রাষ্ট্রীয় সংস্থা জীবন বীমা কর্পোরেশন হতে আজীবন পেনশন পলিসি গ্রহনের সুবর্ণ সুযোগ –JBC আজীবন পেনশন বীমা ২০২৩

বঙ্গবন্ধু পেনশন বীমা –জীবন বীমা কর্পোরেশন জীবনে, জীবনান্তে ও আহত গ্রাহকের পাশে থাকার অঙ্গিকারাবদ্ধ। বাংলাদেশের প্রায় ১৭ কোটি মানুষের মধ্যে ২০-৬৫ বছর বয়সের জনসংখ্যার প্রায় ১১ কোটি। জনসংখ্যার প্রাপ্ত তথ্য থেকে দেখা যায়, বাংলাদেশে দ্রুত গতিতে বয়স্ক লোকের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন জন্য আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ, অর্থমন্ত্রণালয় হতে নির্দেশনা প্রদান করা হয়। সেই নির্দেশনা অনুযায়ী জীবন বীমা কর্পোরেশন এর নিযুক্ত কনসালটেন্ট অ্যাকচ্যুয়ারির মাধ্যমে মুজিববর্ষে একটি নতুন বীমা পলিসি চালু করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।উক্ত সিদ্ধান্ত অনুযায়ী “বঙ্গবন্ধু সার্বজনীন পেনশন পলিসি”(লাভসহ), টেবিল-৬০, পলিসিটি বাজারজাতকরণের জন্য জীবন বীমা কর্পোরেশন উদ্যোগ গ্রহণ করে।

আপনার অবসর জীবনকে স্বাচ্ছন্দময় ও আর্থিক স্বচ্ছলতার লক্ষ্যে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের একমাত্র রাষ্ট্রীয় জীবন বীমা প্রতিষ্ঠান ”জীবন বীমা কর্পোরেশন” এর মাধ্যমে পেনশন পলিসি গ্রহনের সুযোগ রয়েছে ; ফলশ্রুতিতে আপনার অবসর জীবন থাকবে সুরক্ষিত।

বীমার টাকা নাকি সময় মত পাওয়া যায় না? নিছক মিথ্যা কথা নয়। তবে রাষ্ট্রীয় বীমা কর্পোরেশনে বীমার মেয়াদ পূর্তির পর পেনশনের টাকা প্রতি মাসের ১ তারিখে (BEFTN) এর মাধ্যমে আপনার ব্যাংকে জমা হবে। জীবন বীমার সকল অর্থ আয়কর মুক্ত। এছাড়াও প্রতি বছর আপনার বাৎসরিক প্রিমিয়াম এর ১৫ % ইনকাম ট্যাক্স রেয়াত পাবেন। সরকারি, বেসরকারি চাকরিজীবি, ব্যাবসায়ী যেকেউ পেনশন পলিসি গ্রহণ করতে পারবেন। পলিসি গ্রহণের বয়সসীমা ২০ বছর থেকে ৫৪ বছর বয়স এর যেকেউ পলিসি টা গ্রহণ করতে পারবেন। পলিসি যেদিন থেকে চালু হবে ঐ দিন থেকে অনলাইনে আপনার পলিসির সকল তথ্য দেখার সুবিধা রয়েছে।

বঙ্গবন্ধু সার্বজনীন পেনশন পলিস(লাভসহ) / বয়স ভিত্তিতে প্রিমিয়াম হার নির্ধারিত হবে

একজন গ্রাহক ৩৫ বছর বয়সে ১০,০০,০০০ টাকা বীমা অংকের ২০ বছর মেয়াদী অর্থাৎ ৫৫ বছর বয়স পূর্তিতে মাসিক পেনশন নিতে আগ্রহী। টেবিল অনুযায়ী ১,০০০ টাকা বীমা অংকের জন্য প্রিমিয়াম ৪৯.৬৫ টাকা। বার্ষিক প্রিমিয়াম = ৪৯.৬৫ x ১০০০ = ৪৯,৬৫০ টাকা। ২০ বছরে মোট প্রিমিয়াম দিবেন ৪৯,৬৫০ × ২০ = ৯,৯৩,০০০ টাকা। বর্তমানে ১০০০ টাকা বীমা অংকের জন্য বোনাস ৫২ টাকা হিসেবে ২০ বছরে ১০,০০,০০০ টাকার মোট বোনাস = ১০০০ × ৫২ × ২০ =১০,৪০,০০০ । মেয়াদ শেষে মোট প্রাপ্তি =বীমা অংক + বোনাস ১০,০০,০০০ + ১০,৪০,০০০ = ২০,৪০,০০০ টাকা। টেবিল দেখে নিন

জীবন বীমা কর্পোরেশন তথ্য সূত্র দেখুন

যে কারণে পেনশন বীমা করবেন । ব্যক্তিগত পেনশন পলিসির বিশেষ আকর্ষণ কি?

