প্রাথমিকের প্রধান শিক্ষকগণের ৫০ দিন পর্যন্ত বহিঃ বাংলাদেশ ছুটি মঞ্জুর ক্ষমতা বিকেন্দ্রীকরণ ২০২২

প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকগণের পদমর্যাদা ৩য় শ্রেণি থেকে ২য় শ্রেণিতে উন্নীতকরণপূর্বক বেতনস্কেল ১১ নং গ্রেড ও ১২ নং গ্রেডে উন্নীত

কর্মকর্তাগণের বর্হিবাংলাদেশ ছুটি আবেদন নিষ্পত্তি সহজীকরণ।

জেলা প্রশাসক, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার ও বিভাগীয় কমিশনারের বর্হিবাংলাদেশ ছুটির আবেদন বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয় হতে ই-নথির মাধ্যমে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ

বাংলাদেশ চাকরি (বিনোদন ভাতা) বিধিমালা, ১৯৭৯

সংবিধানের ১৩৩ অনুচ্ছেদের ক্ষমতাবলে রাষ্ট্রপতি এই উদেদ্শ্যে প্রণীত ও জারিকৃত সকল বিধি, আদেশ ও বিজ্ঞপ্তি রহিত করিয়া বিধিমালাটি প্রণয়ন করেন।

বিনোদন ভাতা মঞ্জুরীর বিষয়ে কর্মচারীর জ্যেষ্ঠতা।

বিনোদন ভাতা মঞ্জুরীর ক্ষেত্রে জ্যেষ্ঠতা কি পদ্ধতিতে নির্ধারিত হইবে? বিষয়টি পরীক্ষা নিরীক্ষা করত: সরকার এই মর্মে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করিয়াছেন যে,

শ্রান্তি ও বিনোদন ছুটি ভূতাপেক্ষভাবে মঞ্জুরী প্রদানের সুযোগ নাই।

এফ,আর এন্ড এস,আর, বিধি-৮৬ অনুযায়ী যেদিন সরকারি চাকুরে অবসর গ্রহণ করবেন সেদিন তার সকল ছুটি তামাদি হয়ে যায়। ফলে এলপিআর

R & R ছুটিকে বহি:বাংলাদেশ রূপান্তরের আবেদন পত্র।

বাংলাদেশ সরকারের সার্ভিস রুলস মোতাবেক একজন কর্মচারী প্রতি ০৩ বছর পর পর বহি: বাংলাদেশ ছুটি ভোগ করে থাকে। এক্ষেত্রে বিদেশ

শ্রান্তি বিনোদন ছুটি ও ভাতা মঞ্জুরীর জন্য আবেদন পত্র।

মন্ত্রণালয়, দপ্তর বা অধিদপ্তরের যে সকল কর্মকর্তা বা কর্মচারী শ্রান্তি বিনোদন ভাতা প্রাপ্তি ও ছুটি মঞ্জুরীর আবেদন করেন, তাদের বেশিরভাগ

শ্রান্তি ও বিনোদন ছুটি মঞ্জুর, ভাতা প্রাপ্যতা, অপ্রাপ্যতা।

সরকারি চাকরিজীবীগণ তার চাকরি যোগদানের তারিখ হতে প্রতি তিন বছর অন্তর অন্তর ১৫ দিনের জন্য ছুটি পেয়ে থাকেন এবং সাথে

অফিসিয়াল পাসপোর্ট করতে চাইলে NOC Form সংগ্রহে রাখুন।

যে সমস্ত কর্মকর্তা বা সরকারি কর্মচারী অফিসিয়াল পাসপোর্ট করতে চান তারা NOC Form অনাপত্তি ফরম পূরণ করে পাসপোর্ট অফিস জমা

প্রকৃত সময় ব্যতীত অন্য সময়ে শ্রান্তি ও বিনোদন ভোগ বিধি।

বাংলাদেশ সরকারের গণকর্মচারী ০৩ বছর অন্তর অন্তর ১৫ দিন শ্রান্তি ও বিনোদন ছুটি ভোগ করে থাকেন। সাথে পেয়ে থাকেন বিদ্যামন

শ্রান্তি ও বিনোদন ছুটি নিয়ে ১২টি গুরুত্বপূর্ণ বিধি।

জনস্বার্থে কোন সরকারী কর্মচারীর আবেদনের তারিখ হতে ভাতাসহ শ্রান্তিবিনোদন ছুটি মঞ্জুর করা সম্ভব না হলে পরবর্তীতে যখনই তিনি ছুটিতে যাবেন

PRL কর্মচারীদের বহি: বাংলাদেশ ছুটি মঞ্জুরী সংক্রান্ত।

এলপিআর বা পিআরএল অর্থাৎ অবসর প্রস্তুতিমূলক ছুটি ও অবসর উত্তর ছুটি মঞ্জুর করবেন সংশ্লিষ্ট দপ্তর। অবসর উত্তর ছুটিতে থাকা কালে

ভাতা ছাড়া শ্রান্তি ও বিনোদন ছুটি মঞ্জুরীর সুযোগ নাই।

অনেক সময় সরকারি কর্তৃপক্ষ কাজের চাপে কর্মচারীকে শুধু ভাতা মঞ্জুর করতে চায়। মঞ্জুরীকৃত ছুটি ভোগ করতে দিতে চায় না। জনস্বার্থে

পরবর্তী শ্রান্তি ও বিনোদন ছুটির তারিখ নির্ধারণে যে ভুলটি অনেকেই করে।

বাংলাদেশ সরকারের গণকর্মচারী ০৩ বছর অন্তর অন্তর ১৫ দিন শ্রান্তি ও বিনোদন ছুটি ভোগ করে থাকেন। সাথে পেয়ে থাকেন বিদ্যামন

রাষ্ট্রপতির অনুমোদন ব্যতীত বহি: বাংলাদেশ প্রেষণ মঞ্জুর নয়।

বিধি-৬৬ । সরকারের বা এই উদ্দেশ্যে সরকার কর্তৃক ক্ষমতাপ্রাপ্ত কর্তৃপক্ষের অনুমোদন ব্যতীত বাংলাদেশের বাহিরে প্রেষণে নিয়োগ করা যাইবে না।  No