আর্থিক ক্ষমতা অর্পণ নীতিমালা-২০১৫

কি আছে এই ফাইন্যান্সসিয়ার ক্ষমতা অর্পণ নীতিমালা ২০১৫ তে ?

আর্থিক ক্ষমতা অর্পণ (Delegation of Financial Powers-অনুন্নয়ন ও উন্নয়ন- এ নীতিমালায় সরকারি অর্থ ব্যয়ের ক্ষমতা সংক্রান্ত বিধি বিধান আলোচনা করা হয়েছে। এর মাধ্যমে জানা যাবে কোন দপ্তরের ক্ষমতা কত দূর। অর্থাৎ উপজেলা, জেলা, বিভাগীয় পর্যায়ের অফিস গুলোর হাতে কি পরিমান ক্ষমতা দেয়া আছে সেগুলোই এখানে আলোচনা করা হয়েছে।

প্রশ্নে প্রশ্নে জানবো আমরা উপজেলা পর্যায়ের অফিসের মঞ্জুরী, ক্রয় ও অন্যান্য সকল ক্ষমতা সম্পর্কে

  • প্রশ্ন: বাজেট বরাদ্দ এক খাত হতে অন্য খাতে উপযোজন ক্ষমতা আছে কি?
  • উত্তর: নাই। শুধুমাত্র মন্ত্রণালয়ই এটি করতে পারেন।

  • প্রশ্ন: কাঠের কাজ, স্থাপত্য সেবা কাজে ব্যয় করতে পারবে কি?
  • উত্তর: নাই। শর্ত সাপেক্ষে জেলা পর্যায়ে তাও আবার সর্বোচ্চ ২০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত।

  • প্রশ্ন: সরকারি সম্পত্তি অকেজো ঘোষণা করতে পারবে কি?
  • উত্তর: না। শর্ত সাপেক্ষে জেলা পর্যায়ে তাও আবার সর্বোচ্চ ১ লক্ষ টাকা পর্যন্ত।

  • প্রশ্ন: ভ্রমণ ভাতা সর্বোচ্চ কত দিন পর্যন্ত বকেয়া রাখা যায়?
  • উত্তর:না। বিভাগীয় অফিস সর্বোচ্চ ১২ মাস। এ সময় অতিবাহিত হলে যদি অগ্রিম গ্রহণ করে থাকে তা আদায়যোগ্য।

  • প্রশ্ন: নিয়ন্ত্রণ বর্হিভূত কারণে সরকারি কর্মচারীকে অনুর্ধ্ব ১ বছরের অসাধারণ ছুটি মঞ্জুর করা যাবে কি?
  • উত্তর: ক্রমিক নং ১৯ অনুসারে ক্ষমতা নাই । বিভাগীয়/আঞ্চলিক পর্যায়ের অফিস যদি নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষ হতে হবে।

  • প্রশ্ন: জিপিএফ অগ্রিম মঞ্জুরী দিতে পারবে কি?
  • উত্তর: ক্রমিক নং ২২ অনুসারে ক্ষমতা নাই । তবে উপজেলা পর্যায়ের অফিস যদি নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষ হয় তবে পারবে।

  • প্রশ্ন: পেনশন মঞ্জুরি দিতে পারবে কি?
  • উত্তর: ক্রমিক নং ৩১ অনুসারে ক্ষমতা নাই । তবে জেলা পর্যায়ের অফিস যদি নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষ হয় তবে পারবে।

এ রকম প্রশ্নের উত্তর জানতে আর্থিক ক্ষমতা অর্পণ নীতিমালা-২০১৫দেখুন: ডাউনলোড

Avatar

admin

আমি একজন সরকারি চাকরিজীবী। ভালবাসি চাকরি সংক্রান্ত বিধি বিধান জানতে ও অন্যকে জানাতে। আমার ব্লগের কোন কন্টেন্ট সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে বা জানাতে ইমেইল করতে পারেন alaminmia.tangail@gmail.com ঠিকানায়। ধন্যবাদ আপনাকে ওয়েবসাইটটি ভিজিট করার জন্য।