  1.  মেয়াদ পূর্তির পর থেকে অর্থাৎ ৫৫ বছর পর থেকে আজীবন পেনশন লাভের গ্যারান্টি।
  2. মেয়াদ পূর্তির পর ৩ টা পদ্ধতিতে পেনশন এর টাকা পাওয়ার নিশ্চয়তা রয়েছে :-
  3. মেয়াদ পূর্তির পর প্রতি মাসে মাসে আজীবন পেনশন নিতে পারবেন।
  4. মেয়াদ পূর্তির পর ৫০% পেনশন সমর্পণ করে এককালীন টাকা নিতে পারবেন এবং বাকি ৫০% পেনশন মাসে মাসে নিতে পারবেন।
  5. মেয়াদ পূর্তির পর ১০০% পেনশন সমর্পণ করে এককালীন টাকা নেওয়ার নিশ্চয়তা রয়েছে।
  6. স্বাভাবিক মৃত্যুতে একটি বাৎসরিক প্রিমিয়াম এর ১৫ গুন টাকা নমিনিকে প্রদান করা হবে।
  7. দুর্ঘটনায় মৃত্যুতে একটি বাৎসরিক প্রিমিয়াম এর ৩০ গুন টাকা নমিনিকে প্রদান করা হবে।
  8. মেয়াদ পূর্তির পর পেনশন গ্রহীতার মৃত্যু হলে নমিনি ১০ বছর পেনশন পাওয়ার গ্যরান্টি রয়েছে।

বীমা প্রিমিয়াম জমা দেওয়া তো জটিল ব্যাপার এজেন্ট পাওয়া না খুজে তাই নয় কি ?

জীবন বীমা কর্পোরেশনের পলিসির প্রিমিয়াম পেমেন্ট পদ্ধতি খুবই সহজ। অফিসে না গিয়েও যে কোন জায়গা হতে পরিশোধ করা যায়। জীবন বীমা কর্পোরেশনের প্রিমিয়াম ডাচ বাংলা ব্যাংক ( DBBL) এর সকল শাখা ও এজেন্ট ব্যাংকে জমা দিয়ে রশিদ বুঝিয়া নিতে পারবেন। প্রিমিয়াম জমা দেওয়া সাথে সাথে মোবাইলে এস.এম.এস পাবেন। অগ্রণী ব্যাংক এর যেকোন শাখায় জমা দিয়ে রশিদ বুঝিয়া নিতে পারবেন।নেক্সাস পে এ্যাপ্স এর মাধ্যমে নিজের মোবাইল থেকে পেমেন্ট করতে পারবেন। বিকাশ,নগদ অথবা রকেটের মাধ্যমে নিজের মোবাইল থেকে পেমেন্ট করতে পারবেন। ইএফটিএন (BEFTN) এর মাধ্যমে সরাসরি আপনার যেকোন ব্যাংক একাউন্ট থেকে পেমেন্ট করতে পারবেন। তাই প্রিমিয়াম পরিশোধ নিয়ে কোন ঝামেলা পোহাতে হয় না।

সরকারী পেনশন বীমা ২০২৩ । জীবন বীমা কর্পোরেশন পেনশন স্কিম যে কারণে করবেন

admin

আমি একজন সরকারী চাকরিজীবি। দীর্ঘ ৮ বছর যাবৎ চাকুরির সুবাদে সরকারি চাকরি বিধি বিধান নিয়ে পড়াশুনা করছি। বিএসআর ব্লগে সরকারি আদেশ, গেজেট, প্রজ্ঞাপন ও পরিপত্র পোস্ট করা হয়। এ ব্লগের কোন পোস্ট নিয়ে বিস্তারিত জানতে admin@bdservicerules.info ঠিকানায় মেইল করতে পারেন।

admin has 3023 posts and counting. See all posts by admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *