বিদেশ ভ্রমণকালে সরকার দিবে পকেট মানি।

সরকারি কাজে বিদেশ ভ্রমণকালে বৈদেশিক মুদ্রায় প্রাপ্য ভ্রমণ ভাতা ও অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা পুন: নির্ধারণ সংক্রান্ত অর্থ বিভাগের ০৯/১০/২০১২ তারিখের ২২১(১০০০) নং অফিস স্মারকের ১১ নং অনুচ্ছেদ এবং অর্থ বিভাগের ১০/০৩/২০১৩ তারিখের ৬৭ নং অফিস স্মারক অনুযায়ী বৈদেশিক প্রশিক্ষণ, সেমিনার, ওয়ার্কশপ ইত্যাদিতে অংশগ্রহণের নিমিত্ত সাধারণ পর্যায়ভূক্ত কোন ব্যক্তি যদি রাষ্ট্রীয় অতিথি হিসেবে বিবেচিত হন অর্থাৎ যদি তাঁর আহার, বাস্থান বাবদ খরচ কোন বিদেশী সরকার কিংবা সংস্থা বহন করে, তাহলে তিনি সে দেশের জন্য নির্ধারিত সাকুল্য ভাতার (comprehensive allowance) শতকরা ৩০ ভাগ পকেট ভাতা প্রাপ্য হবেন।

তবে,

  • তাকেঁ আনুষাঙ্গিক ব্যয় বাবদ নগর কোন অর্থ প্রদান করা হয়ে থাকলে, তিনি এ ভাতা পাবেন না।
  • আহার ও বাসস্থান বাবদ খরচের জন্য উক্ত দেশ বা সংস্থা যদি সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে নগদ অর্থ প্রদান করেন তা হলে সে ক্ষেত্রেও তিনি এ ভাতা প্রাপ্য হবে না।
  • ভ্রমণ আদেশ জারি কালে অর্থ বিভাগের ১০/০৩/২০১৩ তারিখের বিধি উল্লেখ থাকতে হবে।

বিস্তারিত জানতে আদেশ দেখুন:

অর্থ মন্ত্রণালয়ের ১৮/০৯/২০১৮ খ্রি: তারিখের ০৭.১৫২.০০০.০০.০০০(অংশ-১).২০০৮-৬৬ নম্বর পত্রের মাধ্যমে বৈদেশিক প্রশিক্ষণ, সেমিনার, ওয়ার্কশপ ইত্যাদিতে অংশগ্রহনের নিমিত্ত প্রাপ্য ভাতা প্রদান সংক্রান্ত স্মারকে ব্যাখ্যা প্রদান সম্পর্কে বলা হয়েছে।

সরকারি কাজে বিদেশ ভ্রমণকালে বৈদেশিক মুদ্রায় প্রাপ্য ভ্রমণ ভাতা ও অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা পুন: নির্ধারণ সংক্রনাত্ অর্থ বিভাগের ০৯/১০/২০১২ তারিখের ২২১ (১০০০) নং অফিস স্মারকের ১১ নং অনুচ্ছেদ এবং অর্থ বিভাগের ১০/০৩/২০১৩ তারিখের ৬৭ নং অফিস স্মারক অনুযায়ী বৈদেশিক প্রশিক্ষণ, সেমিনার, ওয়ার্কশপ ইত্যাদিতে অংশগ্রহণের নিমিত্ত ৩০% পকেট ভাতা প্রাপ্যতার বিষয়ে অর্থ বিভাগের নিম্নোক্ত মতামত নির্দেশক্রমে প্রদান করা হয়েছে।

