বার্ষিক গোপনীয় প্রতিবেদন বা ACR খারাপ বা বিরুপ মন্তব্য দিলে কি হয়।

সরকারি চাকুরীজিবীর বার্ষিক গোপনীয় প্রতিবেদন একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। অসৎ আচরণ বা চাকুরীর বিধিমালা লঙ্গন করিলে এসিআর খারাপ দেয়া হয়।

সারসংক্ষেপ:

  • ACR দাতা বা অনুবেদনকারী বিরুপ মন্তব্য বা এসিআর খারাপ দিলে চাকুরি
  • স্থায়ীকরণ হয় না।
  • সিলেকশন গ্রেড প্রদান বন্ধ থাকে।
  • পদোন্নতি স্থগিত থাকে।
  • পদায়ন বন্ধ থাকে।
  • বৈদেশিক নিয়োগ বাধাগ্রস্থ হইবে।

আরও বিস্তারিত জানুন:

বিরুপ মন্তব্যের গুরুত্ব:

অনুবেদনাধীন কর্মকর্তার বিরূদ্ধে বিরূপ মন্তব্য বহাল থাকিলে বিরূপ মন্তব্যের গুরুত্বানুসারে চাকরি স্থায়ীকরণ, সিলেকশন গ্রেড প্রদান, পদোন্নতি, পদায়ন, বৈদেশিক নিয়োগ বাধাগ্রস্থ হইবে/স্থগিত থাকিবে।

বিরূপ মন্তব্য প্রদানের পূর্বে অনুবেদেনকারী/ প্রতিস্বাক্ষরকারী কর্তৃপক্ষের করণীয়:

অনুবেদনকারী/ প্রতিস্বাক্ষরকারী কর্তৃপক্ষ কর্তৃক অনুবেদনাধীন কর্মকর্তাকে তাঁহার দায়িত্ব ও কর্তব্য সম্পর্কে অব্যাহতভাবে মৌখিক /লিখিত নির্দেশনা ও পরামর্শ প্রদান আবশ্যকীয় কর্তব্য।

এই ক্ষেত্রেত প্রথমে অনুবেদনাধীন কর্মকর্তার আচরণ বা কার্যধারায় কোন ত্রুটি পরিলক্ষিত হইলে অনুবেদনকারী /প্রতিস্বাক্ষকারী কর্তৃপক্ষ তাৎক্ষণিকভাবে তাঁহাকে প্রথমে মৌখিকভাবে সংশোধনের পরামর্শ প্রদান করিবেন।

মৌখিক পরামর্শে সংশোধন না হইলে লিখিতভাবে সংশোধনের জন্য আদেশ করিবেন। উক্ত পত্রের অনুলিপি আবশ্যিকভাবে কর্মকর্তাদের ব্যক্তিগত নথিতে সংরক্ষণ করিতে হইবে এবং ডোসিয়ার সংরক্ষণকারী কর্তৃপক্ষকে অনুলিপি প্রদানপূর্বক  অবহিত রাখিতে হইবে।

গোপনীয় প্রতিবেদন অনুশাসনমালা দেখুন: ডাউনলোড

Avatar

admin

আমি একজন সরকারি চাকরিজীবী। ভালবাসি চাকরি সংক্রান্ত বিধি বিধান জানতে ও অন্যকে জানাতে। আমার ব্লগের কোন কন্টেন্ট সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে বা জানাতে ইমেইল করতে পারেন alaminmia.tangail@gmail.com ঠিকানায়। ধন্যবাদ আপনাকে ওয়েবসাইটটি ভিজিট করার জন্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published.