স্থায়ী ঠিকানা নির্ধারণে NID নাকি ইউনিয়নপরিষদ সনদ।

আমরা চাকরির ক্ষেত্রে দ্বিধায় পড়ে যাই যে, স্থায়ী ঠিকনা কিসের ভিত্তিতে নির্ধারিত হইবে? জাতীয় পরিচয়ত্র নাকি ইউনিয়ন পরিষদ এর সনদ পত্র দ্বারা। জাতীয় পরিচয়পত্র নিবন্ধন আইন, ২০১০ ভালভাবে পড়ে নিলেই আপনার ধারণা আরও স্পষ্ট হবে।

  • জাতীয় পরিচয়পত্র স্থায়ী/অস্থায়ী দু’ঠিকানার ভিত্তিতেই প্রদান করা হয়, তাই এটি স্থায়ী ঠিকানার কোন প্রমানপত্র বলে গণ্য হতে পারে না।
  • স্থানীয় কর্তৃপক্ষ চেয়ারম্যান, কাউন্সিলর কর্তৃক প্রদত্ত পরিচয়পত্র বা সনদ এ উল্লেখিত স্থায়ী ঠিকানাই প্রকৃত ঠিকানা এটি দিয়ে জাতীয় পরিচয়পত্রের স্থায়ী ঠিকানা পরিবর্তন করা যায়।

স্থায়ী ঠিকানা নির্ধারন করা হয়ে NID নাকি ইউনিয়ন/উপজেলা/জেলা পরিষদের সনদ দ্বারা এ সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে জাতীয় পরিচয়পত্র নিবন্ধন আইন, ২০১০ দেখুন: ডাউনলোড

admin

এই ব্লগের কোন পোস্ট নিয়ে বিস্তারিত জানতে বা কোন তথ্য যুক্ত করতে বা সংশোধন করতে চাইলে অথবা কোন আদেশ, গেজেট পেতে এই admin@bdservicerules.info ঠিকানায় মেইল করতে পারেন।

2 thoughts on “স্থায়ী ঠিকানা নির্ধারণে NID নাকি ইউনিয়নপরিষদ সনদ।

  • 08/11/2020 at 10:54 am
    Permalink

    vai ek word e sthai vabe bosobas kore se jodi onno word votar hoy tahole ki votar idir thikana ki present address daya jabe ki

  • 08/11/2020 at 7:04 pm
    Permalink

    স্থায়ী ঠিকানা যেখানে সেই এড্রেস ব্যবহার করতে হবে। ভোটার কোথাকার সেটি বিষয় নয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.