সরকারি যে কোন লাইসেন্স বা ডকুমেন্ট পাইতেই পুলিশ ভেরিফিকেশন হয়– Police verification is required for nurse recruitment– সরকারি পুলিশ ভেরিফিকেশন ২০২২

চাকরিতে যোগদানের পূর্বে পুলিশ ভেরিফিকেশন ২০২২ – সরকারি কর্মচারী হাসপাতালের ‘সিনিয়র স্টাফ নার্স’ (১০ম গ্রেড) পদে নিয়োগের জন্য সাময়িকভাবে সুপারিশকৃত প্রার্থীদের “প্রাক চাকরি বৃত্তান্ত যাচাই ফরম” দাখিলকরণ নির্দেশনা দিয়েছে। কোন কোন চাকরিতে যোগদানের পর পুলিশ ভেরিফিকেশ হয় আবার কোন কোন চাকরিতে যোগদানের পূর্বেই পুলিশ ভেরিফিকেশন হয়।

সাধারণত চাকুরি, পাসপোর্ট, লাইসেন্স বা অন্য কোনো প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রে অবদানকারী প্রদত্ত তথ্যাদি সঠিক আছে কি না তা পুলিশ কর্তৃক যাচাই করাকে ভেরিফিকেশন বা সত্যতা প্রতিপাদন বলে। ভেরিফিকেশনকালে প্রার্থীর প্রদত্ত তথ্যাদির সত্যতা যাচাইয়ের পাশাপাশি প্রার্থরি চারিত্রিক ও সামাজিক অবস্থান সম্পর্কেও তথ্য নেওয়া হয়।

পুলিশ ভেরিফিকেশনে কি কি কাগজপত্র যোগ করে দিতে হবে? আবেদন ফরম পূরণ করে এনআইডি, নিয়োগপত্র, এস.এস.সি পাশের স্কুল সার্টিফিকেট ও প্রশংসাপত্র, ইউনিয়ন পরিষদ পরিচয়পত্র, চাকরিতে যোগদানপত্র ইত্যাদি যুক্ত করে দিতে হবে। ক্ষেত্র বিশেষে প্রযোজনীয় কাগজপত্র যুক্ত করে দিতে হবে।

কর্তৃপক্ষ পুলিশ ভেরিফিকেশন করবে গোয়েন্দা সংস্থার মাধ্যমেই / পুলিশ ভেরিফিকেশন ২০২২

আপনার জেলা বিশেষ শাখায় কথা বলে রাখুন।

সরকারি কর্মচারী হাসপাতালের 'সিনিয়র স্টাফ নার্স' (১০ম গ্রেড) পদে নিয়োগের জন্য সাময়িকভাবে সুপারিশকৃত প্রার্থীদের "প্রাক চাকরি বৃত্তান্ত যাচাই ফরম" দাখিলকরণ।

পুলিশ ভেরিফিকেশন ফরম ২০২২

চাকরি ছাড়াও বিভিন্ন ক্ষেত্রে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স বা ভেরিফিকেশন পাওয়ার নিয়ম ২০২২

  1. প্রার্থীর বর্তমান ও স্থায়ী দু’টি ঠিকানাই বাংলাদেশ পুলিশের আওতাধীন হতে হবে। অর্থাৎ যেকোনো মেট্রোপলিটন পুলিশ অথবা জেলা পুলিশের এখতিয়ারভুক্ত অঞ্চলে প্রার্থীর বাড়ি হলে শুধু তবেই তিনি পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট পেতে পারেন।
  2. এম আর পি অর্থাৎ মেশিন রিডেবল পাসপোর্টে যদি ঠিকানা উল্লিখিত না থাকে তবে ঠিকানা প্রমাণের জন্য জাতীয় পরিচয় পত্র / জন্ম নিবন্ধন সনদ / ওয়ার্ড কাউন্সিলর এর সনদ পত্রের একটি ফটোকপি দাখিল করতে হবে। এক্ষেত্রে ফটোকপিটি অবশ্যই ১ম শ্রেণীর সরকারি গেজেটেড কর্মকর্তা কর্তৃক সত্যয়িত করা থাকতে হবে।
  3. যেই পাসপোর্ট নম্বরটি দিয়ে পুলিশ ভেরিফিকেশনের জন্য আবেদন করবেন তা অবশ্যই অব্যাবহৃত হতে হবে। একই নম্বর দিয়ে পূর্বে ভেরিফিকেশনের চেষ্টা করা হলে তা ধরা পড়বে ও আবেদন গৃহীত হবে না। এছাড়া আগের আবেদনের ড্রাফট কপি থাকলেও আবেদন করতে পারবেন না। এক্ষেত্রে আগের ড্রাফট আবেদনটি ডিলিট করে নতুন আবেদন করুন। অপাগারতায় পুলিশ হেল্প লাইনের সাহায্য নিন।
  4. বিদেশে থাকলেও পুলিশ ভেরিফিকেশন করা সম্ভব। সেক্ষেত্রে ঐ বাংলাদেশী নাগরিককে তিনি যেই দেশে থাকেন সেই দেশের দূতাবাস অথবা কমিশনের সাহায্যে নিজের পাসপোর্টের তথ্য পাতার সত্যায়িত কপি দাখিল করতে হবে।

কত দিনের মধ্যে নার্সদের পুলিশ ভেরিফিকেশনের কাগজপত্র প্রেরণের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে?

সররকারি কর্মচারী হাসপাতাল, ফুলবাড়িয়া, ঢাকা এর সিনিয়র স্টাফ নার্স’ (১০ম গ্রেড) পদে নিয়ােগের জন্য বাংলাদেশ সরকারী কর্ম কমিশন কর্তৃক সূত্রোক্ত স্মারকে সাময়িকভাবে সুপারিশকৃত ৪৯ (উনপঞ্চাশ) জন প্রার্থীর প্রাক চাকরি বৃত্তান্ত যাচাই এর নিমিত্ত এদতসংগে সংযুক্ত ‘প্রাক চাকরি বৃত্তান্ত যাচাই ফরম (পুলিশ ভেরিফিকেশন ফরম) নিজ হাতে পূরণপূর্বক প্রয়ােজনীয় কাগজপত্রসহ বিজ্ঞপ্তি প্রাপ্তির ০৭ (সাত) কর্মদিবসের মধ্যে এ মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকল প্রার্থীকে অনুরােধ করা হয়েছে।

সরকারি পুলিশ ভেরিফিকেশন ২০২২ । সিনিয়র স্টাফ নার্স পদে নিয়োগের “প্রাক চাকরি বৃত্তান্ত যাচাই ফরম” দাখিলকরণ নির্দেশনা: ডাউনলোড

সরকারি চাকরির পুলিশ ভেরিফিকেশন ফরম । Police Verification করার নিয়ম ২০২২

admin

আমি একজন সরকারী চাকরিজীবি। দীর্ঘ ৮ বছর যাবৎ চাকুরির সুবাদে সরকারি চাকরি বিধি বিধান নিয়ে পড়াশুনা করছি। বিএসআর ব্লগে সরকারি আদেশ, গেজেট, প্রজ্ঞাপন ও পরিপত্র পোস্ট করা হয়। এ ব্লগের কোন পোস্ট নিয়ে বিস্তারিত জানতে admin@bdservicerules.info ঠিকানায় মেইল করতে পারেন।

admin has 3023 posts and counting. See all posts by admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *