প নেই। আগামী প্রজন্ম যেন ভবিষ্যতের প্রতিযোগিতামূলক পৃথিবীতে নিজেদের স্থান সুদৃঢ় করে নিতে পারে এজন্য উচ্চ শিক্ষার একান্ত প্রয়োজন। কিন্তু শিক্ষকে খরচ যেমন কলেজ ফি, টিউশন ফি দিন দিন যেভাবে বৃদ্ধি পাচ্ছে অভিভাবকরা সন্তানকে পড়াশুনার খরচ নিয়ে দুশ্চিন্তাগ্রস্থ হয়ে পড়ছেন। আমাদের সন্তানদের ভবিষ্যত চিন্তা করে প্রগতি লাইফ এই শিক্ষা বীমা চালু করেছে। এ বীমার মাধ্যমে নিয়মিত সঞ্চয় করে আপনি এ সহজেই আপনার সন্তানের ভবিষ্যত সুনিশ্চিত করতে পারেন এবং নিজেও দুশ্চিন্তা মুক্ত হতে পারেন।

শিক্ষা বীমা- পরিকল্পে মাসিক বৃত্তির ব্যবস্থা থাকায় ছাত্রছাত্রীরা পড়াশুনায় উদ্বুদ্ধ হবে এবং ভাল রেজাল্ট করার চেষ্টা করবে। কোন পরীক্ষায় সন্তান কৃতকার্য হতে ব্যর্থ হলে যতদিন পর্যন্ত না সে উত্তীর্ণ হবে ততদিন পর্যন্ত বৃত্তি প্রদান বন্ধ থাকবে। মাধ্যমিক পরীক্ষার এক বছর আগে দশম শ্রেণীতে মাসিক বৃত্তি প্রদান শুরু হবে ও তা চলবে সর্বোচ্চ ৯ (নয়) বছর। বৃত্তি প্রদান আরম্ভ হওয়ার আগে অথবা পরে যদি কোন কারণে শিশুর পড়াশুনা সম্পূর্ণরূপে বন্ধ হয়ে যায় তবে আর বৃত্তি প্রদান করা হবে না। এমতাবস্থায় অভিভাবক অন্য সন্তানের নামে পলিসিটি পরিবর্তন করতে পারেন। গ্রাহক ইচ্ছা করলে বৃত্তির পরিমাণ বাড়াতে অথবা কমাতে পারেন। প্রিমিয়াম হারও সেই অনুযায়ী পরিবর্তিত হবে।

এক শিশুর মৃত্যু অন্য শিশুকে বীমার স্থানান্তর করা যাবে / শিশুর শিক্ষা সুনিশ্চিত করতে আজই বীমা করে রাখুন।

