সরকারি কর্মচারীদের বেতন গ্রেডভিত্তিক পরিচিতি সাথে পূর্বতন শ্রেণিভিত্তিক পরিচিতির সম্পর্ক স্পষ্টীকরণ করা হয়েছে – সরকারি কর্মচারীদের শ্রেণী নির্ণয় ২০২৩

তৃতীয় শ্রেণীর পদ কোনগুলো? –পূর্বতন ৩য় শ্রেণি হলো গ্রেড-১৩ থেকে গ্রেড-১৬ এর কর্মচারীগণ। তবে ১৩ গ্রেডে যে সমস্ত পদ গেজেটেড পদমর্যাদা সম্পন্ন বলিয়া সরকারি আদেশে (GO) সুনির্দিষ্টভাবে উল্লেখপূর্বক সৃষ্টি করা হয় নাই তারাই কেবল তৃতীয় শ্রেণীর কর্মচারীর অন্তর্ভূক্ত। যদি গেজেটেড হয় তবে সেটি ২য় শ্রেনীর অন্তর্ভূক্ত হবে। গ্রেড বলতে সাবস্টেনটিব গ্রেডকে বুঝানো হয়েছে। ০৩টি সিলেকশন গ্রেড বা টাইম স্কেল পেতে ১০ গ্রেডে অবস্থান করলেও তার মূল গ্রেড ১৩ তাই তিনি নন-গেজেটেড হলে তৃতীয় শ্রেণীর হিসেবে গন্য হইবে।

চাকরি (বেতন ও ভাতাদি) আদেশ, ২০১৫ এর অনুচ্ছেদ ৮ অনুযায়ী “আপাতত বলবৎ এতদসংক্রান্ত অন্য কোন বিধি-বিধানে যাহাই থাকুক না কেন, কর্মচারীগণ ১ম, ২য়, ৩য় ও ৪র্থ শ্রেণিতে বিভাজনের বিদ্যমান ব্যবস্থার পরিবর্তে বেতনস্কেলের গ্রেডভিত্তিক পরিচিত হইবেন।” এ নির্দেশনা অনুযায়ী জাতীয় বেতন স্কেল ২০১৫-এ ১ম, ২য়, ৩য় ও ৪র্থ শ্রেণির পরিবর্তে ২০টি গ্রেডের উল্লেখ করা হয়েছে।

এই পরিবর্তনের ফলে সংশ্লিষ্ট আইন ও বিধি- বিধানেও প্রয়োজনীয় সংশোধনী আনয়নের লক্ষ্যে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের ২২ মে ২০১৬ তারিখের 05.00.0000.170.22.017.16.13২ নং স্মারকের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় কার্যক্রম গ্রহণের জন্য সকল মন্ত্রণালয়/বিভাগকে নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে (কপি সংযুক্ত)।

তবে পূর্ববর্তী বিধি-বিধানের ভিত্তিতে উল্লিখিত ২০টি গ্রেডের মধ্যে পূর্বতন ১ম শ্রেণি হলো গ্রেড-১ থেকে গ্রেড-৯, পূর্বতন ২য় শ্রেণি হলো গ্রেড-১০ থেকে গ্রেড-১৩ [যে সমস্ত পদ ২য় শ্রেণির গেজেটেড পদমর্যাদা সম্পন্ন বলিয়া সরকারি আদেশে (GO) সুনির্দিষ্টভাবে উল্লেখপূর্বক সৃষ্টি করা হয়েছে] এবং পূর্বতন ৩য় শ্রেণি হলো গ্রেড-১৩ [যে সমস্ত পদ গেজেটেড পদমর্যাদা সম্পন্ন বলিয়া সরকারি আদেশে (GO) সুনির্দিষ্টভাবে উল্লেখপূর্বক সৃষ্টি করা হয় নাই] থেকে গ্রেড-১৬ এবং পূর্বতন ৪র্থ শ্রেণি হলো গ্রেড-১৭ থেকে গ্রেড-২০।

২০১৫ সালে জাতীয় বেতন স্কেল জারি হওয়ার পর কর্মচারীদের শ্রেণী বৈষম্য দূর হয়, গ্রেড হিসেবে কর্মচারীগণ পরিচিতি লাভ করে থাকে

যদি গ্রেড হিসেবে পরিচিত হওয়ার কথা কিন্তু ২০১৫ সালের পরও বিভিন্ন সরকারি আদেশে শ্রেণী উল্লেখ করে জারি করা হয়।

সরকারি কর্মচারীদের শ্রেণী নির্ণয় ২০২৩ । গ্রেডের সাথে পূর্বতন শ্রেণি পরিচিতি স্পষ্টীকরণ করা হয়েছে

Caption: source of information

শ্রেণী বা গ্রেড অনুসারে সরকারি কর্মচারীদের বেতন ভাতা । কোন গ্রেডের কর্মচারীদের বেতন কত? 

  1. গ্রেড-১> ৭৮০০০

     

  2. গ্রেড-২> ৬৬০০০
  3.  

    গ্রেড-৩> ৫৬৬০০

  4.  

    গ্রেড-৪> ৫০০০০

  5.  

    গ্রেড-৫> ৪৩০০০

  6.  

    গ্রেড-৬ ৩৫৫০০

  7.  

    গ্রেড-৭> ২৯০০০

  8.  

    গ্রেড-৮> ২৩০০০

  9.  

    গ্রেড-৯> ২২০০০

  10.  

    গ্রেড-১০> ১৬০০০

  11.  

    গ্রেড-১১> ১২৫০০

  12.  

    গ্রেড-১২> ১১৩০০

  13.  

    গ্রেড-১৩> ১১০০০

  14.  

    গ্রেড-১৪> ১০২০০

  15.  

    গ্রেড-১৫> ৯৭০০

  16.  

    গ্রেড-১৬> ৯৩০০

  17.  

    গ্রেড-১৭> ৯০০০

  18.  

    গ্রেড-১৮> ৮৮০০

  19.  

    গ্রেড-১৯> ৮৫০০

  20.  

    গ্রেড-২০> ৮২৫০

৪র্থ শ্রেণীর কর্মচারীদের স্টার্টিং বেতন রেঞ্জ কত?

অফিস সহায়ক, পিয়ন, নিরাপত্তা প্রহরী, মালী, পরিচ্ছন্নতা কর্মী, ইকুইপমেন্ট এডেনডেন্ট, পাম্প চালক, যন্ত্রপরিচর্যাকারী ইত্যাদি পদগুলো ৪র্থ শ্রেণী বা ১৭-২০ গ্রেডের কর্মচারী। চাকরির শুরুতে এদের মূল বেতন ৮২৫০-৯০০০ টাকা পর্যন্ত হয়ে থাকে। বাড়ি ভাড়া, চিকিৎসা ভাতা, শিক্ষা ভাতা, যাতায়াত, টিফিন ও অন্যান্য ভাতা মিলিয়ে তাদের মোট বেতন ১৪০০০ টাকা হতে ১৬০০০ টাকার মধ্যে হয়ে থাকে।

admin

আমি একজন সরকারী চাকরিজীবি। দীর্ঘ ৮ বছর যাবৎ চাকুরির সুবাদে সরকারি চাকরি বিধি বিধান নিয়ে পড়াশুনা করছি। বিএসআর ব্লগে সরকারি আদেশ, গেজেট, প্রজ্ঞাপন ও পরিপত্র পোস্ট করা হয়। এ ব্লগের কোন পোস্ট নিয়ে বিস্তারিত জানতে admin@bdservicerules.info ঠিকানায় মেইল করতে পারেন।

admin has 3022 posts and counting. See all posts by admin

3 thoughts on “সরকারি কর্মচারীদের শ্রেণী নির্ণয় ২০২৩ । গ্রেডের সাথে পূর্বতন শ্রেণি পরিচিতি স্পষ্টীকরণ করা হয়েছে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *