নতুন যোগদানের পরই প্রসূতি ছুটি নেওয়া যাবে কিনা।

কোন মহিলা কর্মচারী প্রসূতি ছুটির জন্য আবেদন করিলে, প্রযোজ্য ক্ষেত্রে, বিধি ১৪৯ অথবা বিধি ১৫০ তে বর্ণিত কর্তৃপক্ষ ছুটি আরম্ভের তারিখ অথবা সন্তান প্রসবের উদ্দেশ্যে আতুর ঘরে আবদ্ধ হওয়ার তারিখ, ইহার মধ্যে যাহা পূর্বে ঘটিবে, ঐ তারিখ হইতে ৬ (ছয়) মাসের ছুটি মঞ্জুর করিবেন।

সার সংক্ষেপ:

  • সর্বোচ্চ দুই বার নেয়া যায় চাকুরী জীবনে।
  • সন্তান প্রসবের পরে এ ছুটি নেওয়া যায় না।
  • যোগদানের পর দিনই এ ছুটি নেয়া যায়।
  • ছুটির হিসাব হতে এ ছুটি বাদ যায় না।
  • এ ছুটি নিতে অজির্ত ছুটি জমা থাকতে হয় না, এর সাথে অর্জিত ছুটির কোন সম্পর্ক নেই।
  • এ ছুটিতে থাকাকালিন স্বাভাবিক বেতন ভাতা পাওয়া যায়।
  • আবেদন করার সময় ডাক্তারি পরীক্ষার সার্টিফিকেট দাখিল করতে হয়।
  • এ ছুটি কর্তৃপক্ষ কর্তৃক নামঞ্জুরের কোন সুযোগ নাই।
  • এ ছুটি আরম্ভের তারিখ কর্তৃপক্ষ পরিবর্তন করতে পারবে না।

প্রসূতি ছুটি

বিএসআর-১৯৭, এফ আর-১০১ এবং এসআর (এফ আর)-২৬৭, ২৬৮) মোতাবেক প্রসূতিকালীন ছুটির জন্য নিম্নোক্ত বিধি বিধান রাখা হয়েছে।

(১) কোন মহিলা কর্মচারী প্রসূতি ছুটির জন্য আবেদন করিলে, প্রযোজ্য ক্ষেত্রে, বিধি-১৪৯ অথবা বিধি-১৫০ তে বর্ণিত কর্তৃপক্ষ ছুটি আরম্ভের তারিখ বা সন্তান প্রসবের উদ্দেশ্যে আতুর ঘরে আবদ্ধ হওয়ার তারিখ, ইহার মধ্যে যাহা পূর্বে ঘটিবে, ঐ তারিখ হইতে ৬ (ছয়) মাসের ছুটি মঞ্জুর করিবেন।

(১এ) একজন মহিলা কর্মচারী সমগ্র চাকরিকালে প্রসূতি ছুটি ২ (দুই) বারের অধিক পাইবেন না।

(১বি) এই বিধির অধীনে মঞ্জুরীকৃত প্রসূতি ছুটি মহিলা কর্মচারীর “ছুটি হিসাব” হইতে বিয়োগ হইবে না এবং ছুটিতে যাওয়ার প্রাক্কালে উত্তোলিত বেতনের হারে পূর্ণ বেতন পাইবেন।

বিশ্লেষণ: এস আরও নং ১৮৬ /অম/অবি/প্রবি২/ছুটি-৩/২০০১, তারিখ: ৯ জুলাই, ২০০১/২৫ আষাঢ় , ১৪০৮ দ্বারা বাংলাদেশ সার্ভিস রুলস, পার্ট-১ এর ১৯৭ নং বিধি উপবিধি-(১) এর পরিবর্তে উপবিধি-(১), (১এ) ও ১(বি) প্রতিস্থাপন করা হয় এবং এস, আর,ও নং ০৫/নথি নং ০৭.১৭৫.০০৮.০০.০০১.২০০০/আইন/২০১১, তারিখ: ৯ জানুয়ারি, ২০১১ দ্বারা উপবিধি (১) পুন:প্রতিস্থাপন করা হয়। 

বাংলাদেশ সার্ভিস রুলস, পার্ট-১ এর ১৯৭ (১) নং বিধি উপরোক্ত ভাবে প্রতিস্থাপিত হওয়ায় প্রসূতি ছুটি সংক্রান্ত বর্তমান বিধানসমূহ নিম্নরুপ:

ক) প্রসূতি ছুটির মেয়াদ ৬ (ছয়) মাস। গর্ভবর্তী হওয়ার পর যে তারিখ হইতে ছুটিতে যাওয়ার আবেদন করিবে, ঐ তারিখ হইতেই ৬ (ছয়) মাসের ছুটি মঞ্জুর করিতে হইবে। তবে উক্ত ছুটি আরম্ভের তারিখ সন্তান প্রসবের উদ্দেশ্যে আতুর ঘরে আবদ্ধ হওয়ার তারিখের পরবর্তী কোন তারিখ হইতে পারিবে না। অর্থাৎ ছুটি আরম্ভের সর্বশেষ তারিখ হইবে সন্তান প্রসবের তারিখ। উল্লেখ্য গর্ভবর্তী হওয়ার স্বপক্ষে ডাক্তারী সার্টিফিকেটসহ আবেদন করা হইলে প্রসূতি ছুটির আবেদন না মঞ্জুর করার কিংবা ছয় মাস অপেক্ষা কম সময়ের জন্য ছুটি মঞ্জুর করার কিংবা ছুটি আরম্ভের তারিখ পরিবর্তন করার ক্ষমতা ছুটি মঞ্জুরকারী কর্তৃপক্ষের নাই । (বিএসআর -১৯৭)।

প্রশ্নোত্তর পর্ব:

  • প্রশ্ন: সন্তান প্রসবের পরদিন হতে কি প্রসূতিকালীন ছুটি নেয়া যাবে?
  • উত্তর: না। সর্বশেষ সময় সন্তান প্রসবের দিন পর্যন্ত।
  • প্রশ্ন: নতুন চাকরিতে যোগদানের পর দিনই কি এ ছুটি নেয়া যাবে?
  • উত্তর: হ্যাঁ। যাবে। কারণ ছুটি জমার সাথে এ ছুটির কোন সম্পর্ক নাই।

নতুন যোগদানের পর পরই কি মাতৃত্বকালিন ছুটি নেয়া যাবে এ সংক্রান্ত বিধি বিধানের JPG কপি সংগ্রহে রাখতে পারেন: ডাউনলোড

admin

এই ব্লগের কোন পোস্ট নিয়ে বিস্তারিত জানতে বা কোন তথ্য যুক্ত করতে বা সংশোধন করতে চাইলে অথবা কোন আদেশ, গেজেট পেতে এই admin@bdservicerules.info ঠিকানায় মেইল করতে পারেন।

3 thoughts on “নতুন যোগদানের পরই প্রসূতি ছুটি নেওয়া যাবে কিনা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.