শিশুর বয়স যখন কম তখনই বীমা করা শ্রেয়। দশম শ্রেণী হতে বীমার সুবিধা পাওয়া যাবে

শিশু শিক্ষা বীমা ২০২২

Caption: Children Education Insurance Scheme 2022

শিক্ষা বীমা কি এককালীন প্রদেয় হতে পারে? হ্যাঁ পারে-

  1. একক প্রিমিয়াম-এ পরিকল্পে একক প্রিমিয়াম প্রদানের সুবিধা রয়েছে। একক প্রিমিয়াম পলিসি গ্রহণ করলে তুলনামূলকভাবে প্রিমিয়াম হার অনেক কম। এছাড়া মােটা অংকর আয়কর রেয়াত পাওয়া যায় এবং একবার মাত্র প্রিমিয়াম প্রদান করতে হয় বলে প্রতি বছর প্রিমিয়াম প্রদানের ঝামেলা থেকে চিন্তামুক্ত হওয়া যায়। বৃত্তি শুরু হওয়ার পূর্বে সন্তানের মৃত্যু হলে প্রিমিয়াম ফেরত দেয়া হবে।
  2. শিশুকে উপহার-নতুন সন্তানের আগমনে অথবা জন্মদিনে যে কেউ এই এক পলিসি উপহার দিতে পারেন। একটি ছেলে অথবা মেয়ের শিক্ষা জীবন সুনিশ্চিত করার মত উপহার আর কি হতে পারে। যে কেউ যে কোন শিশুর জন্য এ পলিসি নিতে পারেন। তবে প্রস্তাবকে নাম অবশ্যই সেই শিশুর বাবা/মা/আইনগত অভিভাবক হতে হবে।
  3. অতিরিক্ত বীমা ঝুঁকি সুবিধা (একক বীমার ক্ষেত্রে প্রযােজ্য নয়)- সামান্য অতিরিক্ত প্রিমিয়াম প্রদানের মাধ্যমে বীমাকৃত নিজের জীবনের উপর মােটা অংকের নাম (সর্বোচ্চ পাঁচ লাখ) টাকা নিতে পারেন। বৃত্তি আরম্ভ হওয়ার আগে এবং ৬০ বছর বয়সে পূর্বে মৃত্যুতেই শুধুমাত্র বীমা ঝুঁকির টাকা প্রদান করা হবে।
  4. প্রতি ইউনিটের জন্য বীমা ঝুকি নেয়া যাবে সর্বোচ্চ ২০,০০০/- টাকা।

উদাহরণঃ ৩৫ বছর বয়স্ক এক ব্যক্তি তার ৮ বছরের সন্তানের জন্য ১০ ইউনিটের শিক্ষাবৃত্তি পলিসি নিলেন। সন্তান দশম শ্রেণীতে উত্তীর্ণ হওয়ার সাথে সাথে বৃত্তি শুরু হবে।

উদাহরণের সাহায্যে বীমা পরিকল্প

যে সকল একক পলিসির মেয়াদ ৬ বছর বা তার অধিক সে সকল পলিসির একক প্রিমিয়াম ৩ অথবা ৫ বার্ষিক কিস্তিতে প্রদান করা যাবে। ৩ অথবা ৫ কিস্তির প্রিমিয়াম নির্ধারণের জন্য সারণীতে প্রদত্ত একক প্রিমিয়ামকে যথাক্রমে ০.৩৬৪ ও ০.২৩৮ দিয়ে গুণ করতে হবে।

অভিভাবক এক/দুই প্রিমিয়াম দেওয়ার পর মৃত্যুবরণ করলে?

মৃত্যুতে প্রতি প্রাপ্য- যদি প্রিমিয়াম প্রদানকালে এবং ৬০ বছর বয়সের পূর্বে প্রিমিয়াম দাতা মারা যান, তাহলে ভবিষ্যতের সমস্ত প্রিমিয়াম মওকুফ হয়ে যাবে এবং মৃত্যু পরবর্তী সময় থেকে সন্তানের দশ” শেণীতে উত্তীর্ণ হওয়া পর্যন্ত প্রতি ইউনিটে মাসিক ১০০/- (একশত) টাকা প্রদান করা হয়। সন্তান দশম শ্রেণীতে উত্তীর্ণ হওয়ার সাথে যথারীতি বৃত্তি প্রদান করা হবে (যদি সন্তান নিয়ম শিক্ষার্থী থাকে)।

বি:দ্র: প্রগতি লাইফ ইন্সুরেন্স এই বীমা করতে হবে এমনটি নয়। এই পোস্ট কোন স্পন্সর পোস্ট নয়। আপনি যে কোন কোম্পানিতে বুঝে শুনে বীমা করুন। 

সূত্র: ডাউনলোড

বঙ্গবন্ধু শিক্ষা বীমা ২০২১

admin

আমি একজন সরকারী চাকরিজীবি। দীর্ঘ ৮ বছর যাবৎ চাকুরির সুবাদে সরকারি চাকরি বিধি বিধান নিয়ে পড়াশুনা করছি। বিএসআর ব্লগে সরকারি আদেশ, গেজেট, প্রজ্ঞাপন ও পরিপত্র পোস্ট করা হয়। এ ব্লগের কোন পোস্ট নিয়ে বিস্তারিত জানতে admin@bdservicerules.info ঠিকানায় মেইল করতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.