স্বেচ্ছায় অবসরে যাওয়ার নিয়ম ২০২৩ । চাকরি ছেড়ে গেলেও পাওয়া যাবে পেনশন?

সরকারি চাকরিতে চাকরির বয়স ২৫ বছর পূর্ণ হতে হবে অথবা আপনার বয়স ৫৯ বছর পূর্ণ হতে হবে – স্বেচ্ছায় অবসরে যাওয়ার নিয়ম ২০২৩

পেনশন ও গ্র্যাচুইটির হিসাব বের করার সহজ  পদ্ধতি কি? পেনশন শব্দটির নাম শুনলেই বাংলা ব্যান্ড আয়ুব বাচ্চুর পেনশন গানটির কথা মনে পড়ে।তাছাড়া আমরা বিভিন্ন নাটক, সিনেমায় পেনশন উত্তলনের ভোগান্তি দেখেছি। এত কাঠ কয়লা পুড়েও যদি অবশেষে আপনার শেষসম্বল টুকু হাতে সঠিক না পান কেমন লাগবে?তাই আজ আমরা ল্যাম্পগ্রান্ট, গ্র্যাচুইটি ও পেনশনের হিসাব নেয়ে আলোচনা করবো।

কিভাবে বের করবেন ল্যাম্পগ্রান্ট, গ্র্যাচুইটি ও পেনশনের হিসাব ? অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থ বিভাগের ২৩/১২/২০১৩ তারিখে নং-০৭.০০.০০০০.১৭১.১০.০০৬.১৫-১৮১, স্মারকমূলে জারিকৃত প্রজ্ঞাপনে সরকারি চাকুরিজীবীদের অবসরকালীন সুবিধাদি/প্রাপ্যতা তথা পেনশনযোগ্য চাকুরিকাল ও পেনশনের পরিমান পূণঃনির্ধারণ করা হয়েছে। পূর্বেকার পেনশন যোগ্য চাকুরিকাল ১০-২৫ বছরের পরিবর্তে ৫-২৫ বছর এবং পেনশনের হার সর্বশেষ আহরিত মূলবেতনের৮০% এর স্থলে ৯০% -এ উন্নীত করা হয়েছে। ফলে বর্তমানে চাকুরীকাল ৫ বছর হলেই আপনি পেনশনের আওতায় আসবেন। পূর্বে চাকুরীকাল ১০ বছর না হলে পেনশনের আওতায় আসতো না।

বাধতামূলকভাবে সমর্পিত আনুতোষিকের হার (টাকায়) অর্থ মন্ত্রণালয়ের ২৩/১২/২০১৩ তারিখের ০৭.০০.০০০০.১৭১.১৩.০২৭.১৩-১৬০ সংখ্যক স্মারকের প্রজ্ঞাপন মোতাবেক পেনশন সুবিধার আওতাভুক্ত অবসর গ্রহনকারী চাকুরে কিংবা মৃত্যবরণকারী চাকুরের পরিবারের জন্য বাধ্যতামুলক সমর্পিত অর্ধেক(৫০%) গ্রস পেনশনের প্রতি ১(এক) টাকার বিপরীতে আনুতোষিকের হার নিম্নরুপভাবে পূণঃ নির্ধারণ করা হয়েছে। পেনশনযোগ্য চাকুরীকাল ৫ বছর বা ততোধিক কিন্তু ১০ বছরের কম। ২৬৫ টাকা (পূর্বে ছিল না।১/৭/২০১৫ হতে পেনশন যোগ্য চাকরিকাল নতুন সংযোজন করা হয়েছে)। পেনশনযোগ্য চাকুরীকাল ১০ বছর বা ততোধিক কিন্তু ১৫ বছরের কম ২৬০ টাকা (পূর্বের হার ২৩০ টাকা)। পেনশনযোগ্য চাকুরীকাল ১৫ বছর বা ততোধিক কিন্তু ২০ বছরের কম ২৪৫ টাকা (পূর্বের হার ২১৫ টাকা)। পেনশনযোগ্য চাকুরীকাল ২০ বছর বা ততোধিক ২৩০টাকা (পূর্বের হার ২০০ টাকা)।