(ক) সরকারি কাজে বিদেশ ভ্রমণকালে বৈদেশিক মুদ্রায় প্রাপ্য ভ্রমণ ভাতা ও অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা পুন: নির্ধারণ সংক্রান্ত অর্থ বিভাগের ০৯/১০/২০১২ তারিখের ২২১(১০০০) নং অফিস স্মারকের ১১ নং অনুচ্ছেদ এবং অর্থ বিভাগের ১০/০৩/২০১৩ তারিখের ৬৭ নং অফিস স্মারক অনুযায়ী বৈদেশিক প্রশিক্ষণ, সেমিনার, ওয়ার্কশপ ইত্যাদিতে অংশগ্রহণের নিমিত্ত সাধারণ পর্যায়ভূক্ত কোন ব্যক্তি যদি রাষ্ট্রীয় অতিথি হিসেবে বিবেচিত হন অর্থাৎ যদি তাঁর আহার, বাস্থান বাবদ খরচ কোন বিদেশী সরকার কিংবা সংস্থা বহন করে, তাহলে তিনি সে দেশের জন্য নির্ধারিত সাকুল্য ভাতার (comprehensive allowance) শতকরা ৩০ ভাগ পকেট ভাতা প্রাপ্য হবেন।  তবে, তাকেঁ আনুষাঙ্গিক ব্যয় বাবদ নগর কোন অর্থ প্রদান করা হয়ে থাকলে, তিনি এ ভাতা পাবেন না।  আহার ও বাসস্থান বাবদ খরচের জন্য উক্ত দেশ বা সংস্থা যদি সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে নগদ অর্থ প্রদান করেন তা হলে সে ক্ষেত্রেও তিনি এ ভাতা প্রাপ্য হবে না। ভ্রমণ আদেশ জারি কালে অর্থ বিভাগের ১০/০৩/২০১৩ তারিখের বিধি উল্লেখ থাকতে হবে।

(খ) ভবিষ্যতে এ বিষয়ে জটিলতা এড়ানোর স্বার্থে বিদেশে প্রশিক্ষণ, সেমিনার, ওয়ার্কশপ ইত্যাদিতে অংশগ্রহণের ক্ষেত্রে প্রশাসনিক মন্ত্রণালয়/বিভাগ কর্তৃক জারীকৃত জিওতে সরকারি কাজে বিদেশ ভ্রমণকালে বৈদেশিক মুদ্রায় প্র্রাপ্য ভ্রমণ ভাতা ও অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা পুন: নির্ধারণ সংক্রান্ত অর্থ বিভাগের ০৯/১০/২০১২ তারিখের ২২১ (১০০০) নং অফিস স্মারকের ১১ নং অনুচ্ছেদ এবং অর্থ বিভাগের ১০/০৩/২০১৩ তারিখের ৬৭ নং অফিস স্মারক অনুযায়ী ৩০% পকেট ভাতা প্রাপ্যতার বিষয়টি উল্লেখ করতে হবে।

পত্রটিতে স্বাক্ষর করেছেন উপ সচিব শেখ মোমেনা মনি। 

বিদেশ ভ্রমণ কালে সাকুল্য বেতনের ৩০% পকেট মানি পাবেন এ সংক্রান্ত আদেশের JPG কপি সংগ্রহ করতে পারেন: ডাউনলোড

Avatar

admin

আমি একজন সরকারি চাকরিজীবী। ভালবাসি চাকরি সংক্রান্ত বিধি বিধান জানতে ও অন্যকে জানাতে। আমার ব্লগের কোন কন্টেন্ট সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে বা জানাতে ইমেইল করতে পারেন alaminmia.tangail@gmail.com ঠিকানায়। ধন্যবাদ আপনাকে ওয়েবসাইটটি ভিজিট করার জন্য।

One thought on “বিদেশ ভ্রমণকালে সরকার দিবে পকেট মানি।

  • Avatar
    02/09/2019 at 11:38 am
    Permalink

    বৈদেশিক ভ্রমনের একটি বিল এর কপি দেখতে পারলে ভাল হতো। একটি বৈদেশিক বিলে কি কি আইটেমের ভাতা থাকে?

Leave a Reply

Your email address will not be published.