সোনালী ব্যাংক ২০ লক্ষ টাকা লোন পাওয়ার উপায় ২০২২

ব্যাংক ঋণ, হ্যাঁ আপনি যদি একজন চাকরিজীবী হন তবে আপনার ব্যাংক ঋণ প্রয়োজন হতেই পারে। টাকার প্রয়োজন সবারই কারও তৎক্ষনিক আবার কারও বা কিছুদিন পর। প্রত্যেকেরই গৃহ নির্মাণ, ব্যক্তিগত প্রয়োজন বা চিকিৎসা জনিত কারণ বড় এমাউন্ট লোন প্রয়োজন পড়বেই। সোনালী ব্যাংক হতে কিছু পেশাজীবীদের জন্য ব্যক্তিগত লোন সহজ শর্তে দেয়া হয়। আজ আমরা সোনালী ব্যাংকের ২০ লক্ষ টাকা লোন সম্পর্কেই আলোচনা করবো।

সোনালী ব্যাংকের এই ঋণ কারা পাবেন?

২০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ব্যাংক লোন সবার জন্য প্রযোজ্য নয়। সরকারী, আধাসরকারী, সকল রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন ব্যাংক ও বীমা কোম্পানির কর্মকর্তাগন, সরকারী কর্মকর্তা / কর্মচারীগণ,  এমপিওভুক্ত বেসরকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের স্থায়ী শিক্ষক কর্মকর্তা / কর্মচারীবৃন্দ, সরকারী ও বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক বৃন্দ ইত্যাদি পেশাজীবীগণ এ লোন প্রাপ্তির যোগ্য বলে বিবেচিত হবে। এসব চাকরিজীবীদের বেতন ভাতাদি সোনালী ব্যাংকে জমা হতে হবে।

কে, কত মেয়াদে, কত টাকা লোন পাবেন?

আপনি ঠিক কত টাকা লোন নিতে চান তার চেয়ে বড় ব্যাপার হলো আপনি কত টাকা লোন প্রাপ্তির যোগ্য। কত টাকা লোন পাবেন সার্বিক দিক বিবেচনা করে ব্যাংক ঠিক করলেও কিস্তির সংখ্যা আপনিই ঠিক করতে পারবেন। আপনি ১ লক্ষ থেকে সর্বোচ্চ ২০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত নিতে পারবেন। যার মেয়াদ হবে ১ বছর থেকে সর্বোচ্চ ৮ বছর পর্যন্ত।

কত টাকা নিলে কত টাকা কিস্তি হবে তা উপরের চিত্র দেখে আপনি নিজেই নির্ধারণ করতে পারবেন। সর্বোচ্চ কত টাকা লোন পাবেন তা আপনি নিজেই বুঝতে পারবেন। ব্যাংক হিসাবে প্রতিমাসে কত টাকা বেতন ভাতাদি হিসাবে ঢুকে সেই পরিমাণ কিস্তির কলামে যা ঋণ হিসাবে আসে তাই আপনি সর্বোচ্চ প্রাপ্য। আরও পরিস্কার করে বলা যায় যে, আপনার একাউন্টে যে টাকা জমা হয়, সেই পরিমাণ টাকা, লোনের যে কিস্তির সমান বা উপরে না যায়, আপনি সে পরিমাণ লোন পাবেন।

সোনালী ব্যাংক ২০ লক্ষ টাকা লোন পাওয়ার উপায় ২০২২

ধরি, আপনার একাউন্টে ২৯,৩০০/- টাকা জমা হয়. তাহলে, আপনি ২০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত লোন পাবেন। তবে ব্যাংক রিস্ক ক্যালকুলেশন করে আপনাকে আরও ঋণ অফার করতেই পারে। তবে প্রয়োজন এবং ঋণের নিরাপত্তা বিবেচনায় আপনি সর্বোচ্চ ২০ লক্ষ টাকা লোন পাবেন যদি আপনার বেতন ভাতাদি সর্বমোট ২৯,৩০০ টাকা হতে ৩০,০০০ টাকা হয়।

ব্যক্তিগত এ ঋণ নিতে কি কি ডকুমেন্টস লাগবে?

পেশা বেদে ভিন্ন ডকুমেন্ট জমা দিতে হয়। আপনি যদি একজন সরকারী কী কী ডকুমেন্টস লাগবে? সেটাই আমরা জানবো। আমি আগেই বলেছি  এটা নির্ভর করে আপনি কীসে আছেন, তার উপর।

১। পাসপোর্ট সাইজের ছবি- ২ কপি।

২। জাতীয় পরিচয়পত্রের কপি -০২ কপি এবং কর্মস্থলের আইডি কার্ডের ফটোকপি -০২ কপি।

৩। আপনার গ্যারান্টর যিনি আপনার মতো সরকারী চাকরীজীবি উনারও ২ কপি ছবি এবং ২ কপি আইডি কার্ডের ফটোকপি।

৫। প্রভিডেন্ট ফান্ড স্লীপ এর ফটোকপি-২ কপি।

৬। এমপিও ভুক্ত শিক্ষক হলে এমপিওর আদেশের কপি-২ কপি।

সোনালী ব্যাংকের এ লোন পেতে কত দিন লাগে?

মোট কথা টাকা সবারই দরকার হয়. হয়তো আপনার কাছে এমন সুযোগ আসলো ২০ লক্ষ টাকা এখনই লাগছে. মুহুর্তের মধ্যে Contact করুন, সোনালী ব্যাংকের শাখায়। আপনার বেতনের হিসাব যদি অন্য কোন ব্যাংকে থেকে থাকে, তবে ঐ হিসাবটি সোনালী ব্যাংকের নিকটস্থ শাখায় নিয়ে আসুন এবং ২০ লক্ষ টাকার পার্সোনাল লোন গ্রহন করুন। এ লোন প্রসেস হতে ৩০-৯০ দিন পর্যন্ত সময় লাগতে পারে। কাগজপত্র রেডি করার নমুনা পেপার্স ডাউনলোড করুন

সোনালী ব্যাংক ২০ লক্ষ টাকা ৮ বছর মেয়াদ পার্সোনাল লোন পরিপত্র ২০২২

Leave a Reply

Your email address will not be published.