স্বেচ্ছায় সমর্পিত অবশিষ্ট আনতোষিক- গ্রস পেনশনের অবশিষ্ট অর্ধেক (৫০%) একসাথে সমর্পণকারী অবসরভোগীগণ উপরে বর্নিত হারের অর্ধেক হারে আনুতোষিক প্রাপ্য হতেন।যা ১ জুলাই, ২০১৭ হতে বন্ধ করা হয়েছে। ল্যামগ্রান্ট হিসাব নির্ধারণের পদ্ধতিঃ চাকুরিতে সর্বশেষ মূলবেতন x চাকুরিতে অর্জিত ছুটি (সর্বোচ্চ ১৮ মাস) = মোট টাকা। আনুতোষিক নির্ধারণের পদ্ধতিঃ সর্বশেষ মূলবেতন x সর্বমোট চাকুরির জন্য পেনশনের নির্ধারিত হার (%) ÷ ২ x আনুতোষিকের নির্ধারিত হার = মোট টাকা। পেনশন নির্ধারণের পদ্ধতিঃ সর্বশেষ মূলবেতন x সর্বমোট চাকুরির জন্য পেনশনের নির্ধারিত হার (%) ÷ ২ = মোট টাকা।

এবার পেনশন ও গ্রাচুইটি হিসাবের পালা- উদাহরণ-১ জাহিদ সাহেবের জন্ম তারিখ ০১/০৬/১৯৫৮, তিনি ১৪/১২/১৯৯০ খ্রিঃ তারিখে চাকরিতে যোগদান করেছেন।তিনি ০১/০৬/২০১৮ তারিখে অবসর গমন করবেন।তার মূলবেতন ৩৪০১০/- তিনি মোট চাকরি করেছেন ২৭ বছর ৫ মাস ১৭ দিন।তিনি বিনাবেতনে কোন ছুটি ভোগ করেননি।তাহলে তার প্রাপ্য আনুতোষিক ও মাসিক পেনশন কত হবে? জাহিদ সাহেব মোট পেনশনের কত শতাংশ পাবেন? সুত্রটিঃ সর্বশেষ মূলবেতন x সর্বমোট চাকুরির জন্য পেনশনের নির্ধারিত হার (%) ÷ ২ = মোট টাকা। সুতরাং তার প্রাপ্য পেনশন = (৩৪০১০ x ৯০%) ÷ ২ টাকা = ৩০৬০৯ ÷ ২ টাকা = ১৫৩০৪.৫ টাকা

জাহিদ সাহেবে কত টাকা এককালিন ল্যাম্পগ্রান্ট পাবেন? চাকুরিতে সর্বশেষ মূলবেতন x অর্জিত ছুটি (১৮ মাস) টাকা সুতরাং ল্যাম্পগ্রান্ট পাবেন = ৩৪০১০ x ১৮ টাকা = ৬,১২,১৮০ টাকা। জাহিদ সাহেবে কত টাকা এককালিন আনুতোষিক পাবেন? (বেসিক বেতন x শতকরা হার) ÷ ২ x বাধ্যতামুলক সমর্পিত অনুতোষিক সুতরাং-আনুতোষিক [(৩৪০১০ x ৯০%) ÷ ২] x ২৩০ = [৩০৬০৯ ÷ ২] x ২৩০ = ১৫৩০৪.৫ x ২৩০ = ৩৫,২০,০৩৫ টাকা ৪. তিনি প্রতি মাসে কত টাকা পেনশন পাবেন? (বেসিক বেতন x শতকরা হার) ÷ ২ + চিকিৎসা ভাতা সুতরাং মাসিক পেনশন প্রাপ্য = [(৩৪০১০ x ৯০%) ÷ ২] + ১৫০০ টাকা  = [৩০৬০৯ ÷ ২] + ১৫০০ টাকা = ১৫৩০৪.৫ + ১৫০০ টাকা = ১৬৮০৪.৫ টাকা। ব্যাখ্যাঃ ৬৫ বছরের উর্ধ্বে পেনশনারদের মাসিক চিকিৎসা ভাতা ২৫০০ টাকা (০১/০৭/২০১৬ তারিখ হতে কার্যকর হয়েছে)। পরবর্তীতে চাকরিরত অবস্থায় একজন মৃত্যুবরণকারী ও চাকরিতে স্থায়ীভাবে অক্ষম চাকরিজীবীর পেনশন হিসাব সংযোজন করা হবে।

