LPC দেওয়া Accounts অফিস হইতে নতুন কোন বিল প্রদান নয়।

ট্রেজারি রুলস এর তিনটি বিধি নিয়ে আলোচনা করা হইল, ট্রেজারি রুলস বেতন ভাতাদি প্রদানের ব্যাপারে নিয়ম কানুন জারি করে। এক্ষেত্রে এসব রুলস জানা থাকলে হিসাবরক্ষণ অফিসের চাহিত তথ্যাদি প্রদানে স্বচেষ্ট হওয়া যায়।

১। কোন দাবি প্রদানযোগ্য কিনা এই ব্যাপারে সন্দেহের অবকাশ থাকিলে সিদ্ধানের জন্য বিষয়টি মহাহিসাব নিয়ন্ত্রেকের নিকট প্রেরণ করিতে হইবে। (টিআর-১৮)

২। নিরীক্ষা অফিস বিলের আংশিক শুদ্ধতা যাচাইপূর্বক আংশিক ভুল সংশোধন করিতে পারিবেন। তবে এই  সংশোধনের বিষয়টি ডি, ওকে অবগত করাইবেন। (টি,আর-২৬ ও টি,এস,আর-১৩৬)।

৩। সদ্য নিয়োগপ্রাপ্ত বা পুন নিয়োগপ্রাপ্ত বা পুন:নিয়োগপ্রাপ্ত কর্মচারী ব্যতীত অন্য কোন কর্মচারীকে কোন বেতনের প্রত্যয়নপত্র (এল,পি,সি) ব্যতিরেকে কোন প্রকার বিল প্রদান করা যাইবে না এবং এল,পি,সি প্রদানের পত্র এল,পি,সি প্রদানকৃত অফিস হইতে সংশ্লিষ্ট কর্মচারীকে আর কোন বিল প্রদান করা যাইবে না। যদি না এল,পি,সি পুন:সমর্পণ (সারেন্ডার) করা হয়। আর এল,পিসি, সংগ্রহের দায়িত্ব সর্বদাই সংশ্লিষ্ট কর্মচারীর। অঘোষিত কর্মচারীদের এল,পি,সি অফিস প্রধান স্বাক্ষর করিবেন।

এই ক্ষেত্রে এ,পি,সিতে নিরীক্ষা অফিসের প্রতিস্বাক্ষরের প্রয়োজন নাই। অফিস প্রধান নিজে অঘোষিত কর্মচারী হইলে তিনি তাহার নিজের এল,পি,সি স্বাক্ষর করিতে পারিবেন না। এইক্ষেত্রে তাহার ঊর্ধ্বতন কোন ঘোষিত কর্মকর্তা এল,পি,সি স্বাক্ষর করিবেন। আর সদ্য নিয়োগপ্রাপ্ত অথবা পদত্যঅগের পর পুন:নিয়োগপ্রাপ্ত কর্মচারীকে স্বাস্থ্যগত প্রত্যয়নপত্র দাখিল ব্যতিরেকে প্রথমবারের মতো বিল প্রদান করা যাইবে না এবং কর্মচারীটি ঘোষিত কর্মচারী হইলে বিল প্রদানের ব্যাপারে নিরীক্ষা অফিসেরও আদেশ প্রয়োজন হইবে। (টি,আর-২৩:এস,আর-১৭০ ও ১৭১)

admin

এই ব্লগের কোন পোস্ট নিয়ে বিস্তারিত জানতে বা কোন তথ্য যুক্ত করতে বা সংশোধন করতে চাইলে অথবা কোন আদেশ, গেজেট পেতে এই admin@bdservicerules.info ঠিকানায় মেইল করতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.