জিপিএফ অগ্রিম পরিশোধে সর্বোচ্চ ও সর্বনিম্ন কিস্তির পরিমান নির্ধারণ।

অফেরতযোগ্য অগ্রিম ব্যতীত অন্যান্য অগ্রিমের যে সংখ্যক কিস্তি মঞ্জুরকারী কর্তৃপক্ষ নির্ধারণ করিতে সেই পরিমান কিস্তিই পরিশোধ করতে হবে। তবে চাঁদা দাতার ইচ্ছায় এ কিস্তির সংখ্যা নির্ধারণ করা হয়।

  • কিস্তির সংখ্যা কোন ক্রমেই ১২ এর নিচে হবে না  কোন ক্রমেই সর্বোচ্চ ৫০ এর বেশি হইবে না।
  • সাধারণ ৫২ বছরের বয়সের নিম্ন বয়সের কর্মচারীরা অফেরৎযোগ্য অগ্রিম গ্রহণ করিতে পারিবে না।সর্বোচ্চ একাধারে ০৩ টি অগ্রিম মঞ্জুর করা যাইবে। এর অধিক মঞ্জুর করতে হলে সরকারের আদেশ প্রয়োজন পড়বে।
  • জমাকৃত অর্থের ৭৫% শতাংশ অগ্রিম হিসাবে গ্রহণ করা যাইবে।
  • সাধারণত অগ্রিমের কিস্তি পরিশোধের পর ০১ কিস্তি সুদ হিসাবে কর্তনযোগ্য তবে ক্ষেত্রে বিশেষে ০১ কিস্তি কর্তন হতে বিরত থাকা যায়।
  • ঘর-বাড়ি নির্মান, চিকিৎসা, শিক্ষার জন্য, বিবাহ, অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া, দেনমোহর, গৃহ মেরামত ইত্যাদি কারণে এ অগ্রিম গ্রহণ করা যায়।

বিস্তারিত জানতে সাধারণ ভবিষ্য তহবিল বিধিমালা, ১৯৭৯ দেখুন: ডাউনলোড

Avatar

admin

আমি একজন সরকারি চাকরিজীবী। ভালবাসি চাকরি সংক্রান্ত বিধি বিধান জানতে ও অন্যকে জানাতে। আমার ব্লগের কোন কন্টেন্ট সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে বা জানাতে ইমেইল করতে পারেন alaminmia.tangail@gmail.com ঠিকানায়। ধন্যবাদ আপনাকে ওয়েবসাইটটি ভিজিট করার জন্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published.