স্বেচ্ছায় পদত্যাগেও পেনশন পাবেন সরকারি চাকরিজীবীরা । অক্ষমতা জনিত অবসর । ৫ বছর চাকরিতে পেনশন । গণকর্মচারী অবসর আইন ১৯৭৪

সরকারি চাকরি থেকে ‘পদত্যাগ’ করলে চাকরি বাজেয়াপ্ত হবে (পেনশন সুবিধা না পাওয়াসংক্রান্ত)—বাংলাদেশ সার্ভিস রুলসের (বিএসআর) এ–সংক্রান্ত বিধির অংশবিশেষ অসাংবিধানিক ঘোষণা করে রায় দিয়েছেন হাইকোর্ট। তবে পরবর্তী সরকার এ ব্যাপারে কোন প্রজ্ঞাপন বা গেজেট জারি করেনি।

২৫ বছরের আগে পেনশন নয়

চাকরি ২৫ বছর পূর্ণ হওয়ার পূর্বে স্বেচ্ছায় অবসর সুযোগ নেই

সরকারি চাকুরিজীবিদের পেনশন ২০২৩ । চাকুরীকাল অনুযায়ী পেনশনের হার বা তালিকা দেখুন

  1. চাকুরীকাল ৫ বছর হলে ২১%, প্রাপ্ত হবেন।
  2. চাকুরীকাল ৬ বছর হলে ২৪%, প্রাপ্ত হবেন।
  3. চাকুরীকাল ৭ বছর হলে ২৭%, প্রাপ্ত হবেন।
  4. চাকুরীকাল ৮ বছর হলে ৩০%, প্রাপ্ত হবেন।
  5. চাকুরীকাল ৯ বছর হলে ৩৩% শতাংশ প্রাপ্ত হবেন।
  6. চাকুরীকাল ১০ বছর হলে ৩৬%, আগের হার ছিল ৩২%।
  7. চাকুরীকাল ১১ বছর হলে ৩৯%, আগের হার ছিল ৩৫%।
  8. চাকুরীকাল ১২ বছর হলে ৪৩%, আগের হার ছিল ৩৮%।
  9. চাকুরীকাল ১৩ বছর হলে ৪৭%, আগের হার ছিল ৪২%।
  10. চাকুরীকাল ১৪ বছর হলে ৫১%, আগের হার ছিল ৪৫%।
  11. চাকুরীকাল ১৫ বছর হলে ৫৪%, আগের হার ছিল ৫৮%।
  12. চাকুরীকাল ১৬ বছর হলে ৫৭%, আগের হার ছিল ৫১%।
  13. চাকুরীকাল ১৭ বছর হলে ৬৩%, আগের হার ছিল ৫৪%।
  14. চাকুরীকাল ১৮ বছর হলে ৬৫%, আগের হার ছিল ৫৮%।
  15. চাকুরীকাল ১৯ বছর হলে ৬৯%, আগের হার ছিল ৬১%।
  16. চাকুরীকাল ২০ বছর হলে ৭২%, আগের হার ছিল ৬৪%।
  17. চাকুরীকাল ২১ বছর হলে ৭৫%, আগের হার ছিল ৬৭%।
  18. চাকুরীকাল ২২ বছর হলে ৭৯%, আগের হার ছিল ৭০%।
  19. চাকুরীকাল ২৩ বছর হলে ৮৩%, আগের হার ছিল ৭৪%।
  20. চাকুরীকাল ২৪ বছর হলে ৮৭%, আগের হার ছিল ৭৭%।
  21. চাকুরীকাল ২৫ বছর হলে ৯০%, আগের হার ছিল ৮০%।

চাকরি ছেড়ে গেলেও পাওয়া যাবে পেনশন?

না। আপনি কেবল মাত্র ২৫ বছর পূর্ণ করেই পেনশনে স্বেচ্ছায় যেতে পারবেন। নতুন বেতন কাঠামো অনুযায়ী পাঁচ বছর চাকরি করলেই পেনশন পাবেন তবে আপনি যদি আহত হয়ে চাকরি করতে অযোগ্য ঘোষিত হউন বা মারা যান তবে আপনার পরিবার ৫-২৪ বছর চার্ট মোতাবেক পাবেন। রাগ করে যে কোন সময় চাকরি ছাড়লে সরকারি কোন সুবিধাই পাবেন না। এছাড়া অর্জিত ছুটি দিয়ে পিআরএলের সময়ও ১২ মাস এবং ১৮ মাসের লাম্পগ্র্যান্ট পান। কর্মচারীর বয়স ৫৯ বছর পূর্ণ হলেও পিআরএল শুরু হয়।

সবাই যে বলে চাকরি ৫ বছর হলেই পেনশন পাওয়া যায়? ৫ হতে ২৪ বছরের চাকুরিকাল তখনই পেনশনের যোগ্য হবে যখনঃ) একজন কর্মচারী মৃত্যুবরণ করলে কিংবা সরকার কর্তৃক গঠিত মেডিক্যাল বোর্ড দ্বারা (শারীরিক ও মানসিক বৈকল্যের কারণে) স্থায়ীভাবে অক্ষম (Invalid) ঘোষিত হলে এবং স্থায়ী পদ বিলুপ্তির কারণে চাকুরি হতে ছাঁটাইয়ের ক্ষেত্রে। (অর্থ মন্ত্রণালয়ের ১৪/১০/২০১৫ তারিখের ০৭.০০.০০০০.১৭১.১৩.০০৬.১৫-৮১ সংখ্যক স্মারকের প্রজ্ঞাপন মোতাবেক আপগ্রেড করা হয়েছে।)

অবসর ও পেনশন । সরকারি চাকরিতে কত বছরে কত পাওয়া যায়? সরকারি পেনশন VS সর্বজনীন পেনশন । পেনশন দুটির মধ্যে মোটাদাগে পার্থক্য কি কি? সর্বজনীন পেনশন কর্তৃপক্ষ চাকরি বিধিমালা ২০২৩ । চেয়ারম্যানের মাসিক বেতন সাড়ে তিন লক্ষ টাকাসহ গাড়ি ও মোবাইল সুবিধা
সর্বজনীন পেনশন ২০২৩ । সরকারি কর্মচারীদের প্রচলিত পেনশন কি বাতিল হবে? Upension gov bd । সর্বজনীন কত টাকা জমা দিলে কত টাকা পেনশন? সর্বজনীন পেনশন ২০২৩ । চাঁদা প্রদান পদ্ধতি, পেনশন উত্তোলন ও হার তালিকা দেখুন
সর্বজনীন পেনশন ২০২৩ । সুরক্ষা স্কীমে ৫০০০ টাকা চাঁদায় মাসিক ১,৭২,৩২৭ টাকা? আনুতোষিক বন্টন নিয়ম । একাধিক স্ত্রীর ক্ষেত্রে আনুতোষিক ও পেনশন বন্টন পদ্ধতি দেখে নিন বিজিবি বাবুর্চি বেতন ভাতাদি । বাবুর্চি পদে কি পেনশন পাওয়া যায়?

admin

আমি একজন সরকারী চাকরিজীবি। দীর্ঘ ৮ বছর যাবৎ চাকুরির সুবাদে সরকারি চাকরি বিধি বিধান নিয়ে পড়াশুনা করছি। বিএসআর ব্লগে সরকারি আদেশ, গেজেট, প্রজ্ঞাপন ও পরিপত্র পোস্ট করা হয়। এ ব্লগের কোন পোস্ট নিয়ে বিস্তারিত জানতে admin@bdservicerules.info ঠিকানায় মেইল করতে পারেন।

admin has 3003 posts and counting. See all posts by admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *