নিয়ন্ত্রণকারী কর্মকর্তা অযৌক্তিক ভ্রমণ ভাতার অংশ কর্তন করতে পারেন।

বিধি-১৬৫
(এ) উপবিধি (বি) এর ক্ষেত্র ব্যাতীত স্থায়ী ভ্রমণ ভাতা বিল ব্যতীত অন্য কোন ভ্রমণ ভাতা বিল নিয়ন্ত্রণকারী কর্মকর্তার স্বাক্ষর বা প্রতিস্বাক্ষর ব্যতীত প্রদান করা যাইবে না।

বিশ্লেষণ: কর্মচারীদের ভ্রমণ ভাতা অবশ্যই নিয়ন্ত্রণকারী কর্মকর্তা কর্তৃক প্রতিস্বাক্ষরিত হতে হবে। স্থায়ী ভ্রমণ ভাতার ক্ষেত্রে এটি প্রযোজ্য নয়।

বিধি-১৬৬
সরকার কর্তক সুষ্পষ্টভাবে অনুমতিপ্রাপ্ত হওয়ার ক্ষেত্র ব্যতীত কোন নিয়ন্ত্রণকারী কর্মকর্তা তাহার প্রতিস্বাক্ষর করার দায়িত্ব অন্য কোন অধস্তন কর্মকর্তার নিকট অর্পণ করিতে পারিবেন না।

বিধি-১৬৭
ভ্রমণ ভাতা বিলে স্বাক্ষর বা প্রতিস্বাক্ষরের পূর্বে নিয়ন্ত্রণকারী কর্মকর্তার দায়িত্ব হল: যে ভ্রমণ ও অবস্থান সময়ের জন্য ভ্রমণ ভাতা দাবী করা হইয়াছে , উক্ত ভ্রমণ ও অবস্থান সময়ের প্রয়োজনীয়তা, সংখ্যা ও মেয়াদকাল যাচাই করা এবং তাহার বিবেচনায় ভ্রমণ বা অবস্থান সময় অপ্রয়োজনীয় বা অযথা বিলম্বিত বা অবস্থান সময় অত্যাধিক, উক্ত ভ্রমণ বা অবস্থান সময়ের দাবীকৃত ভ্রমণ ভাতা আংশিক বা সম্পূর্ণ ভাবে অনুমোদন না করা বা করিতে পারেন।

বিশ্লেষণ: এই বিধিমালার আওতায় যে ক্ষেত্রে ব্যক্তিগত মালামাল পরিবহনের প্রকৃত খরচ দাবী করা হইয়াছে, ঐ ক্ষেত্রে তাহা যুক্তিযুক্ত। অর্থাৎ যুক্তিযুক্ত নয় এমন অংশ বাতিল করে প্রত্যায়ন করতে পারেন। ব্যক্তিগত মালামাল পরিবহন করা হইলে উহার রশিদ বিলের সঙ্গে যুক্ত করিতে হইবে।
রেল বা স্টীমারে পরিবহণের প্রমানপত্র দাখিল করিতে হইবে।

Avatar

admin

আমি একজন সরকারি চাকরিজীবী। ভালবাসি চাকরি সংক্রান্ত বিধি বিধান জানতে ও অন্যকে জানাতে। আমার ব্লগের কোন কন্টেন্ট সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে বা জানাতে ইমেইল করতে পারেন alaminmia.tangail@gmail.com ঠিকানায়। ধন্যবাদ আপনাকে ওয়েবসাইটটি ভিজিট করার জন্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published.