সরকারি টেলিফোন, সেলুলার, ফ্যাক্স ও ইন্টারনেট নীতিমালা ২০১৮

বেতনভাতার সহিত এই ভাতা প্রদেয় হইবে এবং ইহার অতিরিক্ত ভ্যাট এবং লাইনরেন্ট প্রাপ্য হইবেন।

১৬। টেলিফোন ব্যবহার, ব্যয় এবং নিয়ন্ত্রণ:

(ক) সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়/বিভাগ/ দপ্তর/ প্রতিষ্ঠানের আবাসিক টেলিফোনের মঞ্জুরি বিদ্যমান টেলিফোনের সংখ্যা (নম্বরসহ) সংবলিত তথ্য (নির্ধারিত ছকে) একটি রেজিস্টার সংরক্ষণ করিতে হইবে।

(খ) আবাসিক টেলিফোনের ক্ষেত্রে ১৫ নম্বর অনুচ্ছেদের ক হইতে ঘ ক্রমিকে উল্লিখিত প্রাধিকারপ্রাপ্ত কর্মচারীগণ ইচ্ছা করিলে ৩য় কলামে বর্ণিত “নির্ধারিত ব্যয়সীমা এর পরিবর্তে উক্ত অনুচ্ছেদের ৪র্থ কলামে বর্ণিত “টেলিফোন নগদায়ন ভাতা” গ্রহণ করিতে পারিবেন। এই ক্ষেত্রে নিম্নরূপ শর্ত প্রযোজ্য হইবে: (১) বেতনভাতার সহিত এই ভাতা প্রদেয় হইবে এবং ইহার অতিরিক্ত ভ্যাট এবং লাইনরেন্ট প্রাপ্য হইবেন। (২) বি.টি.সি.এল এর ফোন এবং যে কোন ইন্টারনেট সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানের সংযোগ থাকিতে হইবে (৩) টেলিফোন ও ইন্টারনেটের বিল কর্মচারীগণ ব্যক্তিগতভাবে পরিশোধ করিবেন; (৪) সংশ্লিষ্ট কর্মচারী টেলিফোন নগদায়ন ভাতা গ্রহণে ইচ্ছুক এই মর্মে একটি প্রত্যয়নপত্র প্রতি কর্মস্থলে একবার পেশ করিবেন; এবং (৫) ইন্টারনেট সংযোগ গ্রহনের ক্ষেত্রে বি.টিসি.এল এবং টেলিটককে অগ্রাধিকার প্রদান করা যাইতে পারে।

সরকারি টেলিফোন, সেলুলার, ফ্যাক্স ও ইন্টানেট নীতিমালা, ২০১৮ সংগ্রহে রাখতে পারেন: ডাউনলোড

admin

আমি একজন সরকারী চাকরিজীবি। দীর্ঘ ৮ বছর যাবৎ চাকুরির সুবাদে সরকারি চাকরি বিধি বিধান নিয়ে পড়াশুনা করছি। বিএসআর ব্লগে সরকারি আদেশ, গেজেট, প্রজ্ঞাপন ও পরিপত্র পোস্ট করা হয়। এ ব্লগের কোন পোস্ট নিয়ে বিস্তারিত জানতে [email protected] ঠিকানায় মেইল করতে পারেন।

One thought on “সরকারি টেলিফোন, সেলুলার, ফ্যাক্স ও ইন্টারনেট নীতিমালা ২০১৮

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *